Connect with us

বাঁকুড়া

সোনামুখীর দে বাড়ির ১১৫ বছরের সরস্বতীপুজো

সোনামুখীতে এই পুজো শুরু করেন স্বর্গীয় অধরচন্দ্র দে মহাশয় ১৯০৬ সালে।

Published

on

এক চালায় সরস্বতী, লক্ষ্মী, কার্তিক ও গণেশ।

শুভদীপ রায় চৌধুরী

সামনেই সরস্বতীপুজো। প্রতিটি পুজোমণ্ডপ থেকে শুরু করে ঘরে ঘরে চলছে পুজোর চূড়ান্ত প্রস্তুতি। এ বার যে পুজোর কথা বলছি, তা হল বাঁকুড়া জেলার সোনামুখী শহরের ১১৫ বছরের প্রাচীন সরস্বতীপুজো।

Loading videos...

এই পুজোর বিশেষত্ব হল, এখানে শুধুমাত্র দেবী সরস্বতীই থাকেন না, সঙ্গে থাকেন তাঁর তিন ভাই-বোন অর্থাৎ লক্ষ্মী, কার্তিক এবং গণেশ। সোনামুখীতে এই পুজো শুরু করেন স্বর্গীয় অধরচন্দ্র দে মহাশয় ১৯০৬ সালে, যা আজও নিষ্ঠার সঙ্গে পালন করে আসছেন দে বাড়ির সদস্যরা।

অধরচন্দ্রকে সোনামুখীর জমিদারি প্রদান করেন বর্ধমানের রাজা। অধরচন্দ্রবাবু নারীশিক্ষার প্রতি নিজের সদর্থক চিন্তাধারার প্রতিফলন ঘটাতে একটি মন্দির প্রতিষ্ঠা করেন। বর্তমানে সেই মন্দিরটির নাম সরস্বতীমন্দির।

অধরচন্দ্র দে।

কথা হচ্ছিল এই বাড়ির সদস্যা নীলয়া দে মহাশয়ার সঙ্গে। তিনি জানালেন, স্বর্গীয় অধরচন্দ্র দে মকরসংক্রান্তির দিনে এক স্বপ্নাদেশ পেয়েছিলেন। তার সূত্র ধরেই তিনি এই মন্দির তৈরি করেন ও দেবী সরস্বতীর সঙ্গে তাঁর আরও তিন ভাই-বোনেরও পুজোর ব্যবস্থা করেন।

কথায় কথায় জানা যায়, অধরচন্দ্রের আট সন্তান ছিল। তিনি চেয়েছিলেন এই আট সন্তানের মধ্যে যেন ভ্রাতৃত্ববোধ অটুট থাকে। তাই একচালায় বাগদেবীর সঙ্গে লক্ষ্মী, কার্তিক এবং গণেশের পুজোর প্রচলন করেন। সোনামুখীর এই দে বাড়িতে এখনও সেই প্রাচীন নিয়ম মেনেই পুজো হয়ে আসছে।

সরস্বতী মন্দিরের চুড়ো।

প্রতি বছর মকরসংক্রান্তির পরে এই বাড়ির উঠোনে অনুষ্ঠিত হয় ‘এখেন লক্ষ্মীপুজো’। এই পুজোর পর ধানের জমি থেকে মাটি ও খড় দিয়ে প্রতিমা নির্মাণ শুরু হয়। একচালার সাবেকি প্রতিমায় চার ভাই-বোন যেন এক সূত্রে বাঁধা থাকেন, এমনটাই চেয়েছিলেন অধরবাবু। পারিবারিক গহনা দিয়ে সাজানো হয় প্রতিমা। ডাকের সাজের উজ্জ্বল প্রতিমা সোনামুখীর ঐতিহ্যকে আরও বাড়িয়ে তোলে।

শুক্লপঞ্চমীতিথিতে সরস্বতীপুজোর সঙ্গে সঙ্গে দে পরিবারে রান্নাপুজোও অনুষ্ঠিত হয়। পরিবারের সদস্যরা পুজোর অঞ্চলি দেওয়ার পর মাছ খান, এটাই রীতি দে বাড়িতে। তবে দেবীকে নানান রকমের ফল, লুচি, ভাজা, মিষ্টি ইত্যাদি নিবেদন করা হয়। রান্নাপুজোয় বিভিন্ন রকমের পদ রাঁধা হয়, যেমন সাদাভাত, শুক্তোনি, মাছের মাথা দিয়ে বাঁধাকপির তরকারি, মাছের মাথা দিয়ে মুগের ডাল, মাছের আরও নানা পদ ইত্যাদি। পরের দিন পরিবারে রান্না হয় না। আগের দিনের তৈরি রান্নাই পরের দিন খান পরিবারের সদস্যরা।

দর্পণে দর্শন।

অধরচন্দ্র দের সরস্বতী মন্দিরের পাশাপাশি পরিবারের কুলদেবতা শ্রীদামোদরজিউ-এর আলাদা মন্দির রয়েছে। তবে পুজোর দিন তিনি এই সরস্বতী মন্দিরেই অবস্থান করেন।

এ বছর করোনার কারণে বিভিন্ন বিধিনিষেধ মেনেই পুজো হচ্ছে দে বাড়িতে। প্রতি বছর পুজোর ভোগ ছাড়াও পরিবারের সদস্যরা এক সঙ্গে খিচুড়িভোগ খান। সেই প্রথাটি এ বছর বন্ধ রাখা হয়েছে। বিসর্জনের শোভাযাত্রাও হবে না এ বছর, অর্থাৎ প্রশাসনের সমস্ত নিয়ম মেনেই পুজো হবে সোনামুখীর দে বাড়িতে।

আরও পড়ুন: বাগুইআটির ‘অভিন্দ্রা’ সরস্বতীপুজোয় তুলে ধরে এক অনন্য কাহিনি, এ বছর ‘ধারা’

বাঁকুড়া

বাঁকুড়ার আকুইয়ে ‘গান্ধীবুড়ি’ ননীবালা গুহর ৩২তম তিরোধান দিবস পালিত

তৎকালীন সময় এলাকায় নারীশিক্ষা বিস্তারে অগ্রণী ভূমিকা পালন করেন তিনি।

Published

on

ইন্দ্রাণী সেন বোস: বাঁকুড়া

বাঁকুড়ার ইন্দাসের আকুই গ্রামের ‘গান্ধীবুড়ি’ ননীবালা গুহর ৩২তম তিরোধান দিবস পালিত হল রবিবার। এ দিনের অনুষ্ঠানের আয়োজন করেন ননীবালা গুহর প্রবীণ ও নবীন অনুরাগী ও গুণমুদ্ধজনরা।

Loading videos...

উল্লেখ্য, ননীবালা গুহ ছিলেন বাঁকুড়া জেলার বিশিষ্ট স্বাধীনতা সংগ্রামী ও সমাজসেবক। তৎকালীন সময়ে এলাকায় নারীশিক্ষা বিস্তারে অগ্রণী ভূমিকা পালন করেন তিনি। ফলস্বরূপ ওঁরই জীবদ্দশায় আকুই গ্রাম পায় ওঁর ছোটো ও বড়ো মেয়েকে অর্থাৎ আকুই ননীবালা প্রাথমিক ও মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের যাত্রা শুরু হয়। ননীবালা দু’টি স্কুলকে এই নামেই সম্বোধন করতেন। জীবনের সমস্ত সঞ্চয় তিনি বিদ্যালয়কে দান করে যান।

দেশের স্বাধীনতা সংগ্রামের বিভিন্ন আন্দোলনে সক্রিয় ভাবে যোগ দিয়ে বার বার কারাবরণ করেছিলেন ননীবালা। স্বাধীনতার পরে ভারত সরকারের তরফ থেকে তাঁকে তাম্রপত্র দিয়ে সম্মানিত করা হয়।

আকুই স্কুলমোড়ে ননীবালা গুহর মর্মর মুর্তিতে মাল্যদানের মাধ্যমে এ দিনের অনুষ্ঠানের সূচনা হয়। ননীবালা গুহর স্মৃতিরক্ষার্থে ও স্বাধীনতা আন্দোলনে ওঁর সক্রিয় ভূমিকার কথা বর্তমান প্রজন্মের কাছে তুলে ধরতে একটি স্থায়ী স্মৃতিরক্ষা কমিটি গঠন করার প্রস্তাব দেওয়া হয় আয়োজকদের পক্ষ থেকে।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন ননীবালা গুহর স্নেহধন্য পঙ্কজ কুমার মাজিলা, দিলীপ দাঁ, দুর্গাদাস চট্টোপাধ্যায়, প্রলয় রক্ষিত, ডা. নীহারেন্দু দত্ত, রাজেশ গুহ প্রমুখ।

আরও পড়ুন: চল্লিশের দশকে বাংলার এক গণ্ডগ্রামে নারী শিক্ষার আলো দেখিয়েছিলেন তিনি, নারী দিবসে স্মরণ করি সেই বীরাঙ্গনাকে

Continue Reading

বাঁকুড়া

৬ দিনের মাথায় ভোট, বাঁকুড়ায় ভোট প্রচারে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়

পাঁচটি জেলার ৩০টি বিধানসভা কেন্দ্রে ভোটগ্রহণ আর ক’দিন বাদেই। দেখে নিন বিস্তারিত…

Published

on

খবর অনলাইন ডেস্ক: রাজ্যের প্রথম দফার ভোটগ্রহণ আর মাত্র ছ’দিনের মাথায়। সোমবার বাঁকুড়ায় জনসভা করবেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Banerjee)। একই জেলায় জনসভা করবেন এক সময়ে মমতা মন্ত্রিসভার গুরুত্বপূর্ণ সদস্য রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায় (Rajib Banerjee)।

তিনটি জনসভা মমতার

হাতে সময় কম। দিনে তিনটি করে জনসভা করছেন মমতা। এ দিনও বাঁকুড়ায় তিনটি জনসভায় দেখা যাবে তাঁকে। কোতুলপুর, ইন্দাস ও বড়জোড়ার তিনটি জনসভায় বক্তৃতা করবেন তিনি।

Loading videos...

গত ২০১৯ লোকসভা ভোটে বাঁকুড়ায় ভালো ফল করতে পারেনি রাজ্যের শাসক দল। গোটা জঙ্গলমহল জুড়েই হতাশ হতে হয়েছিল তৃণমূল। এ বারের ভোটে এটাই বড়ো চ্যালেঞ্জ।

ওন্দায় জনসভা রাজীবের

এখন বিরোধী শিবিরে রাজ্যের প্রাক্তন মন্ত্রী রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়। একুশের বিধানসভা ভোটের আগে তৃণমূলনেত্রীর সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন করে নিজের কেন্দ্র থেকেই পদ্মপ্রতীকে প্রার্থী হয়েছেন। তবে এ দিন ওন্দার বিজেপি প্রার্থীর সমর্থনে জনসভা করবেন রাজীব।

প্রথম দফার ভোট

রাজ্যের আট দফার ভোটের প্রথম দফা আগামী ২৭ মার্চ। পাঁচটি জেলার ৩০টি বিধানসভা কেন্দ্রে ওই দিন ভোটগ্রহণ। জেলাগুলির মধ্যে রয়েছে পুরুলিয়া, পশ্চিম মেদিনীপুর অংশ-১, বাঁকুড়া অংশ-১, পূর্ব মেদিনীপুর অংশ-১ এবং ঝাড়গ্রাম।

কেন্দ্রগুলি হল পটাশপুর, কাঁথি উত্তর, ভগবানপুর, খেজুরি, কাঁথি দক্ষিণ, রামনগর, এগরা, দাঁতন, নয়াগ্রাম, গোপীবল্লভপুর, কেশিয়ারি, খড়গপুর, গড়বেতা, শালবনি, মেদিনীপুর, বিনপুর, বান্দোয়ান, বলরামপুর, বাঘমুণ্ডি, জয়পুর, পুরুলিয়া, মানবাজার, কাশীপুর, পারা, রঘুনাথপুর, শালতোড়া, ছাতনা, রানিবাঁধ, রায়পুর।

আরও পড়তে পারেন: Bengal Polls 2021: ত্রিমুখী লড়াইয়ে জমজমাট শান্তিপুর!

Continue Reading

বাঁকুড়া

Bengal Polls 2021: প্রার্থী বাছাই নিয়ে বিক্ষোভ বিজেপিতে, খোঁচা অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের

“যারা দলের মধ্যে শান্তি বজায় রাখতে পারে না, তারা না কি বাংলায় শান্তি প্রতিষ্ঠা করবে”, বললেন অভিষেক।

Published

on

খবর অনলাইন ডেস্ক: বুধবার বাঁকুড়ার তৃণমূল প্রার্থীকে নিয়ে শালতোড়ায় রোড শো করলেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় (Abhishek Banerjee)। রোড শো শেষে পরে জনসভা করেন তৃণমূল সাংসদ। সম্প্রতি প্রার্থী বাছাই নিয়ে বিজেপির বিক্ষোভ নিয়ে তিনি বলেন, “যারা দলের মধ্যে শান্তি বজায় রাখতে পারে না, তারা না কি বাংলায় শান্তি প্রতিষ্ঠা করবে”!

তিনি বলেন, “বাংলাকে জেতাতে, বহিরাগতদের হারাতে ঐক্যবদ্ধ হোন। ২০১৯ সালে এখানে বিজেপির সাংসদ নির্বাচিত হয়েছিলেন। আর আজ কী দেখছেন, ৪০০ টাকার গ্যাসের দাম দ্বিগুণ হয়েছে। যত জয় শ্রীরাম বলেছে, তত বেড়েছে পেট্রোল-ডিজেলের দাম। আমি বলেছিলাম, জয় শ্রীরাম নয়, জয় সিয়ারাম বলিয়ে ছাড়ব। এখন শুধু বিজেপি নেতারা নন, প্রধানমন্ত্রীও জয় সিয়ারাম বলছেন”।

Loading videos...

পশ্চিমবঙ্গের ক্ষমতায় এসে সোনার বাংলা গড়ার ডাক দিয়েছে বিজেপি। অভিষেক বলেন, “বলছে সোনার বাংলা গড়বে। জিগ্যেস করুন তো, ঝাড়খণ্ড, উত্তরপ্রদেশে, মধ্যপ্রদেশে…সোনার ঝাড়খণ্ড, সোনার উত্তরপ্রদেশ, সোনার মধ্যপ্রদেশ হয়নি কেন? সোনার ভারত হয়নি কেন? এখানকার সংস্কৃতি, ঐতিহ্য না জেনেই সোনার বাংলা গড়ার ডাক দিয়েছে”।

গত রবিবার তৃতীয় ও চতুর্থ দফার প্রার্থী তালিকা প্রকাশ করে বিজেপি। তার পরেই কলকাতা-সহ জেলায় জেলায় বিক্ষোভ দেখান একাংশের বিজেপি কর্মীরা। সেই ঘটনার রেশ টেনে অভিষেক বলেন, “প্রার্থী পছন্দ হয়নি বলে নিজেদের মধ্যে লড়াই শুরু হয়ে গিয়েছে। রাস্তা অবরোধ করছে, জ্বালাচ্ছে, পার্টি অফিস ভাঙচুর করছে। পার্টি অফিসের বাইরে অবস্থান করছে। যারা নিজেদের মধ্যেই শান্তি বজায় রাখতে পারে না, তারা কী করে শান্তি প্রতিষ্ঠা করবে”।

এ বারের ভোটে তৃণমূলের স্লোগান ‘বাংলা নিজের মেয়েকে চায়”। অভিষেক বলেন, “বাইরে থেকে নেতা নিয়ে আসছে বিজেপি। এখানে নেতা, কর্মী-সমর্থক নেই। যাদের জনসভায় মানুষ স্বত:স্ফূর্ত ভাবে অংশগ্রহণ করে না, তারা কী করে সোনার বাংলা গড়বে। বাংলার মানুষ দিচ্ছে রায়, বাংলা নিজের মেয়েকে চায়। বহিরাগতদের বাংলায় ঠাঁই নাই”।

নন্দীগ্রামে গিয়ে পায়ে আঘাত পেয়েছিলেন তৃণমূলনেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Banerjee)। জমায়েতের উদ্দেশে এ দিনের বক্তৃতায় অভিষেক বলেন, “ভাঙা পা দিয়েই লড়াই হবে। জেতা হবে”।

আরও পড়তে পারেন: দু’জায়গার ভোটার তালিকায় শুভেন্দু অধিকারীর নাম নিয়ে জটিলতা

Continue Reading
Advertisement
Advertisement
রাজ্য51 mins ago

Bengal Corona Update: রাজ্যে আরও বাড়ল সংক্রমণ, তবে কলকাতা-সহ ১০ জেলায় সক্রিয় রোগীর সংখ্যায় পতন

দঃ ২৪ পরগনা52 mins ago

কোভিডরোগীদের জন্য অ্যাম্বুলেন্স পরিষেবা চালু করল জয়নগর মজিলপুর পুরসভা

sputnik v vaccine
দেশ1 hour ago

Sputnik V: আগামী সপ্তাহেই ভারতের বাজারে তৃতীয় কোভিড ভ্যাকসিন, জানাল কেন্দ্র

দেশ2 hours ago

অমিত শাহকে খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না? দিল্লি পুলিশে ‘নিখোঁজ ডায়েরি’

ক্রিকেট3 hours ago

ভারতের বিরুদ্ধে টেস্ট সিরিজে হার কেন? অদ্ভুত যুক্তি দিলেন টিম পেইন

মুর্শিদাবাদ3 hours ago

অনাস্থার আগেই মুর্শিদাবাদের জেলা সভাধিপতির পদ থেকে পদত্যাগ শুভেন্দু-ঘনিষ্ঠর

রাজ্য4 hours ago

কোভিডে আক্রান্ত হয়ে প্রয়াত মরণোত্তর দেহ ও অঙ্গদান আন্দোলনের পথিকৃৎ ব্রজ রায়

Coronavirus Delhi
দেশ4 hours ago

Coronavirus Second Wave: সংক্রমণের হার ১৪ শতাংশে, সংক্রমণ নামল ১০ হাজারে, অভাবী রাজ্যগুলিকে অক্সিজেন দিয়ে সাহায্য করতে চায় দিল্লি

Madhyamik examination west bengal
শিক্ষা ও কেরিয়ার2 days ago

Madhyamik 2021: আপাতত সম্ভব নয় মাধ্যমিক পরীক্ষা, সরকারের সিদ্ধান্তের অপেক্ষায় পর্ষদ

বিজ্ঞান2 days ago

জানেন কি, কোভিড থেকে সুস্থ হওয়ার পর অ্যান্টিবডিগুলি কত দিন পর্যন্ত রক্তে থেকে যায়

দেশ3 days ago

Covid Crisis: সংক্রমণের ধার কমাতে একটি বিশেষ ওষুধে ছাড়পত্র দিল গোয়া, খেতে হবে সবাইকে

বিজ্ঞান2 days ago

রক্তের গ্রুপের উপর কি কোভিড আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা থাকে, গবেষণায় জানাল সিএসআইআর

শরীরস্বাস্থ্য1 day ago

করোনার এই দুঃসহ সময়ে অক্সিজেন বিপর্যয়ের সহজ সমাধান দিলেন বিজ্ঞানী ড. বিজন কুমার শীল

প্রযুক্তি2 days ago

পশ্চিমবঙ্গ সরকারের কোভিড অ্যাপ, সহজে জানা যাবে যাবতীয় তথ্য

দেশ2 days ago

Corona Update: দৈনিক সংক্রমণকে ছাপিয়ে গেল সুস্থতা, দু’মাস ধরে টানা বৃদ্ধির পর অবশেষে কমল সক্রিয় রোগী

সম্পর্ক1 day ago

Corona Crisis: এই কঠিন সময়ে কিছু সাধারণ নিয়ম মেনে চললেই সম্পর্ক অটুট থাকবে

ভিডিও

কেনাকাটা

কেনাকাটা2 months ago

বাজেট কম? তা হলে ৮ হাজার টাকার নীচে এই ৫টি স্মার্টফোন দেখতে পারেন

আট হাজার টাকার মধ্যেই দেখে নিতে পারেন দুর্দান্ত কিছু ফিচারের স্মার্টফোনগুলি।

কেনাকাটা3 months ago

সরস্বতী পুজোর পোশাক, ছোটোদের জন্য কালেকশন

খবরঅনলাইন ডেস্ক: সরস্বতী পুজোয় প্রায় সব ছোটো ছেলেমেয়েই হলুদ লাল ও অন্যান্য রঙের শাড়ি, পাঞ্জাবিতে সেজে ওঠে। তাই ছোটোদের জন্য...

কেনাকাটা3 months ago

সরস্বতী পুজো স্পেশাল হলুদ শাড়ির নতুন কালেকশন

খবরঅনলাইন ডেস্ক: সামনেই সরস্বতী পুজো। এই দিন বয়স নির্বিশেষে সবাই হলুদ রঙের পোশাকের প্রতি বেশি আকর্ষিত হয়। তাই হলুদ রঙের...

কেনাকাটা4 months ago

বাসন্তী রঙের পোশাক খুঁজছেন?

খবরঅনলাইন ডেস্ক: সামনেই আসছে সরস্বতী পুজো। সেই দিন হলুদ বা বাসন্তী রঙের পোশাক পরার একটা চল রয়েছে অনেকের মধ্যেই। ওই...

কেনাকাটা4 months ago

ঘরদোরের মেকওভার করতে চান? এগুলি খুবই উপযুক্ত

খবরঅনলাইন ডেস্ক: ঘরদোর সব একঘেয়ে লাগছে? মেকওভার করুন সাধ্যের মধ্যে। নাগালের মধ্যে থাকা কয়েকটি আইটেম রইল অ্যামাজন থেকে। প্রতিবেদন লেখার...

কেনাকাটা4 months ago

সিলিকন প্রোডাক্ট রোজের ব্যবহারের জন্য খুবই সুবিধেজনক

খবরঅনলাইন ডেস্ক: নিত্যপ্রয়োজনীয় বিভিন্ন সামগ্রী এখন সিলিকনের। এগুলির ব্যবহার যেমন সুবিধের তেমনই পরিষ্কার করাও সহজ। তেমনই কয়েকটি কাজের সামগ্রীর খোঁজ...

কেনাকাটা4 months ago

আরও কয়েকটি ব্র্যান্ডেড মেকআপ সামগ্রী ৯৯ টাকার মধ্যে

খবরঅনলাইন ডেস্ক: আজ রইল আরও কয়েকটি ব্র্যান্ডেড মেকআপ সামগ্রী ৯৯ টাকার মধ্যে অ্যামাজন থেকে। প্রতিবেদন লেখার সময় যে দাম ছিল...

কেনাকাটা4 months ago

রান্নাঘরের এই সামগ্রীগুলি কি আপনার সংগ্রহে আছে?

খবরঅনলাইন ডেস্ক: রান্নাঘরে বাসনপত্রের এমন অনেক সুবিধেজনক কালেকশন আছে যেগুলি থাকলে কাজ অনেক সহজ হয়ে যেতে পারে। এমনকি দেখতেও সুন্দর।...

কেনাকাটা4 months ago

৫০% পর্যন্ত ছাড় রয়েছে এই প্যান্ট্রি আইটেমগুলিতে

খবরঅনলাইন ডেস্ক: দৈনন্দিন জীবনের নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসগুলির মধ্যে বেশ কিছু এখন পাওয়া যাচ্ছে প্রায় ৫০% বা তার বেশি ছাড়ে। তার মধ্যে...

কেনাকাটা4 months ago

ঘরের জন্য কয়েকটি খুবই প্রয়োজনীয় সামগ্রী

খবরঅনলাইন ডেস্ক: নিত্যদিনের প্রয়োজনীয় ও সুবিধাজনক বেশ কয়েকটি সামগ্রীর খোঁজ রইল অ্যামাজন থেকে। প্রতিবেদনটি লেখার সময় যে দাম ছিল তা-ই...

নজরে