Connect with us

বিজ্ঞান

বয়স্কদের উপর ‘কার্যকর’ অক্সফোর্ডের কোভিড-টিকা

কম বয়সিদের মতোই বয়স্কদের মধ্যেও সম্ভাব্য ভ্যাকসিনটি উৎসাহ জোগাচ্ছে!

Published

on

খবর অনলাইন ডেস্ক: অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের (University of Oxford) তৈরি কোভিড-১৯ টিকা (Covid-19 vaccine) বয়স্কদের শরীরে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে কার্যকর। বিশেষত, ৫৬-৬৯ বছর বয়সি এবং ৭০ বছরের বেশি বয়সিদের মধ্যেও এই টিকার কার্যকারিতার প্রমাণ মিলেছে।

বৃহস্পতিবার ল্যানসেট (‘Lancet) চিকিৎসা সাময়িকীতে প্রকাশিত একটি প্রাথমিক গবেষণায় বলা হয়েছে, অক্সফোর্ডের তৈরি চ্যাডক্স ওয়ান এনকোভ-১৯ (ChAdOx1 nCoV-19) ভ্যাকসিনটি বয়স্কদের জন্যও ‘নিরাপদ এবং সহনশীল’। ৫৬০ জন সুস্থ এবং প্রাপ্তবয়স্কের উপর এই টিকার প্রয়োগের পর তথ্যটি উঠে এসেছে।

Loading videos...

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, এই টিকা দেওয়ার পর অল্প বয়স্কদের মতোই বয়স্কদের মধ্যে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে সক্ষম। তবে কিশোর ও তরুণদের মধ্যেও রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা তৈরি করতে সক্ষম অক্সফোর্ডের এই টিকা। এমনিতেই বয়স্কদের মধ্যে করোনার ঝুঁকি অনেকটাই বেশি বলে প্রথম থেকেই জানিয়ে আসছেন চিকিৎসকেরা।

গবেষকরা জানিয়েছেন, বয়স্কদের মধ্যে কোভিডের ঝুঁকি মারাত্মক। ফলে গবেষণা থেকে উঠে আসা এই তথ্য যথেষ্ট উৎসাহজনক। কারণ, ঝুঁকির বিষয়টি মাথায় রেখেই সার্স কোভ-২ (SARS-CoV-2)-এর বিরুদ্ধে বয়স্কদের উপর ব্যবহারযোগ্য এমন ভ্যাকসিনের খোঁজ চলছে।

গবেষক দলটি আরও বলেছে, এই ভ্যাকসিনের ট্রায়াল থেকে উঠে আসা গুরুত্বপূর্ণ পর্যায়ের প্রাথমিক ফলাফলগুলি আগামী সপ্তাহেই প্রকাশ্যে আসার প্রত্যাশা করা হচ্ছে। পরবর্তী পদক্ষেপটি হল, এটা রোগ থেকে সুরক্ষা দেওয়ার জন্য কতটা কার্যকর, সেটাই দেখার।

প্রসঙ্গত, অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয় এবং অ্যাস্ট্রাজেনেকার (Astra Zeneca) সম্ভাব্য মূল ভ্যাকসিনটি নিয়ে ভারতের সেরাম ইনস্টিটিউট অব ইন্ডিয়া (SII) এবং বায়োমেডিক্যাল গবেষণায় ভারতের শীর্ষ সংস্থা ইন্ডিয়ান কাউন্সিল অব মেডিকেল রিসার্চ (ICMR) যৌথ ভাবে কোভিশিল্ড (Covishield) তৈরি করছে।

কোভিশিল্ড-এর তৃতীয় পর্যায়ের পরীক্ষামূলক প্রয়োগে অংশগ্রহণকারী স্বেচ্ছাসেবকদের নামের তালিকা সম্পূর্ণ করেছে সেরাম ইনস্টিটিউট। বর্তমানে দেশের ১৫টি জায়গায় কোভিডশিল্ডের দ্বিতীয় এবং তৃতীয় পর্যায়ের পরীক্ষামূলক প্রয়োগ চলছে!

আরও পড়তে পারেন: ৯৫ শতাংশ কার্যকর, ভ্যাকসিন নিয়ে কোনো উদ্বেগ নেই, চূড়ান্ত ট্রায়ালে বলল ফাইজার

Advertisement
Click to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

প্রবন্ধ

First Man In Space: ইউরি গাগারিনের মহাকাশ বিজয়ের ৬০ বছর আজ, জেনে নিন কিছু আকর্ষণীয় তথ্য

আজ থেকে ঠিক ৬০ বছর আগে ১৯৬১-এর ১২ এপ্রিল মহাকাশে হিয়েছিলেন গাগারিন।

Published

on

খবরঅনলাইন ডেস্ক: ‘মানুষ চূর্ণিল আজ নিজ মর্ত্যসীমা’ – ১৩ এপ্রিল, ১৯৬১। আনন্দবাজার পত্রিকার প্রথম পাতায় আট কলম জুড়ে ব্যানার হেডিং। মানুষ বিস্মিত, হতচকিত – মহাকাশে পৌঁছে গিয়েছে মানুষ?

তখনকার দিনে ঘরে ঘরে সংবাদ পৌঁছে দেওয়ার সব চেয়ে জনপ্রিয় মাধ্যম ছিল সংবাদপত্র। রেডিও ছিল, তবে তা ঘরে ঘরে ছিল না। আর টিভি তো ক’টা দেশে ছিল, তা হাতে গোনা যায়। তাই সংবাদপত্রই মূলত পৌঁছে দিল সেই খবর।

Loading videos...

বিশ্বের বিভিন্ন দেশের বিভিন্ন ভাষার প্রত্যেকটি কাগজে সে দিন প্রথম পাতার খবর – মানুষের মহাকাশ জয়। মানব-ইতিহাসে সব চেয়ে স্মরণীয় ঘটনা।

দিনটা ছিল ১২ এপ্রিল, ১৯৬১। সোভিয়েত নভশ্চর ইউরি গাগারিন মহাকাশযান ভস্তক ১-এ চেপে মর্ত্যের আকাশসীমা লঙ্ঘন করে পৌঁছে গেলেন মহাকাশে। মহাকাশজয়ী প্রথম মানব হিসাবে স্মরণীয় হয়ে থাকলেন গাগারিন।

যুদ্ধবিমানের বিমানের পাইলট গাগারিন মহাকাশে ছিলেন ১ ঘণ্টা ৪৮ মিনিট। তাঁর মহাকাশযান উৎক্ষেপণ করা হয়েছিল অধুনা কাজাখস্তানের বৈকনুর কসমোড্রোম থেকে। পশ্চিম রাশিয়ার সিটি অফ এঞ্জেলস-এর কাছে গাগারিনের মহাকাশযান পৃথিবীর কক্ষপথে প্রবেশ করে। মহাকাশযান থেকে প্যারাশ্যুটে লাফিয়ে পড়েন গাগারিন, নিরাপদে পৌঁছে যান ভূপৃষ্ঠে।

৬০ বছর আগে গাগারিনের সেই মহাকাশ-অভিযান মহাকাশবিজ্ঞান নিয়ে মানুষের গবেষণায় নতুন দিগন্ত খুলে দিল। এর পর থেকে মানুষ মহাকাশ নিয়ে কী করল, সে সব আজ আর কোনো অজানা তথ্য নয়।

ভস্তক ১ মিশন নিয়ে কিছু আকর্ষণীয় তথ্য

(১) বৈকানুর কসমোড্রোম থেকে যে মুহূর্তে ভস্তক ১ যাত্রা শুরু করেছিল, সেই মুহূর্তে গাগারিনের মুখ থেকে একটা শব্দ বেরিয়ে এসেছিল – “পোয়েখালি!” (যাওয়া যাক)।

(২) যে ভাবে পরিকল্পনা করা হয়েছিল, ঠিক সেই ভাবে চালিত হয়নি মিশন। যে উচ্চতায় কক্ষপথে ভস্তক ১-এর প্রবেশ করার কথা ছিল, তার চেয়ে বেশি উচ্চতায় প্রবেশ করেছিল। এর অর্থ মহাকাশযানটির ব্রেক ফেল করতে পারত। তা হলে আরও বেশি ক্ষণ গাগারিনকে মহাকাশে থাকতে হত। তবে তা হয়নি। ব্রেক ভালো ভাবেই কাজ করেছে এবং ফেরার সময় গাগারিন পরিকল্পনামাফিকই পৃথিবীর কক্ষপথে প্রবেশ করেছেন।

(৩) জানা যায়, ভূপৃষ্ঠ ছোঁয়ার সঙ্গে সঙ্গে গাগারিনকে প্রথম দেখেছিলেন এক কৃষক ও তাঁর কন্যা। সেই সময়টা ছিল ঠান্ডা যুদ্ধের। গাগারিনকে তাঁরা মার্কিন গুপ্তচর মনে করেছিলেন। তাঁদের বোঝাতে যথেষ্ট বেগ পেতে হয়েছিল গাগারিনকে।

(৪) গোটা মিশনটা নিয়ে সোভিয়েত ইউনিয়ন চরম গোপনীয়তা অবলম্বন করেছিল। গাগারিন পৃথিবীতে নিরাপদে পৌঁছে যাওয়ার পরে ইউরি গাগারিনের এই অবিস্মরণীয় কৃতিত্বের খবর প্রকাশ করা হয়। সারা বিশ্ব যেন একটা ধাক্কা খায়, বিশ্বাস করে উঠতে পারে না ঘটনাটা – মনে মনে ভাবে, এমনও হয়!

(৫) গাগারিনের মহাকাশ-বিজয় উপলক্ষ্যে উৎসব-সমারোহের আয়োজন করা হয় সেন্ট পিটার্সবার্গে। হাজার হাজার লোক তাতে যোগ দেন। অসংখ্য মডেল রকেট আকাশে ছোড়া হয়। সেই সঙ্গে চলে আতসবাজির নানা খেলা।

Continue Reading

বিজ্ঞান

কোভিড ‘মরশুমি’ রোগের আকার নিতে পারে, বলছে রাষ্ট্রসঙ্ঘের গবেষণা

মরশুমি বিপদে পরিণত হতে পারে কোভিড, আশঙ্কার কথা শোনাল রাষ্ট্রসঙ্ঘের গবেষণা!

Published

on

খবর অনলাইন ডেস্ক: একটি ‘মরশুমি’ রোগে পরিণত হতে পারে কোভিড-১৯ (Covid-19)। আবহাওয়াজনিত কারণের ভিত্তিতে মহামারি সংক্রান্ত ব্যবস্থা শিথিল করার বিরুদ্ধে সতর্ক করে বৃহস্পতিবার তেমনই সম্ভাবনার কথা বলেছে রাষ্ট্রসঙ্ঘ (United Nations)।

করোনাভাইরাস অতিমারি (Coronavirus pandemic) প্রথম চিনে ধরা পড়েছিল। ওই ঘটনার এক বছরেরও বেশি সময় পরে, এখনও এই ভাইরাসের সংক্রমণ ঘিরে অনেক রহস্য রয়েছে। বিশ্বব্যাপী প্রায় ২৭ লক্ষ মানুষের প্রাণ গিয়েছে কোভিডে আক্রান্ত হয়ে।

Loading videos...

মরশুমি বিপদে পরিণত হতে পারে কোভিড

কোভিড -১৯-এর বিস্তার সম্পর্কে সম্ভাব্য আবহাওয়া এবং বায়ুর গুণগত মানের প্রভাবগুলি পরীক্ষা করে সেই রহস্যগুলির মধ্যে একটির উপর আলোকপাত করার দায়িত্ব পেয়েছিল একটি বিশেষজ্ঞ দল। তাদের প্রথম প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, এমন কিছু লক্ষণ দেখা দিয়েছে যে, এই রোগটি বিশ্বের কাছে মরশুমি বিপদে পরিণত হতে পারে।

রাষ্ট্রসঙ্ঘের ওয়ার্ল্ড মেটিরিওলজিক্যাল অর্গানাইজেশন ১৬ সদস্যের ওই বিশেষজ্ঞ দলটি গঠন করেছিল। বিশেষজ্ঞরা প্রতিবেদনে উল্লেখ করেছেন, শ্বাসজনিত ভাইরাল সংক্রমণ প্রায়শই মরশুমি হয়। বিশেষত শরৎকাল এবং শীতকালে ইনফ্লুয়েঞ্জার প্রকোপ বাড়ে। করোনাভাইরাসের ক্ষেত্রেও শীতকালীন আবহাওয়াকে বিশেষ ভূমিকা নিতে দেখা গিয়েছে।

কোভিডবিধি সমান ভাবে মেনে চলা উচিত

রিপোর্টে বলা হয়েছে, এ ভাবে দিনের পর দিন চললে কোভিড-১৯ এক দিন মরশুমি রোগের আকার নিতে পারে। একই সঙ্গে কোভিডের প্রকোপ কমার কারণ হিসাবে উল্লেখ করা হয়েছে মাস্কের ব্যবহার এবং চলাচলের উপর সরকারি বিধিনিষেধ জারির বিষয়গুলিকেও। যে কারণে বিশেষজ্ঞ দল বলেছে, শুধুমাত্র আবহাওয়া পরিবর্তনের জন্য করোনা সংক্রমণ কমতে পারে, এমন ধারণা পোষণ করা ঠিক নয়। কোভিডবিধিগুলিও সমান ভাবে মেনে চলা উচিত।

এই বিশেষজ্ঞ দলের নেতৃত্বে থাকা জন হপকিন্স বিশ্ববিদ্যালয়ের আর্থ অ্যান্ড প্ল্যানেটারি সায়েন্সেস বিভাগের অধ্যাপক বেন চাইচিক বলেছেন, সরকারি বিধিনিষেধ শিথিল করে দিলে আবহাওয়া এবং বায়ুর মানের কারণে করোনা সংক্রমণ কমে যাবে, এই পর্যায়ের নমুনাগুলি তা মোটেই প্রমাণ করে না।

তিনি বলেন, প্রথম বছরের অতিমারির সময় কোথাও কোথাও শীতকালে তা খুব বেড়ে গিয়েছিল। এ বছরেও যে তেমনটা ঘটবে না, তার কোনো নিশ্চয়তা নেই।

বায়ু দূষণে কি সংক্রমণ প্রভাবিত হয়?

মূলত আবহাওয়া এবং বায়ুর মানের উপর ভিত্তি করেই করোনা ভাইরাস সংক্রমণে সম্ভাব্য দিকগুলির উপর আলোকপাত করেছে এই বিশেষজ্ঞ দলটি। গবেষণায় জানা গিয়েছে, ভাইরাসটি শীত, শুষ্ক আবহাওয়ায় লম্বা সময় বেঁচে থাকতে পারে। বিশেষত, যখন খুব অল্প অতিবেগুনি রশ্মি নির্গত হয়, সে সময়।

যদিও আবহাওয়া সংক্রান্ত প্রভাবগুলি ভাইরাসের সংক্রমণে প্রকৃতঅর্থে কতটা কার্যকরী, তা এখনও অস্পষ্ট। তবে বায়ুর গুণমান খারাপ থাকার কারণে (দূষণ বেশি) কোভিডরোগীর মৃত্য়ুর হার বেড়েছে বলে প্রাথমিক প্রমাণ মিলেছে। কিন্তু বায়ু দূষণের ফলে সারস-কোভ-২-এর সংক্রমণ সরাসরি প্রভাবিত হয়, সেটা বলা যাচ্ছে না।

আরও পড়তে পারেন: সংক্রমণ পেরোল ৩৫ হাজারের গণ্ডি, দৈনিক মৃত্যুর হার মাত্র ০.৪৭ শতাংশ

Continue Reading

বিজ্ঞান

এক দিন এখন ২৪ ঘণ্টার থেকেও কম, কারণটা জেনে নিন এখানে

চমকপ্রদ তথ্য উদ্ঘাটন করলেন বিজ্ঞানীরা। এখন আর এক দিনের দৈর্ঘ্য ২৪ ঘণ্টা নয়। কী ভাবে?

Published

on

খবর অনলাইন ডেস্ক: শেষ অর্ধশতকের তুলনায় পৃথিবী যত দ্রুত গতিতে ঘুরছে, ততই কমছে এক দিনের সময়সীমা। অর্থাৎ, শেষ পাঁচ দশক ধরে পৃথিবীর আবর্তনের গতি বৃদ্ধি পাওয়ার কারণেই গ্রহটির প্রতিটা দিনের মেয়াদ এখন ২৪ ঘণ্টার থেকেও কম!

ডেলি মেল -এর রিপোর্টে বলা বিজ্ঞানীদের মন্তব্য উদ্ধৃত করে বলা হয়েছে, এই চমকপ্রদ ঘটনাটির যথাযথ প্রমাণও পাওয়া গিয়েছে। বিজ্ঞানীরা জানিয়েছেন, পৃথিবীর আবর্তন স্বাভাবিকের চেয়ে দ্রুত গতির কারণেই বর্তমানে একটি দিনের দৈর্ঘ্য স্বাভাবিক ২৪ ঘণ্টার চেয়ে “অতিসামান্য” ছোটো হচ্ছে।

Loading videos...

২০২০-র থেকে ছোটো হবে ২০২১?

২০২০ সালে সব থেকে ছোটো দিনের সংখ্যা ছিল ২৮টি। ১৯৬০ সালের পর থেকে যা সব থেকে বেশি। এমনকী ২০২১ সাল আরও ছোটো হতে পারে বলে পূর্বাভাস মিলেছে।

সময় এবং তারিখ অনুযায়ী, সূর্যের প্রতি গড় হিসাবে পৃথিবী প্রতি ৮৬,৪০০ সেকেন্ডে একবারে ঘোরে, যা ২৪ ঘণ্টা বা একটি অর্থ সৌর দিনের সমান।

বিজ্ঞানীদের ধারণা, ২০২১ সালের গড় দিনটি ৮৬,৪০০ সেকেন্ডের চেয়ে ০.০৫ মিলি সেকেন্ড কম হবে। ১৯৬০ সাল থেকে দিনের দৈর্ঘ্যের অতি-সুনির্দিষ্ট রেকর্ড রেখে চলা পারমাণবিক ঘড়িগুলি পুরো বছর ধরে প্রায় ১৯ মিলিসেকেন্ডের ব্যবধান তৈরি করবে।

কী ভাবে সময় কমছে

লাইভ সায়েন্সের একটি প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, “রেকর্ডে সব চেয়ে দ্রুততম ২৮টা দিন (১৯৬০ সাল থেকে) দেখা গিয়েছিল ২০২০ সালে। কারণ, ওই দিনগুলিতে পৃথিবী নিজের অক্ষের চারপাশে ঘূর্ণনগুলি গড়ের থেকে প্রায় মিলিসেকেন্ড সময় দ্রুত সম্পন্ন করে।”

পারমাণবিক ঘড়ির হিসেব অনুযায়ী, গত ৫০ বছর ধরে পৃথিবী একটি ঘূর্ণন সম্পন্ন করতে ২৪ ঘণ্টার (৮৬,৪০০ সেকেন্ড) চেয়ে কিছুটা কম সময় নিয়েছে।

ডেলি মেলের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ১৯২০ সালের ২০ জুলাই পৃথিবীতে সব চেয়ে সংক্ষিপ্ত দিনটি রেকর্ড করা হয়েছিল (যেহেতু ওই দিনেই রেকর্ড শুরু হয়েছিল)। ওই দিনটি ছিল ২৪ ঘণ্টার চেয়ে ১.৪৬০২ মিলি সেকেন্ড কম।

পরিসংখ্যান অনুযায়ী, ২০২০ সালের আগে সব থেকে ছোটো দিন রেকর্ড হয়েছিল ২০০৫ সালে। তবে গত বছরের ১২টি মাসে সেই রেকর্ড ২৮ বার ভেঙে গিয়েছে। উল্লেখ্য, ইন্টারন্য়াশনাল আর্থ রোটেশন অ্যান্ড রেফারেন্স সিস্টেম সার্ভিস (আইইআরএস) আনুষ্ঠানিক ভাবে পৃথিবীর একটি দিনের দৈর্ঘ্য পরিমাপ করে।

আরও পড়তে পারেন: কোভিড-১৯ ভ্যাকসিনগুলি কি করোনাভাইরাসের নতুন স্ট্রেনে কাজ করবে?

Continue Reading
Advertisement
Advertisement
রাজ্য20 mins ago

Bengal Polls 2021: শুভেন্দু অধিকারীকে সতর্ক করল নির্বাচন কমিশন

রাজ্য1 hour ago

নজরে বিধানসভা/বরানগর: দেখে নিন ইতিহাস এবং সাম্প্রতিক তথ্য

দার্জিলিং1 hour ago

Bengal Polls 2021: এনআরসি নিয়ে বড়ো ঘোষণা স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের

হাওড়া2 hours ago

বালিতে প্রচণ্ড শব্দে ভাঙল বাসের কাচ, পাথর না গুলি? চলছে তদন্ত

রাজ্য2 hours ago

Bengal Polls 2021: মুখে কালো মাস্ক, সঙ্গী রঙ-তুলি, গান্ধী মূর্তির পাদদেশে সাড়ে তিন ঘণ্টার ধরনা মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের

দেশ2 hours ago

UP Panchayat Polls: শেষ মুহূর্তে ভোটার তালিকায় নাম বাদ! ক্ষোভ চরমে

রাজ্য2 hours ago

Bengal Polls 2021: শীতলকুচি নিয়ে মন্তব্যের জেরে এ বার দিলীপ ঘোষকে নোটিশ নির্বাচন কমিশনের

প্রযুক্তি3 hours ago

বাড়ির কাছাকাছি রেশন দোকান কোনটা, খুব সহজেই জেনে নিতে পারেন ‘মেরা রেশন’ মোবাইল অ্যাপ থেকে

ধর্মকর্ম2 days ago

অন্নপূর্ণাপুজো: উত্তর কলকাতার পালবাড়ি ও বালিগঞ্জের ঘোষবাড়িতে চলছে জোর প্রস্তুতি

ভিডিও2 days ago

Bengal Polls 2021: বিধাননগরে মুখোমুখি টক্কর সুজিত বসু-সব্যসাচী দত্তর, ময়দানে জোট প্রার্থী অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়

প্রবন্ধ1 day ago

First Man In Space: ইউরি গাগারিনের মহাকাশ বিজয়ের ৬০ বছর আজ, জেনে নিন কিছু আকর্ষণীয় তথ্য

রাজ্য3 days ago

Bengal Polls 2021: কোচবিহারে ৩ দিনের জন্য রাজনীতিবিদদের প্রবেশ নিষিদ্ধ করল নির্বাচন কমিশন

দেশ1 day ago

Kumbh Mela 2021: করোনাবিধিকে শিকেয় তুলে এক লক্ষ মানুষের সমাগম, আজ কুম্ভের প্রথম শাহি স্নান হরিদ্বারে

ক্রিকেট18 hours ago

IPL 2021: কাজে এল না সঞ্জু স্যামসনের মহাকাব্যিক শতরান, পঞ্জাবের কাছে হারল রাজস্থান

Rahul Gandhi at Maldah rally
রাজ্য2 days ago

Bengal Polls 2021: পঞ্চম দফার ভোটের আগে রাজ্যে আসছেন রাহুল গান্ধী

রাজ্য2 days ago

Bengal Corona Update: নমুনা পরীক্ষার সঙ্গেই তাল মিলিয়ে বাড়ল বাংলার দৈনিক করোনা সংক্রমণ

ভোটকাহন

কেনাকাটা

কেনাকাটা3 weeks ago

বাজেট কম? তা হলে ৮ হাজার টাকার নীচে এই ৫টি স্মার্টফোন দেখতে পারেন

আট হাজার টাকার মধ্যেই দেখে নিতে পারেন দুর্দান্ত কিছু ফিচারের স্মার্টফোনগুলি।

কেনাকাটা2 months ago

সরস্বতী পুজোর পোশাক, ছোটোদের জন্য কালেকশন

খবরঅনলাইন ডেস্ক: সরস্বতী পুজোয় প্রায় সব ছোটো ছেলেমেয়েই হলুদ লাল ও অন্যান্য রঙের শাড়ি, পাঞ্জাবিতে সেজে ওঠে। তাই ছোটোদের জন্য...

কেনাকাটা2 months ago

সরস্বতী পুজো স্পেশাল হলুদ শাড়ির নতুন কালেকশন

খবরঅনলাইন ডেস্ক: সামনেই সরস্বতী পুজো। এই দিন বয়স নির্বিশেষে সবাই হলুদ রঙের পোশাকের প্রতি বেশি আকর্ষিত হয়। তাই হলুদ রঙের...

কেনাকাটা3 months ago

বাসন্তী রঙের পোশাক খুঁজছেন?

খবরঅনলাইন ডেস্ক: সামনেই আসছে সরস্বতী পুজো। সেই দিন হলুদ বা বাসন্তী রঙের পোশাক পরার একটা চল রয়েছে অনেকের মধ্যেই। ওই...

কেনাকাটা3 months ago

ঘরদোরের মেকওভার করতে চান? এগুলি খুবই উপযুক্ত

খবরঅনলাইন ডেস্ক: ঘরদোর সব একঘেয়ে লাগছে? মেকওভার করুন সাধ্যের মধ্যে। নাগালের মধ্যে থাকা কয়েকটি আইটেম রইল অ্যামাজন থেকে। প্রতিবেদন লেখার...

কেনাকাটা3 months ago

সিলিকন প্রোডাক্ট রোজের ব্যবহারের জন্য খুবই সুবিধেজনক

খবরঅনলাইন ডেস্ক: নিত্যপ্রয়োজনীয় বিভিন্ন সামগ্রী এখন সিলিকনের। এগুলির ব্যবহার যেমন সুবিধের তেমনই পরিষ্কার করাও সহজ। তেমনই কয়েকটি কাজের সামগ্রীর খোঁজ...

কেনাকাটা3 months ago

আরও কয়েকটি ব্র্যান্ডেড মেকআপ সামগ্রী ৯৯ টাকার মধ্যে

খবরঅনলাইন ডেস্ক: আজ রইল আরও কয়েকটি ব্র্যান্ডেড মেকআপ সামগ্রী ৯৯ টাকার মধ্যে অ্যামাজন থেকে। প্রতিবেদন লেখার সময় যে দাম ছিল...

কেনাকাটা3 months ago

রান্নাঘরের এই সামগ্রীগুলি কি আপনার সংগ্রহে আছে?

খবরঅনলাইন ডেস্ক: রান্নাঘরে বাসনপত্রের এমন অনেক সুবিধেজনক কালেকশন আছে যেগুলি থাকলে কাজ অনেক সহজ হয়ে যেতে পারে। এমনকি দেখতেও সুন্দর।...

কেনাকাটা3 months ago

৫০% পর্যন্ত ছাড় রয়েছে এই প্যান্ট্রি আইটেমগুলিতে

খবরঅনলাইন ডেস্ক: দৈনন্দিন জীবনের নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসগুলির মধ্যে বেশ কিছু এখন পাওয়া যাচ্ছে প্রায় ৫০% বা তার বেশি ছাড়ে। তার মধ্যে...

কেনাকাটা3 months ago

ঘরের জন্য কয়েকটি খুবই প্রয়োজনীয় সামগ্রী

খবরঅনলাইন ডেস্ক: নিত্যদিনের প্রয়োজনীয় ও সুবিধাজনক বেশ কয়েকটি সামগ্রীর খোঁজ রইল অ্যামাজন থেকে। প্রতিবেদনটি লেখার সময় যে দাম ছিল তা-ই...

নজরে