Bridge Collapsed

ওয়েবডেস্ক: সেতু অথবা উড়ালপুল কেন ভেঙে পড়ে?

এমন একটা কঠিন প্রশ্নের উত্তরের সরলীকরণ কোনো মতেই যুক্তিগ্রাহ্য নয়। একটা সেতু ভেঙে পড়ার নেপথ্য থাকতে পারে একাধিক কারণ। তবে ইঞ্জিনিয়ারদের মতানুযায়ী, মূলত ৯টি কারণে কোনো সেতু ভেঙে পড়তে পারে। এগুলির মধ্যে প্রাকৃতিক বিপর্যয়জনিত কারণ আকস্মিক হলেও অন্যান্য কারণগুলি কিন্তু সংঘঠিত হয়ে থাকে দীর্ঘ মেয়াদি ভিত্তিতেই। ফলে এই কারণগুলিকে খুঁজে বের করে আগাম উদ্যোগ নেওয়া হলে সমূহ বিপদের হাত থেকে রক্ষা পাওয়া যেতেই পারে।

একটা সেতু ভেঙে পড়া মানেই বিস্তৃত ক্ষতি। জীবনহানি, মানবসম্পদের হানি বা আর্থিক ক্ষতি হওয়াটাই স্বাভাবিক। পৃথিবীর সর্বত্রই ছড়িয়ে রয়েছে যোগাযোগের মাধ্যম হিসাবে বিকল্পহীন অজস্র সেতু। ফলে সেতু ভেঙে পড়ার ঘটনাও খুব একটা কম নয়। এ বিষয়ে সংশ্লিষ্ট দায়িত্বপ্রাপ্ত সংস্থা বা সরকারের নজরদারিই একমাত্র প্রতিষেধক। এখন সংক্ষেপে দেখে নেওয়া যাক মূল ৯টি কারণ-

১. একাধিক বিষয়ের সংমিশ্রণ


সেতু দিয়ে মাত্রাতিরিক্ত গাড়ি যাতায়ত করতে পারে। বহনক্ষমতার থেকে বেশি ভার সহ্য করতে করতে সেটি দুর্বল হয়ে যায়। আবার নির্মাণের সময় ব্যবহৃত নকশা, কাঁচামাল, হাওয়ার গতিপথ অনুযায়ী তৈরি না করা একাধিক বিষয় এই পর্যায়ের অন্তর্ভুক্ত। আবার সেতুর পাশে খোড়াখুড়ি বা ভারী যন্ত্রপাতি নিয়ে কাজের ফলে তা দুর্বল হয়ে পড়ে।

২. নির্মাণগত বয়সজনিত কারণ


একটা সেতু তৈরি হওয়ার ৪০ বছর অতিক্রান্ত হওয়ার পর তারা কাঠামোয় পরিবর্তন হতে পারে। বর্তমানে নির্মাণে অত্যাধুনিক প্রযুক্তিগত ব্যবহার করায় এই মেয়াদ দীর্ঘায়িত হতে পারে।

৩. বন্যা


বন্যার ফলে সেতুর ক্ষতির পরিমাণ সব থেকে বেশি। এমনটা হতেই পারে যখন বন্যা হল তখন সেতুটা মাথা উঁচু করে দাঁড়িয়ে আছে। কিন্তু বেশ কয়েকদিন/মাস/বছর পরে নড়বড়ে হয়ে যাওয়া সেই সেতু ভেঙে পড়তেই পারে।

৪. অপ্রত্যাশিত কারণ


এই কারণের সঙ্গেও যথারীতি জড়িয়ে রয়েছে সেতুর নির্মাণশেলী। আধুনিক কালে কম্পিউটারের সাহায্যে যতটা নিখুঁত ভাবে গঠন পদ্ধতি চালানো সম্ভব, আগে সেই সুযোগ ছিল না। পুরোটাই হতো মাপক ফিতে এবং অনুমানের উপর।

৫. দুর্ঘটনা


রাস্তায় যেমন ঘটে থাকে তেমনটাই সেতুতেও গাড়ি দুর্ঘটনা অস্বাভাবিক কিছু নয়। সেতুর উপর দুর্ঘটনা সেটিকে আরও বেশি করে ভাঙনপ্রবণ করে তোলে।

৬. নির্মাণে ঢিলেমি


এমন কিছু সেতু গড়ে ওঠে যেগুলির কাজ দিনের পর দিন ধরে চলে। ফলে তৈরি হয়ে পড়ে থাকা অংশের সঙ্গে নতুন করে নির্মিত অংশের সামঞ্জস্য বজায় থাকে না।

৭. আগুন


সেতুর উপর বা পার্শ্ববর্তী স্থানে আগুন লাগলে ভিতরের লোহার কাঠামো ক্ষতিগ্রস্ত হয়ে পড়ে। ফলে পুরো সেতুটিকে ধরে রাখা কাঠামোটি দুর্বল হয়ে পড়লে সেটি ভেঙে পড়তেই পারে।

৮. ভূমিকম্প


ভূমিকম্পের ফলে সেতুর কাঠামো যে ক্ষতিগ্রস্ত হয়, সেটাও যেমন দেখার বিষয়, তেমনই ভূমিকম্পের পর স্তরের নিজের জায়গায় ফিরে আসার প্রবণতা সেতুটিকে সোজা হয়ে দাঁড়িয়ে থাকতে কষ্ট দিতে থাকে।

৯. রক্ষণাবেক্ষণ


বর্তমানে সব থেকে আলোচিত বিষয়। নির্দিষ্ট সময় অন্তর যে কোনো সেতুর রক্ষণাবেক্ষণের প্রয়োজন। যে কাজটি করতে প্রায়শই ভুলে যায় দায়িত্বপ্রাপ্ত সংস্থা। নতুন হোক বা পুরনো- সমস্ত ধরনের সেতুর রক্ষণাবেক্ষণের অভাবেই ভেঙে পড়ার অগুন্তি উদাহরণ রয়েছে।

উত্তর দিন

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন