ওয়াশিংটন: কথা ছিল ১লা জুন রওনা দেওয়ার, কিন্তু বাধ সাধলো আবহাওয়া। সব ঠিক থাকলে শনিবার আন্তর্জাতিক স্পেস স্টেশনের উদ্দেশে রাওনা দিচ্ছে নিউট্রন স্টার ইন্টেরিয়র কম্পোজিশন এক্সপ্লোরার (এনআইসিইআর) যন্ত্রটি। ৬হাজার পাউন্ডের এই যন্ত্রটিকে স্পেস স্টেশনে পৌঁছে দেবে ফ্যালকন ৯ রকেট। এই যন্ত্রটি নিউট্রন তারার রহস্য সমাধানে সাহায্য করবে নাসাকে।

নিউট্রন তারা কী?

নিউট্রন তারা আকারে খুব ছোট কিন্তু ঘন হয়। এদের আয়তন একটা শহরের মতো। আকারে ছোট হলেও দু’টি সূর্যের সমান ভর এদের। এর মধ্য বস্তুকণা শক্তিশালী চুম্বকীয় অবস্থায় থাকে। প্রতিটি বস্তু সেকেন্ডে ১০০বার ঘুরতে পারে। কিন্তু প্রশ্ন হল, এই তারার উজ্জ্বলতা কোথা থেকে আসে? নিউট্রন তারা থেকে আগত এক্সে আলোর বিশ্লেষণ করে তা জানা যেত। কিন্তু, পৃথিবীর বায়ুমণ্ডল ভেদ করে তা প্রবেশ করতে পারে না। এনআইসিইআর নিউট্রন তারার এই গোপন রহস্যকেই খুঁজে বার করতে যাবে। রেকর্ড করবে এই তারা থেকে আসা ফোটনের এনার্জি এবং তার পৌছানোর সময়। বস্তু এবং শক্তি সংক্রান্ত কয়েক দশকের বহু পুরোনো প্রশ্নে উত্তর দেবে এনআইসিইআর –এর সংগ্রহ করা তথ্য।

যন্ত্রটি তৈরির মুহূর্ত

ছবি: www.nasa.gov

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন