Mamata-Banerjee
ফাইল ছবি

কলকাতা: এখন থেকে কন্যাশ্রী প্রকল্পের জন্য কোনো ঊর্ধ্বসীমা থাকছে না। সকলেই কন্যাশ্রী পাবে। কন্যাশ্রী দিবসে এই ঘোষণা করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এ ছাড়াও ছাত্রীদের জন্য বিশ্ববিদ্যালয় তৈরি এবং কারিগরি শিক্ষায় প্রশিক্ষিত করে কন্যাশ্রীদের চাকরির ব্যবস্থাও পাকা করার প্রতিশ্রুতি দিলেন তিনি।

মঙ্গলবার কন্যাশ্রী দিবস উপলক্ষে নেতাজি ইন্ডোরে এক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। সেখানে রাজ্যের বিভিন্ন স্কুল থেকে ছাত্রীরা এসেছিল। মমতা তাদের সামনেই এই ঘোষণাগুলি করেন। সরকারি তথ্য অনুযায়ী এই মুহূর্তে প্রায় ৫০ লক্ষ ছাত্রী কন্যাশ্রী প্রকল্পের আওতায় রয়েছে। এ ক্ষেত্রে ছাত্রীর পারিবারিক আয় বছরে দেড় লাখ টাকার কম হতে হয়। সেই ঊর্ধ্বসীমাই এ বার তুলে দিলেন মুখ্যমন্ত্রী। এর ফলে আরও ৩ লক্ষ ছাত্রী কন্যাশ্রীর আওতায় আসবে। তবে এর জন্য আরও বাড়তি দুশো কোটি টাকা রাজ্যের খরচ হবে বলে জানানো হয়েছে।

আরও পড়ুন ইমরানকে জানানো মোদীর শুভেচ্ছা ফোনের প্রত্যুত্তর বেজে উঠল দিল্লিতে

কন্যাশ্রী বিশ্ববিদ্যালয় গড়ারও প্রতিশ্রুতি দেন মুখ্যমন্ত্রী। তিনি বলেন, “উচ্চমাধ্যমিক পাশ করার পর মেয়েদের কোনো চিন্তা করতে হবে না। তাদের জন্য কন্যাশ্রী বিশ্ববিদ্যালয় তৈরি করা হবে। শুধু তা-ই নয়, ওই বিশ্ববিদ্যালয়ে মেয়েদের বিভিন্ন বিষয়ে প্রশিক্ষণ দেওয়ার জন্যও কারিগরি দফতরকে নির্দেশ দেন তিনি। মুখ্যমন্ত্রীর দাবি, কন্যাশ্রী প্রকল্প চালু হওয়ার পরে স্কুলছুট ছাত্রীর সংখ্যা প্রায় সাড়ে ১১ শতাংশ কমেছে।

আরও পড়ুন অশান্তি এখন ইতিহাস, ভাঙড়ে কাজ শুরু হয়ে গেল সাবস্টেশনের

নেতাজি ইন্ডোরের মঞ্চ থেকে এ দিন তিনি বলেন, ‘‘এই কন্যাশ্রীর মেয়েরা রাজ্যের গর্ব। দেশের গর্ব। বিশ্বের গর্ব। এরা সব কিছু জয় করতে পারে। এবং আরও জয় করবে।’’ কন্যাশ্রী প্রকল্পের পাশাপাশি রূপশ্রীর কথাও তুলে ধরেন মুখ্যমন্ত্রী, যেখানে টাকার অভাবে কোনো মেয়ের বিয়ে আটকে গেলে ২৫ হাজার টাকা করে আর্থিক সাহায্য করা হয়। মুখ্যমন্ত্রীর এত কিছু ঘোষণার পরে স্বভাবতই খুশি এই অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকা বিভিন্ন স্কুলের ছাত্রীরা।

কন্যাশ্রী প্রকল্প নিয়ে বিস্তারিত জানতে ক্লিক করুন 

https://wbkanyashree.gov.in/kp_4.0/index.php

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন