Amdanga

ওয়েবডেস্ক: পঞ্চায়েতের বোর্ড গঠনকে কেন্দ্র করে সৃষ্টি হওয়া সংঘর্ষের রেশ এখনও ছড়িয়ে রয়েছে উত্তর ২৪ পরগনার আমডাঙায়। দু’দিন কেটে গেলেও গোটা এলাকায় এখনও বজায় রয়েছে আতঙ্কের পরিবেশ। এমনকী বৃহস্পতিবার সকালে পুনরায় বোমা ছুড়ে পালায় এক দল দুষ্কৃতী। অথচ গোটা এলাকায় মোতায়েন রয়েছে বিশাল সংখ্যক পুলিশ। তাঁরা নিয়মিত টহল দিচ্ছেন।

গত বুধবার আমডাঙা থেকে প্রায় ২০০-র উপর তাজা বোমা উদ্ধার করা হয়েছিল বলে জানা গিয়েছে। এ দিনও বোমা উদ্ধারে খুব একটা বেগ পেতে হয়নি পুলিশকে।  সকালেই বহিসগাছি এলাকায় এক সিপিএম সমর্থকের বাড়ি থেকে উদ্ধার হয়েছে এক ড্রাম তাজা বোমা। পাশাপাশি পাওয়া গিয়েছে, বোমার মশলা এবং প্রচুর তীর-ধনুক। ওই বাড়ির চাল থেকেই হদিশ মেলে বোমা বাঁধার সুতলি দড়ির। পুলিশের আশঙ্কা এলাকায় আরও বোমা বা অন্যান্য হাতিয়ার মিললেও মিলতে পারে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, প্রায় গোটা এলাকা পুরুষশূন্য। বাড়িতে কচি-কাঁচা বা মহিলারা ছাড়া আর অন্য কেই নেই। অনেক বাড়িই জনশূন্য। প্রাণের ভয়ে এলাকা ছেড়ে পালিয়ে গিয়ে আশ্রয় নিয়েছেন আত্মীয়ের বাড়িতে। সংঘর্ষ শুরু হওয়ার পর থেকেই দুষ্কৃতীদের কার্যকলাপ এবং পুলিশের উদ্যোগের চাপে পড়ে ঝামেলা এড়াতে বহু পরিবার ভিটে ছেড়ে অন্যত্র চলে গিয়েছেন বলে জানা গিয়েছে।


পড়তে পারেন: সেবির কড়া নজরদারি সত্ত্বেও ছদ্মবেশি দালালরা শেয়ার বাজারকে চিটফান্ডের মতোই ব্যবহার করছে

স্বাভাবিক ভাবেই গোটা এলাকা জুড়ে এক অদ্ভুত নিস্তব্ধতা বিরাজ করছে। দোকান-বাজার বন্ধ। রীতি মতো বন্‌ধের চেহারা নিয়েছে আমডাঙা। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে নিয়ে আসতে বিশাল পুলিশ বাহিনী নিয়ে আসা হয়েছে। তার মাঝেও এ দিন ফের বোমা আওয়াজে কেঁপে উঠল এলাকা।

উল্লেখ্য, সংঘর্ষে আহতদের মধ্যে ৭ জনকে আরজিকর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। মৃত্যু হয়েছে ৩ জনের।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন