ওয়াশিংটন: ৩০০ কোটি বছর আগের কথা। ভয়াবহ এক সুনামি এসে ধুয়ে মুছে সাফ করে দিল লাল গ্রহের প্রতিটা কোনা। তার আগে সেখানে দিব্যি ছিল জল। রীতিমতো সাগর ছিল মঙ্গল গ্রহে। কল্প বিজ্ঞানের গল্প নয়। সাম্প্রতিক গবেষণায় উঠে এসেছে এই তত্ত্ব।

গবেষণা বলছে, মঙ্গলের সমুদ্রে নাকি ৩০০ কোটি বছর আগে আছড়ে পড়ে এক গ্রহাণুপুঞ্জ। তার জেরেই সমুদ্রে আসে বিপুল জলোচ্ছ্বাস, যা চেহারা নেয় ভয়ঙ্কর সুনামির। সমুদ্রপৃষ্ঠ থেকে ১০০ ফুট উঁচু পর্যন্ত উঠেছিল ঢেউ। সেই ভয়ঙ্কর সুনামির ফলে মঙ্গলের মাটিতে বিশাল এলাকা জুড়ে পড়ল পলির স্তর। প্রথম সুনামির পর আবারও এক সুনামি, অতএব পলির ওপর জমল নতুন পলির স্তর, এ ভাবে গোটা সমুদ্রটার ওপরেই পড়ে গেল পলির আস্তরণ।

আরও পড়ুন; ২১১৭ সালের মধ্যে মঙ্গল গ্রহে শহর তৈরি করবে আমিরশাহি

ফ্রান্স, ইতালি এবং মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের একদল বিজ্ঞানী গবেষণা করে বিশ্লেষণ করেছেন লাল গ্রহের এই বিপর্যয়ের ঘটনা। ‘জিওফিজিক্যাল রিসার্চ’ জার্নালে প্রকাশিত হয়েছে তাঁদের গবেষণা। এর আগেও শক্তিশালী ক্যামেরায় তোলা মঙ্গল গ্রহের যে সব ছবি কৃত্রিম উপগ্রহ মারফত বিজ্ঞানীদের হাতে পৌঁছেছে, সে সবেই প্রমাণ পাওয়া গিয়েছে, কোনো এক সময় জল ছিল মঙ্গলে। মঙ্গলের বুকে জমে থাকা পলির বয়সও নতুন গবেষণার পক্ষেই কথা বলছে। 

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here