বিশেষ সংবাদদাতা, কলকাতা:এইচআরএমএস। হিউম্যান রিসোর্স ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম। কর্পোরেট দুনিয়ায় অত্যন্ত পরিচিত শব্দ। কর্মচারীদের পরিচালন ব্যবস্থা এই এইচআরএমএস দিয়েই চলে। সকল রাজ্য সরকারি কর্মচারীদের জন্য এবার সেই ব্যবস্থা নিয়ে আসতে চলেছে রাজ্য। সমস্ত সরকারি দফতর সম্পূর্ণ কাগজহীন করার পথে আরও একধাপ এগোচ্ছে নবান্ন।

কর্মসংস্কৃতি ফেরাতে সমস্ত সরকারি দফতরে হাজিরায় পাঞ্চিং ব্যবস্থা চালু হয়েছে এক বছর আগেই। কিন্তু নানা কারণে সব দফতরে সব সময় সেই ব্যবস্থা কার্যকর থাকে না। ফলে অনেক সময় নানা ফাঁক তৈরি হয়। এবার সেই ফাঁকগুলি থাকবে না। থাকবে না ছুটি নিয়ে পরে এসে সই করে দেওয়ার কোনো সুযোগ। ছুটি নিতে হলে কর্মচারীদের মেল করে জানাতে হবে এই এইচআরএমএস-এ। মেলেই তার উত্তর মিলবে। কর্মচারীদের কোনো প্রশ্ন থাকলে, প্রাপ্য সুযোগসুবিধা সম্পর্কে কিছু জানার থাকলে, তা একটি ক্লিকেই জানা যাবে এই ব্যবস্থার মাধ্যমে। এর মধ্যেই কর্মচারীদের যাবতীয় তথ্য থাকবে।

১ জুলাই থেকে সংখ্যালঘু উন্নয়ন দফতর ও অর্থ দফতরে এই ব্যবস্থা চালু হয়ে যাবে বলে দাবি রাজ্যের। পুজোর আগে তা চালু হয়ে যাবে রাজ্য সরকারের সবকটি দফতরেই।

রাজ্য সরকারের দুটি সংস্থা ওয়েবেল ও এটিআই এই এইচআরএমএস তৈরি করেছে। ওয়েবেলের পক্ষ থেকে সংখ্যালঘু উন্নয়ন দফতর ও অর্থ দফতরের কর্মীদের প্রশিক্ষণ দেওয়াও চলছে। এরপর অন্যান্য দফতরের কর্মীদেরও প্রশিক্ষণ দেওয়া শুরু হবে।

এছাড়া ১ জুলাই থেকে সংখ্যালঘু উন্নয়ন দফতরকে সম্পূর্ণ কাগজহীন করে ফেলা হচ্ছে। হাতে করে ফাইল চালাচালি পুরোপুরি বন্ধ হয়ে যাচ্ছে ওই দফতরে। যাবতীয় ফাইল চালাচালি হবে কম্পিউটারের মাধ্যমে, ডিজিট্যাল পদ্ধতিতে।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন