কলকাতা: নিম্নচাপ ক্রমে দূরে সরে যাওয়ায় বুধবার রোদের মুখ দেখল কলকাতা। একটানা বৃষ্টির সম্ভাবনা না থাকলেও, বিক্ষিপ্ত ভাবে বৃষ্টি এখন চলবে বলে জানিয়ে দিয়েছে আবহাওয়া দফতর।

গত সপ্তাহের মঙ্গলবার শেষ বার রোদের মুখে দেখেছিল কলকাতা। তারপর মৌসুমী অক্ষরেখা এবং নিম্নচাপের প্রভাবে এক নাগাড়ে বৃষ্টিতে নাজেহাল হয়ে উঠেছিলেন সাধারণ মানুষ। নিম্নচাপ ঝাড়খণ্ডে সরে যাওয়ায় এবং মৌসুমী অক্ষরেখাও সরে যাওয়ার ইঙ্গিত দেওয়ার তাই স্বস্তি ফিরেছে মানুষের মধ্যে।

আবহাওয়া বিশেষজ্ঞদের মতে, জুলাই মাসে বিক্ষিপ্ত ভাবে বৃষ্টি ছাড়া আর বিশেষ কিছু হওয়ার সম্ভাবনা নেই। বেসরকারি আবহাওয়া সংস্থা ওয়েদার আল্টিমার কর্ণধার রবীন্দ্র গোয়েঙ্কা বলেন, “মৌসুমী অক্ষরেখা এ বার উত্তরবঙ্গ এবং উত্তর-পূর্ব ভারতের দিকে সরে যাবে। এর ফলে আগামী অন্তত সাত দিন বিক্ষিপ্ত ভাবে হালকা বৃষ্টি হতে পারে।” রবীন্দ্রবাবুর মতে, এই নিম্নচাপের ছেড়ে যাওয়া জলীয় বাষ্পের প্রভাবে আগামী তিন দিন স্থানীয় ভাবে বজ্রগর্ভ মেঘের সৃষ্টি হয়ে বৃষ্টি হতে পারে কলকাতায়। আগস্টের প্রথম সপ্তাহের আগে একটানা বৃষ্টির আর সম্ভাবনা নেই বলে জানান রবীন্দ্রবাবু।

সেই সঙ্গে রবীন্দ্রবাবু জানিয়েছেন, আগামী কয়েক দিন তাপমাত্রা বাড়বে কলকাতায়। সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ৩৩ থেকে ৩৪ ডিগ্রির কাছাকাছি থাকতে পারে। এর সঙ্গে যোগ হবে অতিরিক্ত জলীয় বাষ্প। এর ফলে সপ্তাহান্তে অস্বস্তিকর গরম পড়ার একটা সম্ভাবনা রয়েছে।

কলকাতার পাশাপাশি বৃষ্টি কমেছে পশ্চিমাঞ্চলের জেলাগুলিতেও। তবে ঝাড়খণ্ডে এখনও বৃষ্টি চলছে। আবহাওয়া দফতরের পূর্বাভাস, আগামী ২৪ ঘণ্টায় ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে ঝাড়খণ্ডে। এর ফলে দক্ষিণবঙ্গের নদীগুলিতে জলের চাপার বাড়বে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।

জুলাই মাসে কলকাতায় সাধারণত বৃষ্টি হওয়ার কথা ৩৯৯ মিলিমিটার। কিন্তু এ বছর এখনও পর্যন্ত সাড়ে পাঁচশো মিলিমিটার ছাড়িয়ে গিয়েছে। ২০০৭-এর জুলাইয়ে সব থেকে বেশি বৃষ্টির রেকর্ড করেছিল কলকাতা। সে বার ৭১৫ মিলিমিটার বৃষ্টি হয়েছিল কলকাতায়। সেই রেকর্ড এ বার ভেঙে যায় কিনা সেটাই দেখার। তবে আগামী পাঁচ দিনের যা পূর্বাভাস সেই রেকর্ড ভেঙে যাবে বলে মনে হয় না।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন