নয়াদিল্লি : আগে থেকে কিছু কানাঘুষো শোনা গেলেও, স্পেনের বার্সেলোনায় ২০১৭-র মোবাইল ওয়ার্ল্ড কংগ্রেসে নোকিয়া ৩৩১০-র ফেরত আসার কথা ঘোষণা করল সংস্থা। ফোনটি নতুন অনেক সুবিধা নিয়ে বাজারে ফিরছে। থাকছে বড়ো রঙিন ডিসপ্লে, থাকবে আগের মতোই কি প্যাডের পদ্ধতি। নতুন ভবে ফিরলেও সংস্থা জানাচ্ছে, ফোনটি আগের মতোই শক্তপোক্ত, ব্যাটারিও দীর্ঘমেয়াদি ক্ষমতা সম্পন্ন। তবে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, কানাডা, অস্ট্রেলিয়া, সিঙ্গাপুর-সহ বেশ কিছু দেশে কাজ করবে না ফোনটি। কারণ এই ফোনে থাকছে টুজি নেটওয়ার্কে কাজ করার ক্ষমতা, কিন্তু এই দেশগুলোতে এখন আর টুজি নেটওয়ার্ক নেই। কিন্তু তা নিয়ে সংস্থা একটুও চিন্তিত নয়। সংস্থার মতে, এই সব দেশে এই ফোনের জন্য খুব একটা গুরুত্বপূর্ণ বা বড়ো বাজার নেই। 

ইয়াহু ফাইনান্স জানাচ্ছে, এই ফোন কেবলমাত্র এশিয়া-প্যাসিফিক অঞ্চলগুলিতেই কাজ করবে। এখানে টুজি আছে। কিন্তু অস্ট্রেলিয়ায় টুজি নেটওয়ার্ক নেই। অস্ট্রেলিয়ার টেলি কোম্পানি টেলস্ট্রা এখন আর এই নেটওয়ার্ক সরবরাহ করে না। তাই ৩৩১০ এখানে অচল। 

তেমনই সিঙ্গাপুরে চলতি বছরের এপ্রিল থেকে টুজি আর কাজ করবে ন। এখানকার টেলি কোম্পানি স্টার হাব জানাচ্ছে, টুজি নেটওয়ার্কের ডেটা, ভয়েস কল, এসএমএস কিছুই আর সিঙ্গাপুরে কাজ করবে না। তাই এই ফোন এখানে চলবে না। 

নোকিয়া ৩৩১০ শুধু ৯০০ আর ১৮০০ হার্জ ফ্রিকোয়েন্সি সাপোর্ট করে। ফলে মার্কিন দেশ, কানাডায় যে কোনো ফ্রিকোয়েন্সি ধরতে পারবে না এই মডেল। আর বেশির ভাগ নেটওয়ার্কই টুজি বন্ধ করে দিচ্ছে। 

ফলে বিদেশে কোথাও গেলে সেখানে এই ফোন কোনো কাজেরই নয় বলে মনে করছেন অনেকে। তাঁদের মতে, শুধু ভালো ব্যাটারি ব্যাক-আপ দিয়ে পরিবারের লোকের সঙ্গে কথা বলা যাবে না, যদি না কোনো নেটওয়ার্কের সঙ্গে যুক্ত করা যায়। 

সংস্থার মতে, পশ্চিম এশিয়া, এশিয়া প্যাসিফিক, ইউরোপ, আফ্রিকা এ সব এলাকা হল এই ফোনের আদর্শ বাজার। 

dailyhunt

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন