ক্রমশ পৃথিবীর দিকে এগিয়ে আসছে দৈত্যাকার এক ধূমকেতু। মহাজাগতিক বিষয় নিয়ে যদি আপনার মনে সামান্যতম আগ্রহও থাকে, তা হলে এটা আপনার জন্য অবশ্যই রোমাঞ্চকর। পৃথিবীর পাশ দিয়ে উড়ে যাবে বিশাল ওই ধূমকেতু। চোখের দেখা দেখতে অপেক্ষা করার আগে জেনে নিন বিস্তারিত।

কে২: সবচেয়ে দূরবর্তী সক্রিয় ধূমকেতুগুলির মধ্যে একটি

পৃথিবীর কাছাকাছি আসতে চলেছে সি/২০১৭ কে২ (C/2017 K2) বা পানস্টার্স (PANSTARRS) নামের এই ধূমকেতুটি। সংক্ষেপে এর নাম কে২।

২০১৭ সালে নাসা (NASA)-র Hubble Space Telescope এটিকে প্রথম আবিষ্কার করে। তখন এটি শনি (Saturn) ও ইউরেনাস (Uranus)-এর মাঝখানে ছুটে বেড়াচ্ছিল। চার বছরেরও বেশি সময় ধরে অনেকটা পথ পেরিয়ে সে এখন সৌরজগতের কেন্দ্রের দিকে ছুটে যাচ্ছে। এখন অবস্থান অনুযায়ী এত সক্রিয় এবং উজ্জ্বল যে খুব সহজেই পৃথিবী থেকে কে২-কে দেখা যাবে।

এটাই এখনও পর্যন্ত দেখা সবচেয়ে দূরবর্তী সক্রিয় ধূমকেতুগুলির মধ্যে একটি। জ্যোতির্বিজ্ঞানীরা জানিয়েছেন, এই ধূমকেতুটি বৃহস্পতিবার পৃথিবীর সবচেয়ে কাছের বিন্দুতে পৌঁছাবে। যা অনলাইনে বা ব্যক্তিগত ভাবে দেখা সম্ভব হবে। তবে এর জন্য আপনার কাছে একটি টেলিস্কোপ এবং অবশ্যই অন্ধকার আকাশ থাকতে হবে।

তবে পৃথিবীর একেবারে কাছাকাছি আসবে না কে২

স্পেস ডট কম (space.com)-এর তথ্য অনুযায়ী, নিকটতম পদ্ধতির অফিসিয়াল সময় হবে রাত সাড়ে ১১টা ইডিটি (০৩০৯ জিএমটি ১৪ জুলাই)। নাসা-র জেট প্রপালশন ল্যাবরেটরির তথ্য অনুযায়ী, তখন ওই ধূমকেতুটি আমাদের গ্রহের কেন্দ্র থেকে ১.৮ মহাকাশীয় একক (astronomical unit) দূরত্ব অবস্থান করবে।

জ্যোতির্বিজ্ঞানীদের মতে, মনে হতে পারে যে ধূমকেতুটি উজ্জ্বল আকাশের জন্য বেশ কাছাকাছি রয়েছে। তবে এটাও মনে রাখা গুরুত্বপূর্ণ যে ধূমকেতুটি আসলে পৃথিবীর একেবারে কাছাকাছি আসবে না। নাসার গণনা অনুযায়ী, ধূমকেতুর অতীতের পথরেখা দেখায় যে এটি সূর্যের চারপাশে ঘুরতে এবং সৌরজগতের বাইরে ফিরে যাওয়ার আগে মঙ্গলের (Mars) কক্ষপথ অতিক্রম করবে না।

কী ভাবে দেখা যাবে কে২

পৃথিবীর কাছাকাছি আসছে কে২। তবে মঙ্গলের থেকে অনেকটা দূরেই থাকবে। যে কারণে সম্ভবত খালি চোখে দেখা যাবে না তাকে। তাই টেলিস্কোপ ব্যবহার করতে হবে। একটা ছোটো টেলিস্কোপ ব্যবহার করেও রাতের আকাশে কে২-কে পুরোপুরি দেখা সম্ভব। আসলে কয়েক সপ্তাহ ধরেই এই ধূমকেতুটিকে এ ভাবেই দেখা সম্ভব হয়েছে।

টেলিস্কোপের মাধ্যমে একটি নিখুঁত দৃশ্য দেখতে, ব্রাউজার অ্যাপ স্টেলারিয়াম ব্যবহার করতে পারেন। এই অ্যাপ রাতের আকাশের বস্তুগুলিকে শনাক্ত করতে সাহায্য করে। আর যাঁদের কাছে টেলিস্কোপ নেই, তাঁরা ভার্চুয়াল টেলিস্কোপের লাইভ স্ট্রিমের মাধ্যমে ধূমকেতুটি অনলাইনে দেখতে নিতে পারেন।

আরও পড়তে পারেন:

ওড়িশায় নিম্নচাপের জেরে দক্ষিণবঙ্গে কিছুটা সক্রিয় হল বর্ষা

প্রেসিডেন্টের প্রাসাদের পর এ বার শ্রীলঙ্কার সরকারি টিভি চ্যানেল দখল! খবর পড়তে শুরু করলেন বিক্ষোভকারী

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন