মহাকাশে যাচ্ছে ডাল, আলু পরোটা, চিকেনকারি, পোলাও…

0
প্রতীকী ছবি

ওয়েবডেস্ক: ডাল, আলু পরোটা, চিকেন কারি, পোলাও, বাদাম এবং অন্যান্য ফলের রস-সহ পানীয় যাচ্ছে মহাকাশে। ইসরোর ‘গগনযান’ অভিযানে ভারতীয় মহাকাশচারীদের জন্য ওই খাবার পাঠানো হবে।

ভারতের পাখির চোখ এখন ‘গগনযান’ অভিযান। আগামী বছরের শেষের দিকে বা ২০২২-এর গোড়ার দিকে ‘গগনযান‘-মহাকাশে যাত্রা করার সম্ভাবনা রয়েছে। এ ব্যাপারে নাসার সঙ্গে সামঞ্জস্য রক্ষা করে কঠোর মান নিয়ন্ত্রণের পথ ধরছে ইসরো।

ইতিমধ্যেই বহু-প্রত্যাশিত ‘গগনযান’ অভিযানের জন্য চার ভারতীয় মহাকাশচারীর নির্বাচন সম্পন্ন হয়েছে। সূত্রের খবর, ভারতীয় মহাকাশচারীদের জন্য দেশি মেনুতে ২২টি থালা এবং ফলের রস ব্যবহার করা হবে। খাবারের ওজন প্রায় ৬০ কেজি এবং পানীয় থাকবে ১০০ লিটার।

পাস্তা এবং পিৎজার পরিবর্তে ডিফেন্স ফুড রিসার্চ ল্যাবরেটরি (ডিএফআরএল), মৌসুর ওই খাবার সরবরাহ করবে। বাইরের মহাশূন্যে তাঁদের সপ্তাহব্যাপী অবস্থানকালে ভারতীয় মহাকাশচারীদের খাদ্য হিসাবে এগুলিকেই বেছে নেওয়া হয়েছে।

ডিএফআরএল-এর পরিচালক ড. অনিল দত্ত সেমওয়াল বেঙ্গালুরুতে ভারতীয় বিজ্ঞান কংগ্রেসের অনুষ্ঠানে জানান, “আমরা রুচিকর এবং জীবাণুমুক্ত কি না, তা পরীক্ষার জন্য ইসরোকে নমুনা (সমস্ত খাবার এবং অন্যান্য পানীয়) পাঠিয়েছি। এগুলির মধ্যে কিছু ইসরোর অভিযানে নির্বাচিত ভারতীয় বায়ুসেনার সদস্যরা এই খাবারের স্বাদ নিয়েছেন। তবে ইসরোর নির্দেশ মতো স্বাদ পরিবর্তন করা হবে।”

তিনি বলেন, খাবারগুলি ডিসপোজেবল বিশেষ প্যাকেজিং উপাদানে আবৃত করা হবে যাতে জীবাণুগুলি পাউচে প্রবেশ করতে না পারে। সদস্যদের জন্য পাঠানো এই খাবারগুলি মহাকাশযানের বোর্ডে ফুড ওয়ার্মার ব্যবহার করে গরম করা যাবে।

একই সঙ্গে তিনি বলেন, “প্রতিটি থালা হালকা মশলাযুক্ত হবে তবে মহাকাশচারীরা যদি উচ্চ মশলাদার খাবার খেতে চান, তবে আমরা অতিরিক্ত স্বাদ যুক্ত করব”।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.