landslide early warning system
চালু করা হল সেই ব্যবস্থা। ছবি: মিলেনিয়াম পোস্ট

কার্শিয়াং: দার্জিলিং জেলা প্রশাসন এবং জিওলজিকাল সার্ভে অফ ইন্ডিয়ার (জিএসআই) যৌথ উদ্যোগে ধসের আগাম সতর্কবার্তার জন্য বিশেষ ব্যবস্থা চালু হল কার্শিয়াং-এর গিদ্দাপাহাড়ে। এর নাম ‘পিপল সেন্ট্রিক ল্যান্ডস্লাইড আর্লি ওয়ার্নিং সিস্টেম।’ এই ব্যবস্থায় বিশেষ ভূমিকা পালন করতে হবে স্থানীয় বাসিন্দাদের। ধসের সম্ভাবনা কতটা, সেটা স্থানীয় বাসিন্দারাই আগাম আন্দাজ করে প্রশাসনের কাছে সতর্কবার্তা পাঠিয়ে দিতে পারবেন।

জিএসআইয়ের এক আধিকারিক বলেন, “দার্জিলিং পাহাড়ের অত্যন্ত ধসপ্রবণ জায়গাগুলির অন্যতম এই গিদ্দাপাহাড়। গত দু’দশকে অসংখ্যবার ধস নেমেছে। ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন সাধারণ মানুষ, মৃত্যুও হয়েছে। তাই মানুষজন যাতে আগাম ধসের আন্দাজ পেয়ে যান, সেই কারণেই এই ব্যবস্থাটি চালু করা হয়েছে। আপাতত পরীক্ষামূলক ভাবেই এটি কাজ করবে।”

আরও পড়ুন ‘ঠ্যাং ভেঙে দেব,’ প্রতিবন্ধীদের অনুষ্ঠানে বিতর্কিত মন্তব্য বাবুল সুপ্রিয়র, দেখুন ভিডিও

এই ব্যবস্থায় গিদ্দাপাহাড়ে একটা রেজ গজ, অর্থাৎ বৃষ্টি মাপার যন্ত্র বসানো হয়েছে। কতো পরিমাণ বৃষ্টি হলে ধসের সম্ভাবনা বেশি, সেই ব্যাপারে স্থানীয় বাসিন্দাদের বোঝানো হয়েছে। এখন থেকেই তাঁরাই এখানে বৃষ্টির পরিমাণ দেখে ধসের ব্যাপারে আগাম আন্দাজ করতে পারবেন।

গত কয়েকবছরে কিছু বিধ্বংসী ধস দেখেছে দার্জিলিং এবং কালিম্পং-এর বেশ কিছু জায়গা। এর মধ্যে সব থেকে ভয়বহ ঘটনাটি ঘটে ২০১৫ সালে মিরিকে। বিধ্বংসী এই ধসে মারা যান অন্তত ৩৫। জিএসআইয়ের তরফ থেকে জানানো হয়েছে, গিদ্দাপাহাড়ের এই ব্যবস্থা সফর হয়ে গেলে, দার্জিলিং-এর আরও জায়গায় এটা চালু করা হবে।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন