NRC
অসমের এনআরসি

ওয়েবডেস্ক: অসমের মতো নাগরিকপঞ্জী(এনসিআর) এবং সিটিজেনশিপ অ্যামেডমেন্ট বিল বা সিএবি ছাড়া পশ্চিমবঙ্গে হিন্দুদের অস্তিত্ব রক্ষা সম্ভব নয় বলে সংবাদ সংস্থাকে এএনআই-কে জানালেন রাষ্ট্রীয় স্বয়ংসেবক সঙ্ঘের পশ্চিমবঙ্গ সম্পাদক জিষ্ণু বসু।

জিষ্ণুবাবু মঙ্গলবার বলেন, এক মাত্র নাগরিকপঞ্জীই পশ্চিমবঙ্গের বাঙালি হিন্দুদের রক্ষা করতে পারে। অন্য দিকে বাংলাদেশে নৃশংসতার শিকার হিন্দুরাও সিএবি মারফত নিজেদের নিরাপদ জায়গায় প্রতিষ্ঠা করতে পারবেন।

তিনি বলেন গত জুলাইয়ে প্রকাশিত চূড়ান্ত খসড়া তালিকায় দেখা গিয়েছে মোট আবেদনকারী ৩.২৯ কোটির মধ্যে নাম তুলতে সক্ষম হয়েছেন ২.৮৯ কোটি। আবেদনকারীদের মধ্যে ৪১ লক্ষের আবেদন বাতিল করা হয়েছে। বাকি ২.৪৮ লক্ষের আবেদন ধরে রাখা হয়েছে।

উল্লেখ্য, গত ২০১৬ সালের জুলাই মাসে লোকসভায় সিএবি পেশ করা হয়। মানবিকতার নিরিখে ভিন দেশে থেকে আগত মানুষকে ওই বিলের আওতায় নাগরিকত্ব দেওয়ার কথা বলা হয়েছিল বলে জানান জিষ্ণুবাবু। যদিও ওই বিল বিরোধিতার মুখে পড়ে অসমে বিজেপি শরিক অসম গণপরিষদই এই বিলের বিরোধিতা করে অবৈধ অনুপ্রবেশের বিরুদ্ধে সরব হয়।


পড়তে পারেন: ভবঘুরেদের স্থায়ী ঠিকানা দিতে চলেছে কাটোয়া পুরসভা

যদি জিষ্ণুবাবু মনে করেন নাগরিকপঞ্জী এবং সিএবি দু’টিই গুরুত্বপূর্ণ। তাঁর মতে, “বাংলাদেশ থেকে মুসলমান সম্প্রদায়ের মানুষকে যদি আমরা অনুমতি দিই, তা হলে বেশ কয়েকটি জেলায় হিন্দুরা সংখ্যালঘুতে পরিণত হবে। একই কারণে নাগরিকপঞ্জী না করা হলে অনুপ্রবেশকারীর সংখ্যা বাড়তেই থাকবে”।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন