মুম্বই: মাত্র একটা ইনিংসেই ভাগ্য ঘুরে গেল বঙ্গসন্তানের। সোমবার দুপুর পর্যন্ত মনে হচ্ছিল অস্ট্রেলিয়া সফরে ঋদ্ধির জায়গায় ভারতীয় দলে ঢুকবেন পার্থিব। চব্বিশ ঘণ্টায় কাটল না, চর্চায় এখন শুধু ঋদ্ধি আর ঋদ্ধি। সোমবার বিকেলে শেষ করা শতরানকে মঙ্গলবার টেনে নিয়ে গেলেন দ্বিশতরানে। পূজারার সঙ্গে ঋদ্ধির অবিশ্বাস্য পার্টনারশিপে ইরানি জিতল অবশিষ্ট ভারত একাদশ।

উইকেটকিপার হিসেবে ঋদ্ধির যোগ্যতা নিয়ে কখনোই কোনো প্রশ্ন ছিল না, কিন্তু ব্যাটিং যোগ্যতায় তিনি যেন অন্যদের থেকে পিছিয়ে পড়ছিলেন। মঙ্গলবার দুপুরের পর থেকে সেই সন্দেহের ইতি হল। সোমবার যেখানে শেষ করেছিলেন ঋদ্ধি, এ দিন সেখান থেকেই শুরু করেন এবং আরও আগ্রাসী মনোভাব নিয়ে। উলটো দিকে তাঁকে যোগ্য সঙ্গত দিয়ে এই মহাকাব্যিক ইনিংসের সাক্ষী ছিলেন পূজারা।

ইরানি কাপে গুজরাতকে হারানোর জন্য মঙ্গলবার ১১৩ দরকার ছিল অবশিষ্ট ভারতের। এর মধ্যে ঋদ্ধিই করলেন ৮০। প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে এটি তাঁর প্রথম দ্বিশতরান। ২০৩ রানে অপরাজিত থেকে দলকে জয়ে পৌঁছে দেন শিলিগুড়ির পাপালি।

এই ইনিংস ঋদ্ধির কেরিয়ারে মোড় ঘোরানো ইনিংস বলাই যেতে পারে। আসন্ন অস্ট্রেলিয়া সফরেও তাঁর জায়গা প্রায় পাকা। অজিদের বিরুদ্ধে ব্যাট হাতে দুর্দান্ত পার্ফরমেন্স করলেই আর ফিরে তাকাতে হবে না তাঁকে।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here