kolkata weather
গত কয়েকদিন ধরেই কলকাতার বিকেলের আকাশ এরকম। ছবি: উইকিপেডিয়া

ওয়েবডেস্ক: গত দু’দিন হল, বৃষ্টি কার্যত উধাও হয়ে গিয়েছে দক্ষিণবঙ্গ থেকে। এই পরিস্থিতিতে ক্রমশ পাল্লা দিয়ে বাড়ছে পারদ। কলকাতায় তো বটেই, কিছু দিন আগেই বানভাসি হয়ে পড়া বাঁকুড়াতেও পারদ বাড়ছে। শুক্রবার কলকাতার পারদ উঠে গিয়েছিল ৩৫ ডিগ্রিতে। বাঁকুড়া-সহ দক্ষিণবঙ্গের বাকি অঞ্চলেও পারদ ঘোরাফেরা হয়েছে ৩৫ থেকে ৩৬ ডিগ্রির আশেপাশে।

রবিবার পর্যন্ত এই পরিস্থিতির বিশেষ পরিবর্তন হবে না বলে সাফ জানিয়ে দেওয়া হয়েছে বেসরকারি আবহাওয়া সংস্থা ওয়েদার আল্টিমার তরফ থেকে। তবে সোমবার থেকে আবহাওয়ার পরিবর্তন আসতে পারে।

গত দু’তিন দিন ধরে দক্ষিণবঙ্গের যে গরমের প্রকোপ বেড়েছে সেটাও বর্ষার একদম স্বাভাবিক নিয়মে হয়েছে। এই পরিস্থিতিকে বলে ‘মনসুন ব্রেক।’ অনেক দিন টানা বৃষ্টি চলার পরে, কয়েক দিন হয় এই ব্রেক, তার পর আবার শুরু হয় বৃষ্টি। এ বারও সে রকমই কিছু হতে চলেছে।

আরও পড়ুন কাশ্মীর-সহ সব ইস্যুতেই কথা বলতে রাজি, ভারতকে ‘শান্তি’র বার্তা ইমরানের

ইতিমধ্যেই বঙ্গোপসাগরে নতুন একটি নিম্নচাপ সৃষ্টি হওয়ার কথা ঘোষণা করে দিয়েছে আলিপুর আবহাওয়া দফতর। রবিবার-সোমবার নাগাদ বঙ্গোপসাগরে নিম্নচাপটি তৈরি হতে পারে। তবে নিম্নচাপের গতিপথের ব্যাপারে আবহাওয়া দফতর থেকে কিছু জানানো না হলেও ওয়েদার আল্টিমা জানিয়েছে, এটি উত্তর ওড়িশা এবং রাজ্যের উপকূলবর্তী অঞ্চলের মধ্যে দিয়ে স্থলভাগে প্রবেশ করবে।

ফলে কী হবে?

সোমবার থেকে কলকাতা-সহ দক্ষিণবঙ্গে বৃষ্টি বাড়বে বলে জানিয়েছেন ওয়েদার আল্টিমার কর্ণধার রবীন্দ্র গোয়েঙ্কা। মঙ্গলবার থেকে ঝোড়ো হাওয়ার সঙ্গে জোর বৃষ্টি চলতে পারে। তবে কলকাতায় ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা বিশেষ না থাকলেও, রাজ্যের উপকূলবর্তী অঞ্চল এবং পশ্চিমাঞ্চলে ফের এক দফা ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। এ দিকে অনেক দিন কার্যত বৃষ্টিহীন থাকার পরে শুক্রবার রাত থেকে ভালো বৃষ্টি শুরু হয়েছে উত্তরবঙ্গে। শনিবার সকাল সাড়ে আটটা পর্যন্ত কোচবিহারে ৯২, জলপাইগুড়িতে ৮৫ এবং শিলিগুড়িতে ৫০ মিমি বৃষ্টি হয়েছে। তবে উত্তরবঙ্গে এখনই একটানা বৃষ্টির কোনো সম্ভাবনা নেই। বরং বৃষ্টির জন্য স্থানীয় ভাবে তৈরি হওয়া বজ্রগর্ভ মেঘের ওপরেই ভরসা করতে হতে পারে উত্তরবঙ্গকে।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন