Farmers
প্রতীকী ছবি

ওয়েবডেস্ক: গত কয়েক বছর ধরেই প্রবীণ কৃষকদের জন্য কৃষি পেনশন দিয়ে আসছে রাজ্য সরকার। তবে গত বছরের তুলনায় এ বার অনেক বেশি সংখ্যক প্রবীণ কৃষককে এই প্রকল্পের অন্তর্ভুক্ত করা হচ্ছে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নির্দেশে। পাশাপাশি পেনশনের আর্থিক পরিমাণও বাড়ানো হয়েছে আড়াইশো টাকা।

গত বছরেও ৬৯,৪০০ জন প্রবীণ কৃষককে পেনশন দেওয়া হয়েছিল এই প্রকল্পের আওতায়। এ বার সেই সংখ্যা বাড়িয়ে করা হয়েছে এক লক্ষ। একই ভাবে মুখ্যমন্ত্রীর ঘোষণা মতোই ৬০ বছরের ঊর্ধ্বে কৃষকদের জন্য পেনশনের পরিমাণ সাড়ে সাতশো টাকা থেকে করা হচ্ছে এক হাজার টাকা।

আগেই কৃষি দফতরের তরফে রাজ্যের পঞ্চায়েত সমিতির কাছে পেনশন পাওয়ার যোগ্য প্রবীণ কৃষকদের নামের তালিকা চেয়ে পাঠানো হয়েছিল। কিন্তু পঞ্চায়েতের বোর্ড গঠনের উপর সুপ্রিম কোর্টের স্থগিতাদেশ থাকাকালীন সেই নির্দেশ পালন করা সম্ভব হয়নি পঞ্চায়েত সমিতিগুলির পক্ষে। গত বুধবার গোটা রাজ্য জুড়েই বোর্ড গঠন প্রক্রিয়া সম্পন্ন হওয়ার পর তালিকা তৈরির কাজ নতুন করে গতি পেয়েছে। পঞ্চায়েত সমিতিগুলিকে কৃষি দফতরের তরফে নির্দেশিকায় জানানো হয়েছে, আগামী ১২ অক্টোবরের মধ্যে পূর্ণাঙ্গ তালিকা জমা করতে হবে। সাধারণত যে সমস্ত ষাটোর্ধ্ব কৃষকের নিজস্ব জমি নেই, অন্যের জমিতে চাষ করেন, তাঁদেরকেই অগ্রাধিকার দেওয়ার কথা বলা হয়েছে।

ইসলামপুরকাণ্ডে সিআইডি তদন্তের নির্দেশ, মৃতদের পরিবার চাইছে সিবিআই

পঞ্চায়েত সমিতিগুলির জমা করা তালিকা হাতে পাওয়ার পরই কৃষি দফতর অর্থ বরাদ্দ করবে। সে ক্ষেত্রে পেনশন প্রাপকদের ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে সরাসরি জমা পড়বে পেনশনের টাকা।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন