ব্যক্তি চৌহদ্দি ছাড়িয়ে যেখানে বিপন্ন গোটা দেশ!

0
এটাও ভারতবর্ষ! সরকারি আইনের বিরুদ্ধে প্রতিবাদে শামিল লাখো মানুষ। প্রতীকী ছবি

ওয়েবডেস্ক: সেই এক বাঁধাধরা কথা, মতপ্রকাশের গণতান্ত্রিক অধিকার। কিন্তু শাসক-বিরোধী উভয়মুখেই ভারতীয় সংবিধানের এই গুরুত্বপূর্ণ বৈশিষ্ট্য সমুজ্জ্বল থাকলেও বাস্তবে তা কতটা প্রাসঙ্গিক? বরাবর প্রশ্নচিহ্নের মুখে দাঁড়ানো এই বৈশিষ্ট্য এখন যেন খুব বেশি করে নাড়া দিচ্ছে ভারতবাসীকে। সমাজের বিষফোঁড়ার মতো অহিসহিষ্ণুতা প্রকট সর্বস্তরেই। বৈচিত্রের মধ্যে ঐক্যকে জিইয়ে রাখা ভারতবর্ষের মূল ভাবনার ঘরে হানা দিচ্ছে এই অসহিষ্ণুতা।

নোবেলজয়ী অর্থনীতিবিদ অমর্ত্য সেনকে একটি সভায় এ প্রসঙ্গেই বলতে শোনা গিয়েছিল, “বর্তমান ভারতের সমস্যাই হল, অসহিষ্ণুতার বিষয়ে এ দেশ বড্ড বেশি সহিষ্ণু। অর্থাৎ, উদাসীন এক ভারতের চেহারা তুলে … উদাসীন থাকার অর্থ, অসহিষ্ণু পরিবেশের সঙ্গে সমঝোতা করা”।

অর্থাৎ, বিরুদ্ধমতে আগল দিতে যখন প্রস্তুত শাসকশ্রেণি, তখন সাধারণের পক্ষে সমঝোতার পথ ধরা ছাড়া গত্যন্তরই বা কী? সমঝোতার আগের স্তরেই উদাসীনতা। যা ঘটছে ঘটুক, নিজেকে না জড়ালেও চলে! এমন মানসিকতাই ধীরে ধীরে এগিয়ে নিয়ে যেতে পারে খাদের কিনারে। যা বিপন্ন করতে তুলতে পারে নিজের চৌহদ্দিকে। তারও সীমানা ছাড়িয়ে গোটা দেশকে।

খানিকটা তেমন সব কথার জোরালো এবং যুক্তিনিষ্ঠ অনুরণনই শোনা গিয়েছে, অশোকেন্দু সেনগুপ্ত সম্পাদিত বিপন্ন ভারত গদ্য সংকলনে। এই সংকলনটি প্রকাশ করেছে রূপালি পাবলিকেশনস।

তবে শুধু মাত্র অসিহষ্ণুতার বর্তমান এর উৎস এবং রাজনীতি থেকে সমাজ জীবনে এর প্রভাব-সমূহ নিয়ে বিশদ তথ্য, বাস্তব অভিজ্ঞতা এবং বিশ্লেষণ বাঁধা পড়েছে এক মলাটে। সঙ্গে রয়েছে, অসহিষ্ণুতার ভয়ঙ্কর পরিনাম, যা ভবিষ্যতকে গিলে ফেলতে উদ্যত, সে সব নিয়েও মনোজ্ঞ বিশ্লেষণ।

সংকলনটিতে জায়গা করে নিয়েছে সব মিলিয়ে নবীন-প্রবীণ দুই প্রজন্মের এক ডজন লেখনী। সমস্ত সংকলনটিকে দুই ভাগে ভাগ করে পাঠককের কাছে উপস্থাপনাকে অনেকটাই সরলীকরণ করেছেন সম্পাদক।

প্রথমত, বিপন্ন ভারতের রাজনৈতিক প্রেক্ষাপট। যেখানে রয়েছে অমর্ত্য সেন, সন্তোষ রাণা, অনির্বাণ চট্টোপাধ্যায়, নন্দিনী সুন্দর, মনীষা বন্দ্যোপাধ্যায়, কবিতা রায়চৌধুরী এবং কুমার রাণার প্রবন্ধ। দ্বিতীয়ত, অস্পৃশ্যতা আর অসহিষ্ণুতা কী ভাবে সমাজকে ঝাঁঝরা করে দিচ্ছে অথবা কোথা থেকে এর বিস্তৃতি, সে সবের সময়নির্ভর বিশ্লেষণ করেছেন অনিতা অগ্নিহোত্রী, অভিজিৎ চৌধুরী, আনসারুদ্দিন, সঞ্চারী মুখোপাধ্যায় এবং উর্বা চৌধুরী।

বিপন্ন ভারত/সম্পাদনা: অশোকেন্দু সেনগুপ্ত/ রূপালি পাবলিকেশনস/দাম: ১৭০ টাকা

বইমেলায় রূপালির স্টল ২৪৯

বইয়ের জন্য ফোন করুন : ৯৪৩২০৬২৯২৮

এই প্রকাশকের অন্যান্য বই

সংকট এবং বামপন্থা , লেখক প্রভাত পট্টনায়ক। সাম্প্রদায়িকতা ও বর্তমান ভারত, গৌতম রায়। সাম্প্রদায়িকতা তর্ক বিতর্ক, সুমন কল্যাণ মৌলিক। জটায়ুকে যেমন দেখেছি, অশোক বক্সী। লোৎসে শীর্ষ আরোহীর চোখে, দীপঙ্কর ঘোষ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.