ওয়েবডেস্ক: মোটামুটি বছর দুয়েকের ব্যবধানে ছবি করে থাকেন জোয়া আখতার! এ বারে ব্যবধানটা আরও এক বছর বেশি! সেই ২০১৫ সালে মুক্তি পেয়েছিল ‘দিল ধড়কনে দো’, তার পরে এখন সদ্য শেষ হল ‘গলি বয়েজ’ ছবির কাজ!

সেই জন্যই কি শুটিং স্পট থেকে নেটদুনিয়ায় ফাঁস হয়ে যাওয়া ছবিরা দেখতে দেখতে ভাইরাল হয়ে গেল?

#aliabhatt today at Goregaon railway station for #gullyboys shoot.

A post shared by Viral Bhayani (@viralbhayani) on

জোয়ার ‘গলি বয়েজ’ নিয়ে আগ্রহের কারণ আসলে তিন জায়গায়। প্রথমত, আলিয়া ভাট, দ্বিতীয়ত. রণবীর সিং আর তৃতীয়ত ছবির চিত্রনাট্য। আলিয়া আর রণবীরকে এর আগে একটি পর্যটন সংস্থার বিজ্ঞাপনে দেখা গেলেও কোনো ছবিতে দেখা যায়নি। সে দিক থেকে তাঁদের রসায়ন একটা পূর্ণ দৈর্ঘের ছবিতে দেখার জন্য অধীর আগ্রহে অপেক্ষা করে রয়েছেন সবাই!

এ ছাড়া ছবির চিত্রনাট্যের ব্যাপারটা তো রয়েছেই! জোয়ার কোনো ছবির চিত্রনাট্যই গতানুগতিক হয় না। বলাই যায়, নায়িকা এবং নায়কের স্টারডমের চেয়েও জোয়ার ছবিতে বেশি গুরুত্ব থাকে চিত্রনাট্যের কাহিনির। ‘গলি বয়েজ’-এর কাহিনিও খুব অন্য রকম। মুম্বইয়ের একদল স্ট্রিট র‍্যাপারকে নিয়ে তৈরি হচ্ছে এই ছবি। যে দলের প্রধান গায়কের ভূমিকায় রয়েছেন রণবীর সিং।

ফলে, মুম্বইয়ের গোরেগাঁও রেলওয়ে স্টেশনে যখন জোয়া এবং শুটিং দলের অন্য সদস্যদের সঙ্গে হাজির হলেন আলিয়া-রণবীর, স্বাভাবিক ভাবেই ভিড় সামলানো দায় হল! অবশ্য সেটার জন্য তৈরিও হয়ে ছিল টিম ‘গলি বয়েজ’। কেন না, আলিয়া আর রণবীরকে দেখতে যে লোক উপচে পড়বে, সেটা জানা কথা। পাশাপাশি, রবিবারই ছিল শুটিংয়ের শেষ দিন, সবাই তাই ছিলেন তৎপর মেজাজে।

ছবিতে আলিয়া এবং রণবীর- দু’জনকেই দেখা যাচ্ছে খুব সাদামাটা ভাবে। জোয়ার এই ছবি নিম্ন মধ্যবিত্ত পরিবারের ছেলে-মেয়ের গল্প বলবে, ফলে খুব ঝাঁ-চকচকে কস্টিউম থাকার কথাও নয়। তবু দেখুন ছবিগুলো, কেমন সব মনোযোগ নিজেদের দিকেই ধরে রেখেছেন তাঁরা!

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন