খবর অনলাইন ডেস্ক: অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের (University of Oxford) তৈরি কোভিড-১৯ টিকা (Covid-19 vaccine) বয়স্কদের শরীরে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে কার্যকর। বিশেষত, ৫৬-৬৯ বছর বয়সি এবং ৭০ বছরের বেশি বয়সিদের মধ্যেও এই টিকার কার্যকারিতার প্রমাণ মিলেছে।

বৃহস্পতিবার ল্যানসেট (‘Lancet) চিকিৎসা সাময়িকীতে প্রকাশিত একটি প্রাথমিক গবেষণায় বলা হয়েছে, অক্সফোর্ডের তৈরি চ্যাডক্স ওয়ান এনকোভ-১৯ (ChAdOx1 nCoV-19) ভ্যাকসিনটি বয়স্কদের জন্যও ‘নিরাপদ এবং সহনশীল’। ৫৬০ জন সুস্থ এবং প্রাপ্তবয়স্কের উপর এই টিকার প্রয়োগের পর তথ্যটি উঠে এসেছে।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, এই টিকা দেওয়ার পর অল্প বয়স্কদের মতোই বয়স্কদের মধ্যে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে সক্ষম। তবে কিশোর ও তরুণদের মধ্যেও রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা তৈরি করতে সক্ষম অক্সফোর্ডের এই টিকা। এমনিতেই বয়স্কদের মধ্যে করোনার ঝুঁকি অনেকটাই বেশি বলে প্রথম থেকেই জানিয়ে আসছেন চিকিৎসকেরা।

গবেষকরা জানিয়েছেন, বয়স্কদের মধ্যে কোভিডের ঝুঁকি মারাত্মক। ফলে গবেষণা থেকে উঠে আসা এই তথ্য যথেষ্ট উৎসাহজনক। কারণ, ঝুঁকির বিষয়টি মাথায় রেখেই সার্স কোভ-২ (SARS-CoV-2)-এর বিরুদ্ধে বয়স্কদের উপর ব্যবহারযোগ্য এমন ভ্যাকসিনের খোঁজ চলছে।

গবেষক দলটি আরও বলেছে, এই ভ্যাকসিনের ট্রায়াল থেকে উঠে আসা গুরুত্বপূর্ণ পর্যায়ের প্রাথমিক ফলাফলগুলি আগামী সপ্তাহেই প্রকাশ্যে আসার প্রত্যাশা করা হচ্ছে। পরবর্তী পদক্ষেপটি হল, এটা রোগ থেকে সুরক্ষা দেওয়ার জন্য কতটা কার্যকর, সেটাই দেখার।

প্রসঙ্গত, অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয় এবং অ্যাস্ট্রাজেনেকার (Astra Zeneca) সম্ভাব্য মূল ভ্যাকসিনটি নিয়ে ভারতের সেরাম ইনস্টিটিউট অব ইন্ডিয়া (SII) এবং বায়োমেডিক্যাল গবেষণায় ভারতের শীর্ষ সংস্থা ইন্ডিয়ান কাউন্সিল অব মেডিকেল রিসার্চ (ICMR) যৌথ ভাবে কোভিশিল্ড (Covishield) তৈরি করছে।

কোভিশিল্ড-এর তৃতীয় পর্যায়ের পরীক্ষামূলক প্রয়োগে অংশগ্রহণকারী স্বেচ্ছাসেবকদের নামের তালিকা সম্পূর্ণ করেছে সেরাম ইনস্টিটিউট। বর্তমানে দেশের ১৫টি জায়গায় কোভিডশিল্ডের দ্বিতীয় এবং তৃতীয় পর্যায়ের পরীক্ষামূলক প্রয়োগ চলছে!

আরও পড়তে পারেন: ৯৫ শতাংশ কার্যকর, ভ্যাকসিন নিয়ে কোনো উদ্বেগ নেই, চূড়ান্ত ট্রায়ালে বলল ফাইজার

dailyhunt

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন