পুজোতে এলিগেন্ট লুক পাওয়ার ঘরোয়া টোটকা

0
আত্রেয়ী রায়

প্যান্ডেল ঘুরে ঠাকুর দেখা, খাওয়া দাওয়া, বন্ধুদের সঙ্গে জমিয়ে আড্ডা,এক কথায় দারুণ ব্যস্ততা, এটাই দুর্গাপুজোর ছবি। পুজোর আগে কাজের চাপে,কেনাকাটার দৌড়ঝাঁপে অনেক সময়ই ত্বকের যত্ন নেওয়া হয়ে ওঠে না।  তাছাড়া, অপর্যাপ্ত জল পান ও অতিরিক্ত ভাজাপোড়া খাওয়ার কারণেও ত্বকে নানা সমস্যা দেখা দেয়। তাই পুজোর কিছুদিন আগে থেকেই ত্বকের যত্ন নেওয়া উচিত। আর সময় নেই বলে চিন্তা করবেন না, পুজোর দিন গুলিতে বিউটি কোশেন্ট বাড়িয়ে নিজেকে আকর্ষণীয় করে তোলার জন্য রইল কিছু ঘরোয়া দাওয়াই।

এবার পুজো হচ্ছে সেপ্টেম্বরে, ফলে গরমের সঙ্গে সঙ্গে বৃষ্টিবাদলের বিষয়টিও থাকবে। তাই আবহাওয়ার সঙ্গে তাল মিলিয়ে পোশাক, গয়না, হেয়ারস্টাইল সব কিছুই হতে হবে মানানসই।

পোশাক: পোশাকের ওপর অনেকটাই নির্ভর করে পুজোর সাজ। সকালের সাজ পরিপাটি ও ছিমছাম হলেই ভালো। গরমে স্বাচ্ছন্দ্য পেতে দিনের বেলায় সুতি, তাঁত, লিলেন বা কোটা কাপড়ের পোশাক নির্বাচন করুন। খুব বেশি গাঢ় রঙের পোশাক না হলেই ভালো হবে। রাতে অবশ্য জমকালো পোশাক পরতে পারেন। তবে সে ক্ষেত্রেও আরামের বিষয়টি মাথায় রাখুন।

মেকআপ: শুরুতেই মাইল্ড ক্লিনজার দিয়ে মুখ ও গলা পরিষ্কার করে ময়েশ্চারাইজার লাগান। মুখে দাগ থাকলে  কনসিলার ব্যবহার করুন। এতে চোখের নীচের কালির দাগ ঢেকে যাবে। এরপর ফাউন্ডেশন লাগান। মেকআপের পর সামান্য কমপ্যাক্ট পাফ করুন। তবে যাই করুন না কেন, খেয়াল রাখবেন ন্যাচারাল লুকটা যেন থাকে। এবার একটি ব্রাশ দিয়ে গালের ওপরে হালকা ব্রনজার ডাস্ট করে নিন। ঘাড়ে ও গলাতে লাগিয়ে নিন।

লিপ স্টোরি: লিপস্টিক হতে হবে ঠোঁটের রঙের তুলনায় এক শেড গাঢ়। এ জন্য ম্যাট লিপস্টিক বেছে নিতে পারেন। সকাল বা দুপুরের দিকে লিপগ্লস ব্যবহার করবেন না বরং কোরাল, হট পিঙ্ক, রেড, অরেঞ্জ, পার্পলের মতো উজ্জ্বল শেডের লিপস্টিক বেছে নিন। ডিপ স্মোকি আইজ পছন্দ করলে ঠোঁটে ন্যাচারাল শেডের লিপকালার ব্যবহার করুন। বেশিক্ষণ কভারের জন্য লিপবাম লাগিয়ে তার ওপর ম্যাট লিপস্টিক লাগাতে পারেন। সব স্কিন টোনের সঙ্গে এই ন্যুড লুক ভালো দেখায়।

আই মেকআপ: যেহেতু আবহাওয়া গরম তাই চোখে ভারী মেকআপ না করাই ভালো। বরং এ সময় হালকা নীল, আকাশি, পিঙ্ক, ব্রোঞ্জ, ব্রাউন, ধূসর এসব রঙ আইশ্যাডোতে ভালো লাগবে। দুটো রঙ আইশ্যাডোতে ভালো দেখায়। তবে চোখ আকর্ষণীয় করতে হলে শ্যাডোর ব্লেন্ডিং ভালো করে করতে হবে। নীচের চোখে কাজল টেনে দিন। চোখের পাতায় লাগান মাশকারা। দিনের বেলা শুধু কাজল টেনে শেষ করতে পারেন চোখের মেকআপ।

হেয়ার স্টাইল: চুলের কথা ভুললে  চলবে না, একটি দারুণ হেয়ার স্টাইল আপনাকে সবার মধ্যে আলাদা করে তুলতে পারে। চুল বেঁধে রাখাটাই এবারের ট্রেন্ড। এ ছাড়া হেয়ার কালার, রিবন্ডিং, পামিং তো থাকছেই।

আরও পড়ুন : পুজোর গয়নার পসরায় না ভেসে গিয়ে ব্যাগে ভরে নিন আফগানি দুল 

ঠোঁটে লিপস্টিক, গালে ব্লাশ অন, চোখে আইলাইনার এক কথায় উৎসবের সাজে বৈচিত্র্য থাকা চাই-ই চাই। দিনের সাজে আইশ্যাডো ও লিপস্টিক হাইলাইট করতে পারেন। সারা দিনের জন্য বেরিয়ে পড়লে ব্যাগেই প্রয়োজনীয় কিছু প্রসাধনী রাখুন। দুপুরের পর আইশ্যাডো ও লিপস্টিক নতুন করে লাগাবেন। রাতের সাজ হবে একটু ভারী। চোখের সাজে পছন্দমতো হালকা উজ্জ্বল আইশ্যাডো আর ঠোঁটে লিপস্টিক লাগিয়ে নিন। তবে মনে রাখবেন, ভারী মেকআপ নয়, হালকা মেকআপই আপনাকে এনে দেবে আধুনিক এলিগেন্ট লুক।

------------------------------------------------
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.