aadhar card centre in kolkata

ওয়েবডেস্ক: আনলিমিটেড ইন্টারনেট অফারের যুগে কে আর অফলাইনে আগ্রহ দেখাবেন? কিন্তু আধার কার্ডের এমন কয়েকটি সংশোধন রয়েছে, যেগুলি অনলাইনে কোনো মতেই সম্ভব নয়। সে ক্ষেত্রে তো আপনাকে অফলাইনের দ্বারস্থ হতেই হবে। অফলাইনে আধার কার্ডের সংশোধনকে আরও সুবিধা করে দেওয়ার উদ্দেশে আধার কর্তৃপক্ষ পুরসভা বা ব্লক ধরে স্থাপন করেছেন আধার কেন্দ্র। সেখানে নির্দিষ্ট ফর্মে তথ্য ভরার পর উপযুক্ত প্রমাণপত্র সংযোজন করলেই সমস্যা মিটে যাবে। শুধু এই যা আপনাকে সশরীরে ওই কেন্দ্র পর্যন্ত যেতে হবে। কারণ এ ছাড়া আর কোনো উপায় যে নেই?

এ বার জেনে নেওয়া যাক, আধার কেন্দ্রে কোন কোন সংশোধন সম্ভব? আদতে আধার কেন্দ্রে সমস্ত রকম পরিষেবাই প্রদান করা হয়ে থাকে। কিন্তু সেগুলির বেশির ভাগই অনলাইনে হয়ে যাওয়ায় নির্দিষ্ট কয়েকটি সংশোধনের জন্যই আধার কেন্দ্রের দ্বারস্থ হতে হয়। তবে সাধারণত আধার কেন্দ্রে যে আবেদনগুলি জমা পড়ে সেগুলি হল- (ক) নাম, (খ) ঠিকানা, (গ) জন্ম তারিখ, (ঘ) লিঙ্গ, (ঙ) ই-মেল আইডি এবং (চ) মোবাইল নম্বর-এর সংশোধন।

এগুলির মধ্যে শেষের দু’টি অর্থাৎ ই-মেল আইডি এবং মোবাইল নম্বরের সংশোধন বা সংযোজনের জন্য সব থেকে বেশি মানুষ নির্ভর করেন আধার কেন্দ্রগুলিকে। কারণ এই দু’টি সংশোধন কোনো মতেই অনলাইনে সম্ভব নয়।

অনলাইনে আধার কার্ডের সংশোধনে প্রয়োজন হয় একটি মোবাইল নম্বর। কারণ সেটিতেই আসে ওটিপি। কিন্তু যদি ওই মোবাইল নম্বর না নথিভুক্ত হয়?

সচরাচর দেখা যায় আধার কার্ড তৈরির সময় একটি মোবাইল নম্বরের প্রয়োজন হয়। ওই মোবাইল নম্বরটি রেজিস্টার করার বিবিধ সুবিধাও রয়েছে। কিন্তু কার্ড তৈরির সময়কার মোবাইল নম্বরটি কোনো কারণে ছেড়ে দিতে হলে পরবর্তীকালে সমস্যায় পড়তে হয়। আবার যাঁরা কার্ড তৈরির সময় মোবাইল নম্বর দিতে পারেন না, তাঁদেরও একই সমস্যার সম্মুখীন হতে হয়। কিন্তু এ কথা অনেকেই প্রায়শই ভুলে যান মোবাইল নম্বর রেজিস্টার্ড না থাকলেও অফলাইনে আধারের তথ্য সংশোধন করা সম্ভব। তা কী ভাবে?

অফলাইনে আধার সংশোধনে আগে একটাই পথ খোলা ছিল। তা হল বেঙ্গালুরুতে আধার কর্তৃপক্ষের অফিসে যোগাযোগ। এবং ডাক মারফত সংশোধনের আবেদন পাঠানো। পরে এ ব্যাপারে বেশ কয়েকটি বিশেষ কর্মসূচি নেওয়া হয়েছে। মোবাইল নম্বর নথিভুক্ত না থাকলেও যাতে কোনো নাগরিক আধার সংশোধন করতে পারেন সে জন্য় এলাকার বিশেষ অঞ্চলে আধার কেন্দ্র খোলা হয়েছে। যেখানে নির্দিষ্ট ফর্ম ভর্তি করে ওই সংশোধনের আবেদন করা যায় সহজেই। সে ক্ষেত্রে মোবাইলে ওয়ান টাইম পাসওয়ার্ড বা ওটিপি-র কোনো দরকার লাগবে না।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here