kolkata winter

কলকাতা: শীতের গতিতে এক দিনের জন্য ব্রেক কষতে হাজির হল পশ্চিমী ঝঞ্ঝা। দোসর হিসেবে থাকছে একটি ঘূর্ণাবর্ত। এর প্রভাবে আগামী ২৪ ঘণ্টায় তাপমাত্রা বেশ কিছুটা বাড়বে কলকাতা-সহ সমগ্র দক্ষিণবঙ্গে।

গত পাঁচ বছরে শীতের এ রকম রূপ দেখেনি গোটা পশ্চিমবঙ্গ। জানুয়ারি মাসের ৪ তারিখ নাগাদ সেই যে তাপমাত্রা পতন শুরু হয়েছিল। সেটা এখনও বজায় রয়েছে। গত কুড়ি দিনে কলকাতার সব থেকে বেশি সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল রবিবার। সে দিনও পারদ ছিল স্বাভাবিকের এক ডিগ্রি কম। মঙ্গলবার কলকাতার তাপমাত্রা ছিল ১১.৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস। স্বাভাবিকের থেকে তিন ডিগ্রি সেলসিয়াস কম।

কলকাতার পাশাপাশি শীতের দাপট অব্যাহত পার্শ্ববর্তী জেলাগুলিতে। বোলপুর হোক বা বহরমপুর, বাঁকুড়া হোক বা বর্ধমান, দক্ষিণবঙ্গের অধিকাংশ অঞ্চলেই তাপমাত্রা ছিল ৭ থেকে ৯ ডিগ্রির আশেপাশে। শীতের এই দাপট ২৪ ঘণ্টার জন্য কমতে চলেছে।

মঙ্গলবার দুপুরের অনেকেরই হয়তো মনে হচ্ছে অন্য দিনের থেকে শীত যেন কম। এটা ঠিকই, শীত কমতে শুরু করেছে। তবে সেটা সাময়িক। আবহাওয়া দফতরের পূর্বাভাস বুধবার বেশ কিছুটা বাড়বে তাপমাত্রা। এই তাপমাত্রা বাড়ার পেছনে রয়েছে একটি পশ্চিমী ঝঞ্ঝা এবং একটি ঘূর্ণাবর্ত।

বেসরকারি আবহাওয়া সংস্থা ওয়েদার আল্টিমার কর্ণধার রবীন্দ্র গোয়েঙ্কার মতে, “পশ্চিমী ঝঞ্ঝাটি বেশ শক্তিশালী। এর প্রভাবে উত্তুরে হাওয়ায় বাধা পড়বে, সেই সঙ্গে ঝাড়খণ্ড এবং সন্নিহিত পশ্চিমবঙ্গে একটি ঘূর্ণাবর্ত তৈরি হবে। ওই ঘূর্ণাবর্তটি বঙ্গোপসাগর থেকে জলীয় বাষ্প টানতে শুরু করবে। এর জন্য বুধবার কলকাতার সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ২৭-২৮ ডিগ্রি এবং বৃহস্পতিবারের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ১৬ ডিগ্রিতে উঠে যেতে পারে।”

সেই সঙ্গে আরও একটা জিনিস হবে বুধবার। বসন্তের গন্ধ এনে বুধবার বইবে দখিনা বাতাস। রবীন্দ্রবাবুর মতে, বুধবার কলকাতা এবং দক্ষিণবঙ্গের আবহাওয়া গুমোট এবং কিছুটা অস্বস্তিকর হয়ে উঠতে পারে। তবে এটা একদমই সাময়িক। বৃহস্পতিবার থেকেই ফের বইবে উত্তুরে হাওয়া, নামতে শুরু করবে পারদ।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন