পেটের ক্যানসারের জন্য দায়ী এই বিশেষ ধরনের ব্যাকটেরিয়া: গবেষণা

0
cancer
প্রতীকী ছবি

লন্ডন: গবেষণায় দেখা গিয়েছে যে সব মানুষের পেটের ভেতর একটি বিশেষ ধরনের ব্যাকটেরিয়া থাকে, তাঁদের পেটের ক্যানসার হওয়ার সম্ভাবনা বৃদ্ধি পায়। লন্ডনের এনসিআরআই ক্যানসার কনফারেন্স ২০১৯-এ এই গবেষণাপত্রটি উপস্থাপন করা হয়েছিল।  

ব্যাকটেরিয়া, ফাঙ্গাস, ভাইরাস এই সব মিশে থাকে পেটের বিশেষ ধরনের মাইক্রোবিয়ামে। শরীরে ও রোগের মধ্যে সংবেদনশীলতা কতটা হবে, সে ক্ষেত্রে মাইক্রোবিয়াম বিশেষ ভূমিকা রাখে।

যুক্তরাজ্যের ইউনিভার্সিটি অব ব্রিস্টলের গবেষক ক্যাটলিন ওয়াদে বলেন, পেটের ক্যানসারে ব্যাকটেরিয়ার ভূমিকা নিয়ে গবেষণা করার ক্ষেত্রে প্রথমবার মেন্ডেলিয়ান র‍্যানডমাইজেসন প্রযুক্তি ব্যবহার করা হয়েছে। তাতে দেখা গিয়েছে যে, ব্যাকটেরিয়ার মধ্যে থেকেই এক শ্রেণী ব্যাকটেরিয়া এই ক্ষেত্রে বিশেষ ভূমিকা নেয়। এই বিশেষ ব্যাকটিয়াটিকে এখনও শ্রেণীবিভক্ত করা যায়নি। এর নাম দেওয়া হয়েছে ব্যাকটেরইডালস। এরা পেটের ক্যানসারের সম্ভাবনা ২% থেকে ১৫% বৃদ্ধি করে।

সুতরাং, যাঁদের পেটে এই ধরনের ব্যাকটেরিয়ার উপস্থিতি আছে, তাঁদের পেটের ক্যানসারের সম্ভাবনা অন্যদের থেকে কিছুটা বেশি।

ওয়েদা বলেন, এই গবেষণায় মানুষের জিনগত বৈশিষ্ট্যের বৈচিত্র ইত্যাদি পরীক্ষা করে দেখা হয়েছে। তার থেকে পেটের ব্যাকটেরিয়া সম্পর্কে ধারণা করা হয়েছে। তাঁরা দেখেছেন, পেটের ক্যানসারের ঝুঁকি রয়েছে কি না।

এই বিশেষ পদ্ধতিতে কাউকে সরাসরি অ্যান্টি-বায়োটিক বা প্রোবায়োটিক দিয়ে পেটের মাইক্রোবিয়ামকে পরিবর্তন করতে হবে না। কেউ পেটের ক্যানসারে আক্রান্ত কি না, তা জানার জন্য সময়ও নষ্ট করতে হবে না।

ক্যানসারের প্রাথমিক ৫টি লক্ষণ, এগুলির একটিও থাকলে সচেতন হন/ পর্ব-২

এই গবেষণাটি করতে ‘ফ্লেমিশ গাট ফ্লোরা প্রোজেক্ট’-এ অংশ নেওয়া ৩ হাজার ৮৯০ জন, ‘দ্য জার্মান ফুড চেন প্লাস স্টাডি’ এবং ‘দ্য পপ জেন স্টাডি’ ও ‘ইন্টারন্যাশনাল জেনেটিক অ্যপিডেমিওলজি অব কোলোরেকট্যাল ক্যানসার কনসোর্টিয়ামে’ অংশ নেওয়া ১ লক্ষ ২০ হাজার ৩২৮ জন ব্যক্তির তথ্য ব্যবহার করা হয়েছিল।

পেটে ১৩ রকমের ব্যাকটেরিয়া থাকে। মানুষের শরীরে বিশেষ ধরনের ব্যাকটেরিয়াটিই পেটের ক্যানসারের সম্ভাবনা বাড়ানোর জন্য দায়ী থাকে।

তিনি বলেন, এই বিশেষ ধরনের ব্যাকটেরিয়াটি সম্বন্ধে জানতে হবে এবং কেন ও কী ভাবে জিনগত পরিবর্তনের জন্য মাইক্রোবিয়ামের পরিবর্তন হয়, তা নিয়েও আরও অনেক পরীক্ষা-নিরীক্ষা করতে হবে। তিনি এ কথাও বলেন, তবে যদি এই বিশেষ ধরনের ব্যাকটেরিয়াগুলি এই ক্যানসারের জন্য দায়ী হয়, তা হলে তা পরিবর্তন করা যাবে কি না? তা পরিবর্তন করলে শরীরের অন্যান্য ক্ষেত্রে তার কোনো প্রভাব পড়বে কিনা তা-ও খতিয়ে দেখতে হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here