Jalpaiguri circuit bench
ছবি: ইন্টারনেট থেকে

কলকাতা: আগামী সেপ্টেম্বর মাসের মাঝামাঝিতেই অস্থায়ী ভাবে চালু হতে চলেছে কলকাতা হাইকোর্টের জলপাইগুড়ি সার্কিট বেঞ্চ।

কয়েক সপ্তাহ আগে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এই সার্কিট বেঞ্চের উদ্বোধনের তারিখ ঘোষণা করে দেওয়ায় হাইকোর্টে একটি মামলা হয়। এ ছাড়া আরও একটি মামলা চলছে সার্কিট বেঞ্চকে কেন্দ্র করে। কিন্তু কোনো মামলার ক্ষেত্রেই আদালত স্টে অর্ডার দেয়নি। অন্য দিকে গত সপ্তাহে প্রধান বিচারপতি  জ্যোর্তিময় ভট্টাচার্য এবং চার প্রবীণ বিচারপতি সার্কিট বেঞ্চের পরিকাঠামো খতিয়ে দেখতে জলপাইগুড়ি যান। সব মিলিয়ে সূত্রের খবর, আগামী মাসের দ্বিতীয় সপ্তাহের মধ্যেই সম্ভবত সার্কিট বেঞ্চের কাজ অস্থায়ী ভাবে শুরু হয়ে যাবে।

জলপাইগুড়িতে সার্কিট বেঞ্চের দাবি প্রায় পাঁচ দশকের। গত ২০১২ সালে তৎকালীন প্রধান বিচারপতি জে এন পটেল সার্কিট বেঞ্চ গঠনের উদ্যোগ নেওয়ার পর কাজ শুরু হয়। বিচারপতি , রেজিস্টার এবং অন্যান্যদের জন্য আবাসন-সহ একটি সার্কিট বেঞ্চের সমস্ত পরিকাঠামোই গড়ে তোলা হয়েছে সেখানে। সম্প্রতি প্রধান বিচারপতি ও চার বিচারপতির সার্কিট বেঞ্চের পরিকাঠামো পরিদর্শনে তাঁদের সঙ্গ দেন রাজ্যের দুই মন্ত্রী মলয় ঘটক এবং গৌতম দেব। তার পরই জানা যায়, আগামী মাসেই সার্কিট বেঞ্চের কাজ অস্থায়ী ভাবে শুরু হবে।

যদিও এ বিষয়ে দুটি মামলা চলছে কলকাতা হাইকোর্টে। আইনজীবী বিকাশরঞ্জন ভ‌ট্টাচার্য এবং প্রতাপ চট্টোপাধ্যায় ওই মামলা দুটিতে আবেদনকারীর হয়ে সওয়াল করছেন।


আরও পড়ুন: নবম-দশমে বিষয়পিছু শূন্যপদের তালিকা আজ প্রকাশ করছে কমিশন

উল্লেখ্য, একটি সূত্র মারফত জানা গিয়েছে, আগামী ১০ সেপ্টেম্বরের রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীর হাত দিয়েই উদ্বোধন হতে চলেছে জলপাইগুড়ি সার্কিট বেঞ্চের।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন