low pressure in bay of bengal
ওই আসে বৃষ্টি। নিজস্ব চিত্র

ওয়েবডেস্ক: আবহাওয়া চরিত্র বড়োই অদ্ভুত। মাঝেমধ্যেই তার খামখেয়ালিপনায় ভিরমি খেয়ে যান আবহাওয়া বিশেষজ্ঞরাও। ঠিক যেমনটা এখন হল। যে নিম্নচাপের প্রভাবে দক্ষিণবঙ্গে ভারী বৃষ্টি হওয়ার কথা ছিল, সেটি উল্লেখযোগ্য কোনো বৃষ্টি না দিয়েই দক্ষিণবঙ্গের চৌহদ্দি থেকে বিদায় নিল। তবে সামনের আরও একটি নিম্নচাপ সৃষ্টির ইঙ্গিত পাওয়া গিয়েছে। এর প্রভাব কিন্তু সরাসরি দক্ষিণবঙ্গের ওপরেই পড়তে পারে বলে মনে করছেন আবহাওয়া বিশেষজ্ঞরা।

বৃহস্পতিবার সকাল থেকে অবশ্য দফায় দফায় বৃষ্টি হচ্ছে কলকাতা-সহ সমগ্র দক্ষিণবঙ্গে। বিদায় নেওয়া নিম্নচাপটির রেখে যাওয়া জলীয় বাষ্পের প্রভাবেই এই বর্ষণ বলে জানা গিয়েছে। তবে শুক্রবার থেকে বৃষ্টির দাপট কমে যেতে পারে বলে জানিয়েছে বেসরকারি আবহাওয়া সংস্থা ওয়েদার আল্টিমা।

আরও পড়ুন কেরলে বন্যায় এক লাফে মৃত বেড়ে ৮৭, সাহায্যের জন্য প্রধানমন্ত্রীকে ফোন বিজয়নের

সংস্থার কর্ণধার রবীন্দ্র গোয়েঙ্কা জানিয়েছেন, “বর্তমানে নিম্নচাপটি ওড়িশা-ছত্তীসগঢ় সীমান্তে রয়েছে। এটি যত দূরে সরে যাবে তত পরিষ্কার হয়ে যাবে দক্ষিণবঙ্গের আবহাওয়া। কমবে বৃষ্টি।” এর ফলে শুক্রবার থেকে আগামী ২৪ ঘণ্টায় সর্বোচ্চ পারদ বেশ কিছুটা বাড়তে পারেও বলে জানিয়েছেন তিনি। কলকাতা এবং দক্ষিণবঙ্গের অন্যান্য অংশগুলিতে পারদ ৩৫ ডিগ্রিতে উঠে যেতে পারে বলে পূর্বাভাস তাঁর। তবে এই গরম আবহাওয়া নিতান্তই সাময়িক। পেছনে আরও একটি নিম্নচাপের ইঙ্গিত রয়েছে বলে জানিয়েছেন তিনি।

অবশ্য নতুন নিম্নচাপটির ব্যাপারে গত কয়েকদিন ধরেই পূর্বাভাস দিচ্ছিল আলিপুর আবহাওয়া দফতর। কিন্তু তার গতিপথ কী হতে পারে, সে ব্যাপারে কিছু জানায়নি তারা। রবীন্দ্রবাবু মনে করেন নতুন নিম্নচাপটির গতিপথ আর ওড়িশা নয়, হতে পারে দক্ষিনবঙ্গই। এর ফলে রবিবার দুপুর থেকে মঙ্গলবার পর্যন্ত দক্ষিণবঙ্গে ভারী বৃষ্টি হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে বলে জানিয়েছেন তিনি। নিম্নচাপটির প্রভাব কীরকম হবে সেটা বোঝার জন্য আরও অন্তত ৪৮ ঘণ্টা অপেক্ষা করতে হবে। তবে ওয়েদার আল্টিমার মতে, ঝোড়ো হাওয়া এবং বজ্রবিদ্যুৎ-সহ ভারী বৃষ্টি পেতে পারে দক্ষিণবঙ্গ।

আরও পড়ুন আয়ুষ্মান ভারত স্বাস্থ্যবিমার সুবিধা আপনি পাবেন কি? তালিকায় মিলিয়ে দেখে নিন

এ দিকে দক্ষিণবঙ্গ স্বাভাবিক বৃষ্টি পেলেও, উল্লেখযোগ্য বৃষ্টির এখনও অভাব রয়েছে উত্তরবঙ্গে। আগামী কয়েকদিনেও সেই পরিস্থিতির কোনো উন্নতির সম্ভাবনা নেই বলেই জানানো হয়েছে।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন