কুকুর-বিড়ালের শরীর থেকে করোনাভাইরাস ছড়ানোর সম্ভাবনা নেই: পেটা ইন্ডিয়া

0
তা হলে এ সবের কী প্রয়োজন? প্রতীকী ছবি

নয়াদিল্লি: করোনাভাইরাসের (Corornavirus) জেরে উদ্বেগে ছড়িয়েছে সর্বত্র। এই মারণ ভাইরাসে সংক্রমণের শিকার গৃহপালিত পশুরাও হতে পারে কি না, তা নিয়ে আশঙ্কা দানা বেঁধেছে। পরিস্থিতির গুরুত্ব বুঝে পেটা ইন্ডিয়া-অ্যানিমাল রাইটস অর্গানাইজেশন বিবৃতি দিয়ে জানাল, কুকুর-বিড়ালের মতো গৃহপালিত পশুর কোনো ঝুঁকি নেই।

নিজেদের দাবির স্বপক্ষে একাধিক বিশেষজ্ঞের মন্তব্য এবং পরামর্শ তুলে ধরেছে সংস্থা।

পেটা ইন্ডিয়ার (PETA India) সিইও এবং বিশিষ্ট পশু চিকিৎসক মণিলাল ভ্যালিয়েত জানান, সাধারণ ঠান্ডা লাগা পশু এবং মানুষের মধ্যে ছড়িয়ে পড়তে পারে না। মানুষের শরীর থেকে একাধিক ‘ভাইরাল ইনফেকশন’ ঘর অথবা রাস্তার কুকুর-বিড়ালের শরীরে বাসা বাঁধতে পারে না। কারণ উভয়ের শরীরের ‘সেল রিসেপ্টর’ ভিন্ন। যে কারণে মানুষের শরীর থেকে ছড়িয়ে পড়া বিভিন্ন ভাইরাসকে প্রতিরোধ করার ক্ষমতা রয়েছে পশুদের মধ্যে।

পাশাপাশি তিনি জানান, এখন করোনাভাইরাসের জেরে যে পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে, তা সামাজিক ভাবে ভীষণ গুরুত্বপূর্ণ। আমাদের কর্তব্য গৃহপালিত পশুদের প্রতি সমান ভাবে যত্নশীল হওয়া। তা হলে ব্যতিক্রমী ঘটনা আটকানো সম্ভব।

এ প্রসঙ্গে পেটা ইন্ডিয়া ওয়ার্ল্ড হেলথ অর্গানাইজেশন (WHO), ওয়ার্ল্ড অর্গানাইজেশন ফর অ্যানিমাল হেলথ, আমেরিকান ভেটেরিনারি মেডিক্যাল অ্যাসোসিয়েশন এবং সেন্টার ফর ডিজিস কন্ট্রোল অ্যান্ড প্রিভেনশনের মতো বিশ্বজনীন সংস্থাগুলির বিবৃতি উল্লেখ করেছে।

একই সঙ্গে জানানো হয়েছে, হংকংয়ের এগ্রিকালচার, ফিশারিজ অ্যান্ড কনজারভেশন বিভাগ নিশ্চিত করেছে, সেখানকার যে কুকুরগুলির মধ্যে করোনাভাইরাসের উপস্থিতি ধরা পড়েছে তা যথেষ্ট পরিণত নয়। অভিভাবকদের সংস্পর্শে আসার কারণে তাদের নাক এবং মুখে ভাইরাস ধরা পড়ে। কিন্তু কারও মধ্যে অসুস্থতার লক্ষণ ধরা পড়েনি।

আরও পড়ুন: করোনাভাইরাস প্রতিরোধে একগুচ্ছ পরামর্শ মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের

সেখানে স্পষ্ট করেই বলা হয়েছে, “কুকুর এবং বিড়ালরা কোভিড-১৯ (COVID-19)-এর প্রাকৃতিক হোস্ট হয় না এবং তারা মানুষের মধ্যে ভাইরাস ছড়িয়ে দেয় না”।

------------------------------------------------
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.