২০২১-এর ডিসেম্বরের মধ্যেই মহাকাশে দৃষ্টান্ত গড়তে চলেছে ইসরো

0

ওয়েবডেস্ক: এ বার মহাকাশে মানুষ পাঠাতে চলেছে ভারতীয় মহাকাশ গবেষণাকারী সংস্থা ইসরো। সংস্থার চেয়ারম্যান কে সিভান শনিবার বলেন, দেশ আগামী ২০২১ সালের ডিসেম্বরের মধ্যে মহাকাশে মানুষ পাঠানোর লক্ষ্য পূরণে এগিয়ে চলেছে।

তিনি বলেন, চন্দ্রযান ২-এর ল্যান্ডার ‘বিক্রম’ পরিকল্পনা মাফিক চাঁদের মাটিতে নামতে না পারলেও ‘গগনযান’ মিশনের উপর এর কোনো প্রভাব পড়বে না।

চন্দ্রযান ২-এর অরবিটার সাড়ে সাত বছরের তথ্য পাঠাবে বলে উল্লেখ করে তিনি বলেন, আলতো অবতরণ ব্যতীত চন্দ্রযান মিশনের সমস্ত প্রযুক্তি সঠিক প্রমাণিত হয়েছে। সিবন প্রশ্নের ঢঙে বলেন, “এটা কি সাফল্য নয়?”

ভুবনেশ্বর আইআইটির অষ্টম সমাবর্তন অনুষ্ঠানে যোগ দিয়ে সিবন বলেন, “২০২০ সালের ডিসেম্বরের মধ্যেই এখনও নাম স্থির না হওয়া আমরা মানুষ-সহ প্রথম মহাকাশযান পাঠাব। মানুষ-সহ দ্বিতীয় মহাকাশযানটি পাঠানোর জন্য আমরা ২০২১ সালের জুলাইকে সামনে রেখেছি”।

তিনি বলেন, “২০২১ সালের ডিসেম্বরের মধ্যে মানুষ-সহ প্রথম ভারতীয় মহাকাশযানটি আমাদের নিজস্ব রকেট বহন করবে … সেই লক্ষ্য নিয়েই ইসরো কাজ করছে”।

সিবনের এই বক্তব্যের পরই প্রেক্ষাগৃহ করতালিতে ভেসে যায়। তিনি জানান, ইতিমধ্যেই মধ্যেই নভোশ্চর নির্বাচনের জন্য জন্য বায়ু সেনার ২৫ জন যুদ্ধবিমানচালককে বাছাই করা হয়েছে। চূড়ান্ত বাছাইয়ের পর ৩ জনকে পৃথক করে বিশেষ প্রশিক্ষণের জন্য রুশ মহাকাশ সংস্থা রসকসমসে পাঠানো হবে।

[ আরও পড়ুন: চন্দ্রযান ২: ‘বিক্রম’কে নিয়ে নিরাশার মাঝেই সুখবর শোনাল ইসরো ]

তাঁর মতে, “গগনযান মিশন ভারতের পক্ষে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। এটি দেশের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সক্ষমতা বাড়িয়ে তুলবে। যে কারণে আমরা একটি নতুন লক্ষ্য নিয়ে কাজ করছি”।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here