লখনউ: বছর দুয়েক আগে বাড়িতে গরুর মাংস রাখার গুজবে রাজ্যের দাদরিতে মারমুখী জনতার হাতে খুন হয়েছিলেন মহম্মদ আখলাক। জনতা যে সে দিন ঠিক কাজই করেছিলেন তা পাকেপ্রকারে বুঝিয়ে দিলেন উত্তরপ্রদেশের খাতাউলি বিধানসভার বিজেপি বিধায়ক বিক্রম সাইনি। একটি সভায় সাইনি মন্তব্য করেছেন, গরুকে যে মারবে তার হাত-পা ভেঙে দেওয়া হবে।

২০১৩ সালে মুজাফফরনগরের দাঙ্গায় অন্যতম প্রধান অভিযুক্ত এই বিধায়ক। সভায় সাইনি বলেন, “গরু আমাদের মা, এই কথাটা যারা না মেনে গরুকে মারে, তাদের হাত-পা ভেঙে নেওয়া হবে। এই আমি কথা দিলাম।” সেই সঙ্গে সাইনির মন্তব্য, ‘বন্দে মাতরম’ বা ‘ভারত মাতা কী জয়’ বলতে যারা ইতস্তত বোধ করে তাদেরও একই পরিণতি হবে। উল্লেখ্য, এই সভায় উপস্থিত ছিলেন রাজ্যের মন্ত্রী সুরেশ রানা। তিনিও দাঙ্গায় অন্যতম অভিযুক্ত।

সাইনির বক্তব্যের একটি ভিডিও প্রকাশিত হয়েছে, যেখানে তিনি আরও বলেছেন, “ব্যবস্থা গ্রহণ করার জন্য একটা যুব দলও তৈরি করেছি আমরা।”

উল্লেখ্য, শনিবারই নিজের দলের সমর্থকদের সংযত থাকার বার্তা দিয়েছিলেন উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ। সমর্থকদের বলেছিলেন, নরেন্দ্র মোদীর উন্নয়নের বার্তাকে তুলে ধরাই হবে নতুন সরকারের প্রধান লক্ষ্য। সেই সঙ্গে আশ্বাস দিয়েছিলেন, শুধুমাত্র বেআইনি কসাইখানাই বন্ধ করা হবে। আইন মেনে যে সব কসাইখানা রয়েছে, তাদের বিরুদ্ধে কোনো পদক্ষেপ করা হবে না বলে জানিয়ে দিয়েছেন তিনি। 

মুখ্যমন্ত্রীর এই বার্তা যে এখনও সর্বস্তরে কর্মী সমর্থকদের মধ্যে পৌঁছোয়নি, তা সাইনির বক্তব্য থেকেই বোঝা যায়।

উত্তর দিন

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন