Connect with us

সরস্বতী পুজো

দেবী সরস্বতী নিয়ে অজানা কিছু তথ্য

বিদ্যাবুদ্ধি জ্ঞানবিজ্ঞানের পাশাপাশি নদীর দেবী হিসাবেও তিনি পূজিতা হতেন।

Published

on

সরস্বতী

খবর অনলাইন ডেস্ক : সরস্বতী শব্দের উৎস দু’টি শব্দ থেকে। ‘সরস’ ও ‘বতী’ অর্থাৎ সরস-এর অর্থ ‘প্রবাহ’। বতী-র অর্থ ‘আছে যার’। সব মিলে প্রবাহ আছে যাঁর। তিনিই হলেন সরস্বতী।

এই দেবীকে নিয়েও নানান মতভেদ আছে। যেমন –

Loading videos...

১। বিদ্যাবুদ্ধি জ্ঞানবিজ্ঞানের পাশাপাশি নদীর দেবী হিসাবেও তিনি পূজিতা হতেন। পৃথিবীর প্রাচীনতম গ্রন্থ ঋকবেদে সরস্বতী নামে এক নদীর উল্লেখ আছে। কথিত আছে, গঙ্গার মতোই পবিত্র নদী সরস্বতী। পরশুরাম ক্ষত্রিয়দের বধ করার পর এই সরস্বতী নদীতে স্নান করেই নিজেকে শুদ্ধ করেছিলেন।

২। পুরানে সরস্বতীর পরিচয় নিয়ে অনেক কাহিনি পাওয়া যায়। কোথাও তাঁকে ব্রহ্মার কন্যা, কোথাও শিবের কন্যা, কোথাও ব্রহ্মার স্ত্রী কোথাও বিষ্ণুর স্ত্রী, কোথাও দেবী চণ্ডীর তৃতীয় রূপ হিসাবে বর্ণনা করা হয়েছে। দেবীর উৎপত্তি নিয়েও অনেক আলাদা তথ্য পাওয়া যায়।  

৩। কথিত আছে ব্রহ্মা ও তাঁর স্ত্রী গায়েত্রীর কন্যা সরস্বতী। একবার ইন্দ্রের রাজসভায় ব্রহ্মা সরস্বতীর রূপে মুগ্ধ হয়ে মেয়েকেই কামনা করে বসেন। সেই পাপে শিব ব্রহ্মাকে শরবিদ্ধ করে হত্যা করেন। ব্রহ্মার প্রাণ ফেরাতে স্ত্রী গায়ত্রী, কন্যা সরস্বতীকে নিয়ে গন্ধমাদন পর্বতে তপস্যা করেন।

৪। দেবী সরস্বতীর কোথাও দুই কোথাও চার হাত। বিভিন্ন মতানুযায়ী, ওই চার হাত মানুষের ‘মন’, ‘সচেতনতা’, ‘বুদ্ধিবৃত্তি’ ও ‘অহম’-এর প্রতীক। আবার কোথাও সরস্বতীর চার হাত চার বেদ ঋক, সাম, যজুঃ ও অথর্ব-র প্রতীক।

৫। বিহার, গুজরাত, পঞ্জাব ইত্যাদি জায়গায় সরস্বতী পুজোর দিনে ঘুড়ি ওড়ানোর প্রথা আছে।

৬। হিন্দু ধর্ম ছাড়াও বৌদ্ধ ও জৈন ধর্মে দেবী সরস্বতীর কথা আছে। তন্ত্র সাধনাতেও সরস্বতীর কথা আছে।

৭। দক্ষিণ ভারতে দেবী সরস্বতীকে নবরাত্রি উৎসবে পুজো করা হয়।   

কলকাতা

ঢাকুরিয়ায় সাবর্ণ চৌধুরীদের ‘কুন্দনিকেতন’-এ করোনার বিধিনিষেধ মেনেই হল সরস্বতীপুজো

Published

on

খবর অনলাইন ডেস্ক: মঙ্গলবার ছিল বাগদেবীর আরাধনা, আপামর বাঙালির ঘরে মা সরস্বতী পুজো পেলেন নিষ্ঠার সঙ্গে। কুন্দনিকেতনের দেবীও বেশ ধুমধামেই পুজো পেলেন। সমস্ত নিয়মবিধি মেনে পুজো হয়েছে পরিবারে। পুজোয় কোনো খামতি ছিল না বলেই জানিয়েছেন পরিবারের সদস্যরা। তবে এ বছর অতিরিক্ত ছিল করোনার বিধিনিষেধ।  

সাবর্ণ রায় চৌধুরীদের নাম করলেই তিলোত্তমা কলকাতার নাম এসেই যায়, কারণ কলকাতার বিবর্তনের ইতিহাসে এই পরিবারের অবদান অনস্বীকার্য। দক্ষিণ কলকাতার বড়িশা-সহ বিভিন্ন অঞ্চলে চৌধুরীদের বসবাস রয়েছে। ঢাকুরিয়াতেও রায় চৌধুরী পরিবারের বেশ কিছু সদস্য বহু বছর ধরে রয়েছেন, তাঁরা সাবর্ণদের চণ্ডীবাড়ির সদস্য।

Loading videos...
একটি প্রাচীন ছবি। ছবিতে রয়েছেন সুরেশচন্দ্র রায় চৌধুরীর পুত্র পৃথ্বীশ কুমার রায় চৌধুরী, , রমাপতি রায় চৌধুরী। এ ছাড়াও রয়েছেন পৃথ্বীশ কুমারের দুই কন্যা এবং পরিবারের অন্যরা।

সুরেশচন্দ্র রায় চৌধুরীর বংশধরেরা আজও ঢাকুরিয়ার ‘কুন্দনিকেতন’-এ ধুমধাম করে সরস্বতীপুজো করে আসছেন। রায় চৌধুরী পরিবারের চণ্ডীবাড়ির সুরেশচন্দ্র রায় চৌধুরীর পৌত্ররা বর্তমানে ‘কুন্দনিকেতন’-এ বসবাস করেন। লক্ষ্মীপতি রায় চৌধুরীর স্ত্রী ইভা রায় চৌধুরী প্রথম শুরু করেন এই পুজো, যা এ বছরও নিষ্ঠার সঙ্গে পালন করলেন তাঁদের উত্তরসূরিরা।  

প্রতি বছরের মতো এ বারও কালীঘাটের পটুয়াপাড়া থেকে বিগ্রহ আনা হয় সরস্বতীপুজোর তিন দিন আগে। পরিবারের শ্রীধরনারায়ণ পুরো পুজোটা জুড়েই উপস্থিত থাকেন। সকালে দেবীকে নানা রকমের ফল, মিষ্টির নৈবেদ্য নিবেদন করা হয় এবং তার পর দুপুরে দেবীকে অন্নভোগ দেওয়া হয়। সন্ধ্যায় আরতির মাধ্যমে শেষ হয় সে দিনের পুজো। সন্ধ্যায় দেবীকে লুচিভোগ নিবেদন করা হয়।

পরের দিন সকালে চিঁড়েভোগ হয়, সঙ্গে থাকে নানা রকমের মিষ্টান্ন। সন্ধ্যায় বিসর্জনের মাধ্যমে শেষ হয় পরিবারের সরস্বতীপুজো। এ বছর করোনা ভাইরাসের কারণে শারীরিক দূরত্ববিধি মেনেই পুজো সম্পন্ন হল।

আরও পড়ুন: বীরভূমে কড়িধ্যা গ্রামের নন্দীবাড়ির সরস্বতী পদ্মাসনা, পাশে জয়া ও বিজয়া

Continue Reading

বাংলাদেশ

জগন্নাথ হল মাঠে পুজো নেই তো কী হয়েছে, বাংলাদেশে পাড়ায় পাড়ায় সরস্বতী পূজো উদযাপন

ছোট্ট মণিদের উৎসাহটা খুব। মুখে মাস্ক পরে মায়ের হাত ধরে মন্দিরে প্রবেশ করছে তারা।

Published

on

রেলওয়ে সর্বজনীন পুজোয় মানুষের ঢল।

ঋদি হক: ঢাকা

এই অঞ্চলের সব চেয়ে বড়ো সরস্বতী পূজার আয়োজন হয়ে থাকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ঐতিহাসিক জগন্নাথ হল মাঠে। দূরদুরান্ত থেকে ছুটে আসেন প্রাক্তনীরা। ঢাকা ও পাশ্ববর্তী এলাকার মানুষ তো আছেনই।

Loading videos...

আর আসবেই না বা কেন বলুন? এখানে যে সরস্বতী মায়ের বন্দনায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ৭০টি বিভাগের পূজো হয়। প্রতিটি মণ্ডপে থাকে আলাদা আলাদা থিমের সরস্বতী প্রতিমা। পাশাপাশি  জগন্নাথ হলের স্থায়ী মণ্ডপ তো আছেই। সেটি নিয়ে মোটহ ৭১টি মণ্ডপ সেজে ওঠে গোটা মাঠের চারিদিকে।

ভোর থেকেই নানা বয়সের ভক্তদের পদচারণায় মুখরিত হয়ে ওঠে জগন্নাথ হল মাঠ। মাঠের পশ্চিম-উত্তর কোনা জুড়ে নানা দোকানপাট। মনে হয় যেন প্রায় মেলাই বসে গেল। তা ছাড়া গত বছর রেকর্ড গড়ে জগন্নাথ হল পুকুরের মধ্যিখানে চারুকলা শিক্ষার্থীরা ৪৫ ফুট উচ্চতার প্রতিমা গড়েছিলেন।

জগন্নাথ হলের এই পূজার আকর্ষণে এখানে ছুটে আসেন হাজারো প্রাক্তনী-সহ বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষ। ভারতের যে সব শিক্ষার্থী ঢাকায় লেখাপড়া করছেন, তাঁরাও ছুটে আসেন জগন্নাথ হল মাঠে। গোটা মাঠ জুড়ে সরস্বতী মায়ের আরাধনায় দৃষ্টি নন্দন আয়োজন। এমন মহাআয়োজন কী করে মিস করা যায়? চোখে না দেখলে বিশ্বাস করা কঠিন। কিন্তু দুর্ভাগ্য এ বছর প্রাণঘাতী অতিমারি সকল আয়োজন কেড়ে নিয়েছে। শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ। ঐতিহ্যকে আটকে দিয়েছে কোভিড-১৯।

রেলওয়ে সর্বজনীন সরস্বতীপূজো

গত বছর সরস্বতী পুজো হয়েছিল ৩০ জানুয়ারি। তার মাসখানেক পেরোতেই বিশ্বমহামারি করোনার থাবায় সব লণ্ডভণ্ড হয়ে যায়। শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের কপাট বন্ধ বছর জুড়ে। বুক চাপড়িয়েও কোনো ফল পেল না নিঃসঙ্গ মানুষ। এ অবস্থায় আগমন সরস্বতী মায়ের।

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকায় এ বারে বাংলাদেশে পাড়ায় পাড়ায় ধুমধামের সঙ্গেই উদযাপিত হল সরস্বতীপূজা। সকালে ঢাকার শাহজাহানপুর রেলওয়ে সর্বজনীন পূজা মন্দিরে পৌঁছে মনে হয়েছিল, ভিড় তেমন একটা হবে না। মায়ের চরণ লাগোয়া স্থানে সাজানো বইয়ের স্তূপ। সরস্বতী মায়ের সামনে ডালায় ডালায় ভোগ সাজানো হচ্ছে। রেলের মহাপরিচালক-সহ ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা আসবেন। তাই মন্দির কমিটির কর্মকর্তাদের বাইরে গেটে অপেক্ষা করতে দেখা গেল। বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে মন্দিরের বিশাল চত্বর কানায় কানায় পূর্ণ।

দেখে অবাক হতেই হয় – করোনাকালে সচেতনতার সঙ্গে সব বয়সি মানুষের এমন ছন্দময় পদচারণা দেখে চোখের পলক না পড়ারই কথা। ছোট্ট মণিদের উৎসাহটা খুব। মুখে মাস্ক পরে মায়ের হাত ধরে মন্দিরে প্রবেশ করছে তারা। আজ যে তাদের হাতেখড়ির দিন। শঙ্খধ্বনির সঙ্গে ধূপকাঠির পবিত্রতার সুবাতাস বয়ে যায় মন্দির প্রাঙ্গণে। সব কিছু মিলিয়ে পঞ্চমী তিথিতে বিদ্যা ও জ্ঞানের দেবী সরস্বতীর পূজা সম্পন্ন করল বাংলাদেশের লাখো ভক্ত। শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকায় পাড়ায় পাড়ায় মন্দিরগুলোয় পূজা ছিল জমজমাট।

আড়ম্বরপূর্ণ পূজামন্দির

রেলওয়ে সর্বজনীন মন্দির কমিটির পরিচালনায় মুনশিয়ানা রয়েছে বলতে হয়। এই পূজামন্দির সব বছরই থাকে আড়ম্বরপূর্ণ। আশপাশের পাড়া-মহল্লার হাজারো ভক্ত ছুটে আসেন এখানে। খোলামেলা জায়গা। ভক্তরা মায়ের মন্দিরে এসে প্রাণ খুলে  দু’দণ্ড শান্তিতে কাটান। অঞ্জলির কিছুটা আগেই ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের সঙ্গে নিয়ে মন্দিরপ্রাঙ্গণে এসে পৌঁছোন বাংলাদেশ রেলওয়ের মহাপরিচালক (ডিজি) ধীরেন্দ্র নাথ মজুমদার (ডি এন মজুমদার)। মন্দির কমিটির তরফে সংবর্ধনা জানানো হয় তাঁদের।


রেলওয়ের মহাপরিচালক ডি এন মজুমদার

মহাপরিচালক ডি এন মজুমদারের অল্প কথায় বিশাল গভীরতা। বললেন, কে কোন ধর্মের সেটা বড়ো কথা নয়। একজন ভালো মানুষ হিসেবে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করা এবং সমাজের মঙ্গল হয় এমন কাজ করতে হবে। তা হলেই একজন পরিপূর্ণ মানুষ হতে পারব আমরা।

মন্দির কমিটির সাধারণ সম্পাদক কালীকান্ত ঘোষের পরিচালনা ও সূচনা বক্তব্যের আগে উত্তরীয় এবং ক্রেস্ট দিয়ে সম্মান জানানো হয় বাংলাদেশ রেলওয়ের নবনিযুক্ত মহাপরিচালক ডি এন মজুমদার ও অপর অতিথিদের।

মন্দির কমিটির সভাপতি সাগরকৃষ্ণ চক্রবর্তী, ঢাকা বিভাগীয় রিজিওনাল ব্যবস্থাপক সাদেকুর রহমান, রেলওয়ের জেনারেল ম্যানেজার (পূর্ব) মো. জাহাঙ্গির হোসেন, গর্ভমেন্ট ইন্সপেক্টর অব বাংলাদেশ রেলওয়ে অসীম কুমার তালুকদার প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

সরস্বতী পূজা উপলক্ষ্যে দেশের হিন্দু ধর্মাবলম্বী সবাইকে আন্তরিক শুভেচ্ছা জানিয়ে বাংলাদেশের রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ এবং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পৃথক বাণী দিয়েছেন। এ দিন সকালে ঢাকার শের-এ-বাংলা নগরে রাজধানী স্কুলপূজা মণ্ডপ পরিদর্শন করেন ভারতের হাইকমিশনার বিক্রম দোরাইস্বামী।

আরও পড়ুন: ‘মুক্তমনা’ অভিজিৎ রায় হত্যায় ৫ আসামির মৃত্যুদণ্ড, ১ জনের যাবজ্জীবন

Continue Reading

বীরভূম

বীরভূমে কড়িধ্যা গ্রামের নন্দীবাড়ির সরস্বতী পদ্মাসনা, পাশে জয়া ও বিজয়া

আনুমানিক অষ্টাদশ শতাব্দীর শেষের দিকে সীতানাথ নন্দী বীরভূমের দুবরাজপুর থেকে চলে আসেন কুড়িধ্যা গ্রামে এবং সেই সময় থেকে তিনি শুরু করেন মা সরস্বতীর পুজো।

Published

on

শুভদীপ রায় চৌধুরী

আগামী কাল সরস্বতীপুজো, বাঙালির ঘরে ঘরে মা সরস্বতীর আরাধনা। আপামর ভক্তসমাজ মেতে উঠবেন বাগদেবীর আরাধনায়। ব্যতিক্রম নয় বীরভূম জেলার কড়িধ্যা গ্রামও।

Loading videos...

কড়িধ্যা গ্রামের একটু পরিচয় দেওয়া যাক। তিনশো বছরের প্রাচীন এই গ্রাম। গ্রামে রয়েছে প্রচুর মন্দির, তার মধ্যে সংখ্যায় সব চেয়ে বেশি শিবমন্দির। এই সব মন্দিরের বেশির ভাগ অবশ্য ভগ্নপ্রায় অবস্থায় রয়েছে। সামান্য কিছু মন্দির রয়েছে অক্ষত।

কিন্তু কেন এত শিবমন্দির কড়িধ্যায়? তিনশো বছর আগে মারাঠা বর্গীরা যখন রাজনগর আক্রমণ করে তখন তাদের যাওয়ার পথ ছিল এই কড়িধ্যা দিয়ে। বর্গীরা যে পথ দিয়ে যেত, সেই পথের আশেপাশের সমস্ত গ্রাম তারা আক্রমণ করত, লুটপাট চালাত। কড়িধ্যার গ্রামবাসীরা শুনেছিলেন, এই মারাঠারা শৈব সম্প্রদায়ভুক্ত। তাই তাদের হাত থেকে নিজেদের জিনিসপত্র রক্ষা করার জন্য তাঁরা বহুসংখ্যক শিবমন্দির নির্মাণ করেন। ওই সব মন্দিরের ভেতরে জিনিসপত্র লুকিয়ে রাখা হয়।

কড়িধ্যায় প্রাচীন কাল থেকেই নানা পুজোপার্বণ অনুষ্ঠিত হয়ে আসছে। তার মধ্যে অন্যতম সরস্বতীপুজো। অতীতে কড়িধ্যা গ্রামে সেন বংশের জমিদারি ছিল। আর সেন পরিবারের পাশাপাশি এই গ্রামে বসবাস করেন নন্দী বংশের সদস্যরাও। আনুমানিক অষ্টাদশ শতাব্দীর শেষের দিকে সীতানাথ নন্দী বীরভূমের দুবরাজপুর থেকে চলে আসেন কড়িধ্যা গ্রামে এবং সেই সময় থেকে তিনি শুরু করেন মা সরস্বতীর পুজো। তখনকার দিনে সীতানাথ নন্দী ছিলেন বীরভূম জেলার অন্যতম উচ্চশিক্ষিত মানুষ। তাঁর কাছে বহু পড়ুয়া আসত শিক্ষা গ্রহণের জন্য। সেই থেকে নন্দীবাড়ির কুলদেবী হন মা সরস্বতী।

নন্দীবাড়ির প্রতিমায় কিছু বিশেষত্ব রয়েছে। এখানে দেবী পদ্মাসনা এবং তাঁর পাশে রয়েছেন জয়া এবং বিজয়া। একচালার সাবেকি প্রতিমা নানা পারিবারিক গহনায় সাজানো হয়।

পুজোর দিন সকালে বাড়ি সংলগ্ন পুকুর থেকে দেবীর ঘটের জল আনা হয় এবং তার পর শুরু হয় পুজো। পুকুরের জল আনার সঙ্গে সঙ্গে লাটাইয়ের সুতো ছাড়তে ছাড়তে মন্দির পর্যন্ত সুতো নিয়ে আসা হয় – এ এক বিশেষ প্রথা নন্দীবাড়ির। দেবীকে নানা রকমের ফল, মিষ্টি ইত্যাদি ভোগ দেওয়া হয়। সরস্বতীপুজোয় ঢাকিরা  বংশপরম্পরায় ঢাক বাজিয়ে আসছেন নন্দীবাড়িতে।

সরস্বতীপুজোর দিন দুপুরে সাধারণত নিরামিষ খাবার খাওয়া হয়, কিন্তু নন্দীবাড়িতে পুজোর পর দুপুরবেলায় ভাত-মাছ খাওয়ার রীতি রয়েছে। পুজোর দিন সন্ধ্যাবেলায় আরতির সময় রুপোর থালায় লুচিভোগ ও মিষ্টি নিবেদন করা হয় এবং ১০৮টি প্রদীপ জ্বালানো হয়।

মুকুরী সপ্তমীর দিন চণ্ডীপাঠ হয় এবং বারি-ঘট বিসর্জনের মাধ্যমে পুজোর সমাপ্তি ঘটে। সেই দিন দই-চিঁড়ে নিবেদন করা হয়, সিঁদুরখেলা হয় এবং বিকালে গোটা গ্রাম প্রদক্ষিণ করে প্রতিমা বিসর্জন হয়।

এ বছর করোনা ভাইরাসের কারণে প্রসাদ বিতরণ বন্ধ থাকবে এবং বিসর্জনে গ্রাম প্রদক্ষিণের যে প্রথা রয়েছে সেটাও বন্ধ থাকছে বলে জানিয়েছেন পরিবারের সদস্য সৌরভ নন্দী। প্রশাসনের সমস্ত রকম নিয়ম মেনেই পুজো হবে। বাইরের দর্শনার্থীদের প্রবেশ এ বছর বন্ধ রাখা হয়েছে।

আরও পড়ুন: বাহন ছাড়াই বীণাপাণির আরাধনা হয় উত্তর কলকাতার বটকৃষ্ণ পালের বাড়িতে

Continue Reading
Advertisement
Advertisement
বাংলাদেশ4 hours ago

Bangladesh Covid Situation: স্বাস্থ্যবিধি না মেনে বেপরোয়া চলাচল সুইসাইডের শামিল, মনে করেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী

বাংলাদেশ5 hours ago

Bangladesh-China relation: বিরোধী জোটে যুক্ত হলে সম্পর্কের অবনতি হবে, বাংলাদেশকে হুঁশিয়ারি চিনের

Coronavirus west bengal
রাজ্য8 hours ago

Bengal Corona Update: রাজ্যের সংক্রমণচিত্রে স্থিতাবস্থা অব্যাহত, সুস্থতার হারে বৃদ্ধি, ৮ জেলায় কমল সক্রিয় রোগী

দেশ9 hours ago

Coronavirus Second Wave: টিকা নেওয়ার পরেও কি কোভিড হতে পারে? ব্যাখ্যা দিল সরকার

রাজ্য11 hours ago

Coronavirus Second Wave: সংসদের বিশেষ অধিবেশন ডাকতে রাষ্ট্রপতিকে চিঠি দিলেন অধীররঞ্জন চৌধুরী

দেশ11 hours ago

CWC Meet: “দলকে নতুন শৃঙ্খলায় সঙ্ঘবদ্ধ করতে হবে”, ওয়ার্কিং কমিটির বৈঠকে বললেন সনিয়া গান্ধী

প্রোনিং
শরীরস্বাস্থ্য11 hours ago

বাড়িতে কোভিড রোগীর হঠাৎ শ্বাসকষ্ট হলে কেন প্রোনিং করাবেন?

রাজ্য11 hours ago

‘গঠনমূলক কাজে সহযোগিতা করব সরকারকে’, বিরোধী দলনেতা হয়েই বললেন শুভেন্দু অধিকারী

ক্রিকেট3 days ago

IPL 2021: বাকি ম্যাচগুলি আয়োজন করতে চেয়ে বিসিসিআইকে আবেদন জানাল শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট বোর্ড

রাজ্য3 days ago

Bengal Corona Update: রাজ্যের ১৫ জেলায় মৃত্যুহার ১ শতাংশের কম

দেশ3 days ago

Corona Update: দৈনিক সংক্রমণ কিছুটা কমলেও মৃতের সংখ্যায় রেকর্ড, তবুও মৃত্যুহার নিম্নমুখী

দেশ2 days ago

Covid Crisis: জলে গুলে খেতে হবে, করোনারোধী ওষুধে ছাড়পত্র দিল ডিজিসিআই

রাজ্য2 days ago

Bengal Corona Update: সংক্রমণের হার ফের ৩০ শতাংশ পার, বাড়ল মৃতের সংখ্যাও, তবে কলকাতা-সহ ৯ জেলায় কমল সক্রিয় রোগী

রাজ্য1 day ago

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের তৃতীয় মন্ত্রীসভায় একাধিক নতুন মুখ

রাজ্য1 day ago

Bengal Corona Update: নতুন করে আক্রান্তের সংখ্যা প্রায় একই, রাজ্যে বাড়ল সুস্থতা

দেশ1 day ago

ভ্যাকসিন এবং কোভিডের চিকিৎসা সরঞ্জামে ট্যাক্স কেন? মমতার চিঠির পর ১৬টা টুইট কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রীর

ভিডিও

কেনাকাটা

কেনাকাটা2 months ago

বাজেট কম? তা হলে ৮ হাজার টাকার নীচে এই ৫টি স্মার্টফোন দেখতে পারেন

আট হাজার টাকার মধ্যেই দেখে নিতে পারেন দুর্দান্ত কিছু ফিচারের স্মার্টফোনগুলি।

কেনাকাটা3 months ago

সরস্বতী পুজোর পোশাক, ছোটোদের জন্য কালেকশন

খবরঅনলাইন ডেস্ক: সরস্বতী পুজোয় প্রায় সব ছোটো ছেলেমেয়েই হলুদ লাল ও অন্যান্য রঙের শাড়ি, পাঞ্জাবিতে সেজে ওঠে। তাই ছোটোদের জন্য...

কেনাকাটা3 months ago

সরস্বতী পুজো স্পেশাল হলুদ শাড়ির নতুন কালেকশন

খবরঅনলাইন ডেস্ক: সামনেই সরস্বতী পুজো। এই দিন বয়স নির্বিশেষে সবাই হলুদ রঙের পোশাকের প্রতি বেশি আকর্ষিত হয়। তাই হলুদ রঙের...

কেনাকাটা4 months ago

বাসন্তী রঙের পোশাক খুঁজছেন?

খবরঅনলাইন ডেস্ক: সামনেই আসছে সরস্বতী পুজো। সেই দিন হলুদ বা বাসন্তী রঙের পোশাক পরার একটা চল রয়েছে অনেকের মধ্যেই। ওই...

কেনাকাটা4 months ago

ঘরদোরের মেকওভার করতে চান? এগুলি খুবই উপযুক্ত

খবরঅনলাইন ডেস্ক: ঘরদোর সব একঘেয়ে লাগছে? মেকওভার করুন সাধ্যের মধ্যে। নাগালের মধ্যে থাকা কয়েকটি আইটেম রইল অ্যামাজন থেকে। প্রতিবেদন লেখার...

কেনাকাটা4 months ago

সিলিকন প্রোডাক্ট রোজের ব্যবহারের জন্য খুবই সুবিধেজনক

খবরঅনলাইন ডেস্ক: নিত্যপ্রয়োজনীয় বিভিন্ন সামগ্রী এখন সিলিকনের। এগুলির ব্যবহার যেমন সুবিধের তেমনই পরিষ্কার করাও সহজ। তেমনই কয়েকটি কাজের সামগ্রীর খোঁজ...

কেনাকাটা4 months ago

আরও কয়েকটি ব্র্যান্ডেড মেকআপ সামগ্রী ৯৯ টাকার মধ্যে

খবরঅনলাইন ডেস্ক: আজ রইল আরও কয়েকটি ব্র্যান্ডেড মেকআপ সামগ্রী ৯৯ টাকার মধ্যে অ্যামাজন থেকে। প্রতিবেদন লেখার সময় যে দাম ছিল...

কেনাকাটা4 months ago

রান্নাঘরের এই সামগ্রীগুলি কি আপনার সংগ্রহে আছে?

খবরঅনলাইন ডেস্ক: রান্নাঘরে বাসনপত্রের এমন অনেক সুবিধেজনক কালেকশন আছে যেগুলি থাকলে কাজ অনেক সহজ হয়ে যেতে পারে। এমনকি দেখতেও সুন্দর।...

কেনাকাটা4 months ago

৫০% পর্যন্ত ছাড় রয়েছে এই প্যান্ট্রি আইটেমগুলিতে

খবরঅনলাইন ডেস্ক: দৈনন্দিন জীবনের নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসগুলির মধ্যে বেশ কিছু এখন পাওয়া যাচ্ছে প্রায় ৫০% বা তার বেশি ছাড়ে। তার মধ্যে...

কেনাকাটা4 months ago

ঘরের জন্য কয়েকটি খুবই প্রয়োজনীয় সামগ্রী

খবরঅনলাইন ডেস্ক: নিত্যদিনের প্রয়োজনীয় ও সুবিধাজনক বেশ কয়েকটি সামগ্রীর খোঁজ রইল অ্যামাজন থেকে। প্রতিবেদনটি লেখার সময় যে দাম ছিল তা-ই...

নজরে