খবর অনলাইন: যুদ্ধবিমানের ককপিটে অভিষেক হল তিন ভারত-কন্যার। তিন ফ্লাইট ক্যাডেট মধ্যপ্রদেশের অভানি চতুর্বেদী, রাজস্থানের মোহনা সিং এবং বিহারের ভাবনা কান্থ প্রতিরক্ষা বাহিনীতে নতুন যুগ নিয়ে এলেন। শনিবার হায়দরাবাদের ডুন্ডিগালে এয়ারফোর্স অ্যাকাডেমিতে অনুষ্ঠিত গ্র্যাজুয়েশন প্যারেডে প্রতিরক্ষামন্ত্রী মনোহর পরিকরের কাছ থেকে যুদ্ধবিমানের পাইলটের স্বীকৃতি পেলেন এই তিন কন্যা।

প্রশিক্ষণের প্রথম ধাপ সসম্মানে উত্তীর্ণ হয়েছেন অভানি-মোহনা-ভাবনা। ১৫০ ঘণ্টা ওড়ার অভিজ্ঞতা হয়েছে। ফ্লাইং অফিসার হওয়ার পর এঁরা ছ’ মাস ধরে উন্নত মানের যুদ্ধবিমান ব্রিটিশ-নির্মিত হক-এ প্রশিক্ষণ নেবেন। তাঁদের হয় বিদর বা কলাইকুন্ডায় পোস্টিং করা হবে।

তিন কন্যার বিমানবাহিনীতে কমিশনড্‌ হওয়া কিন্তু খুব সহজ ব্যাপার ছিল না। গত ২৫ বছর ধরেই মহিলা পাইলট রয়েছেন বিমানবাহিনীতে। কিন্তু হেলিকপ্টার বা পণ্যবাহী বিমান ছাড়া আর কিছু ওড়ানোর সুযোগ ছিল না। শেষ পর্যন্ত বর্তমান বাঙালি বায়ুসেনা প্রধান অরূপ রাহার উদ্যোগে প্রতিরক্ষামন্ত্রী ছক ভাঙার সিদ্ধান্ত নেন। অবশেষে রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখোপাধ্যায় গত ফেব্রুয়ারিতে ঘোষণা করেন, ভবিষ্যতে সামরিক বাহিনীর যুদ্ধসংক্রান্ত সমস্ত কাজের দরজা মহিলাদের জন্যও খুলে দেওয়া হবে।

বায়ুসেনা প্রথা ভাঙলেও, এখনই ইনফ্যান্ট্রি, আর্মার্ড কোর বা আর্টিলারিতে এবং যুদ্ধজাহাজে মহিলাদের নেওয়ার কোনও পরিকল্পনা নেই স্থলবাহিনীর বা নৌবাহিনীর। এমনকি বায়ুসেনা যুদ্ধবিমানে মহিলা নিলেও, এটা করা হচ্ছে পরীক্ষামূলক ভিত্তিতে, আপাতত পাঁচ বছরের ভিত্তিতে।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here