Connect with us

বিজ্ঞান

কোভিড ১৯ চিকিৎসায় রাশিয়ার প্রথম ওষুধ আগামী সপ্তাহ থেকেই

খবর অনলাইন ডেস্ক: আগামী সপ্তাহ থেকে কোভিড ১৯ (Covid 19) চিকিৎসায় রাশিয়া (Russia) তার প্রথম অনুমোদিত ওষুধটি প্রয়োগ করতে চলেছে। রয়টার্সকে এই খবর দিয়েছে রাষ্ট্রের প্রধান আর্থিক মদতকারী সংস্থা। তাদের আশা, রাষ্ট্রের স্বাস্থ্যব্যবস্থার উপর চাপ কমবে এবং স্বাভাবিক অর্থনৈতিক জীবনে দ্রুত ফিরে আসা সম্ভব হবে।

এক সাক্ষাৎকারে রাশিয়ার আরডিআইএফ সভরেন ওয়েলথ ফান্ডের (RDIF Sovereign Wealth Fund) প্রধান কিরিল দিমিত্রিভ (Kirill Dmitriev) রয়টার্সকে জানান, অনুমোদিত ওষুধটি ‘অ্যাভিফেভির’ (Avifavir) নামে নথিভুক্ত হয়েছে। রাশিয়ার হাসপাতালগুলি ১১ জুন থেকে কোভিড ১৯ রোগীদের উপর এই অ্যান্টিভাইরাল ওষুধটি (antiviral drug) প্রয়োগ করতে পারবে। তিনি জানান, এই ওষুধ তৈরির দায়িত্বপ্রাপ্ত কোম্পানি মাসে অন্তত ৬০ হাজার রোগীর চিকিৎসা করার মতন ওষুধ উৎপাদন করবে।

আরও পড়ুন: মডার্নার করোনাভাইরাস টিকার প্রাথমিক পরীক্ষায় আশাব্যঞ্জক ফল

নতুন করোনাভাইরাসের (coronavirus) জেরে কোভিড ১৯ নামে যে রোগের সৃষ্টি হয়েছে, তা ঠেকানোর জন্য প্রতিষেধক টিকা (vaccine) তৈরির চেষ্টা বিভিন্ন দেশে জারি থাকলেও এখনও কোনো ইতিবাচক ফল মেলেনি।

কোভিড ১৯-এর চিকিৎসার ক্ষেত্রে গিলিড-এর (Gilead) অ্যান্টিভাইরাল ওষুধ ‘রেমডেসিভির’ (Remdesivir) নিয়ে পরীক্ষানিরীক্ষার সময় কিছু ইতিবাচক ফল মিলেছে এবং কিছু দেশে এমার্জেন্সি রোগীদের ক্ষেত্রে প্রয়োগ করা হচ্ছে।

‘অ্যাভিফেভির’-এর জেনেরিক নাম ‘ফ্যাভিপিরাভির’ (Favipiravir)। গত শতকের নব্বই দশকের শেষ দিকে জাপানের একটি কোম্পানি প্রথম এটি তৈরি করে। পরে ফুজিফিল্ম স্বাস্থ্যপরিষেবায় যুক্ত হওয়ার পরে ওই কোম্পানি কিনে নেয়।

আরডিআইএফ প্রধান জানান, রুশ বিজ্ঞানীরা ওই ওষুধের কার্যকারিতা আরও বাড়িয়েছে এবং আগেকার ওষুধে কী কী সংশোধন করা হয়েছে সেই তথ্য আগামী দু’ সপ্তাহের মধ্যে সকলের সঙ্গে ভাগাভাগি করে নিতে রাজি আছে মস্কো।

জাপানও ওই একই ওষুধ নিয়ে পরীক্ষানিরীক্ষা চালাচ্ছে। সেখানে এই ওষুধের নাম ‘অ্যাভিগান’ (Avigan)। এই প্রচেষ্টা প্রধানমন্ত্রী শিনজো আবের জোরালো সমর্থন পেয়েছে এবং তাঁর সরকার এ ব্যাপারে ১২৮ মিলিয়ন ডলার সাহায্য করেছে। তবে এই ওষুধ ব্যবহারের কোনো অনুমতি সরকার দেয়নি।     

রুশ সরকারের অনুমোদিত ওষুধের তালিকায় গত শনিবারই ঢুকে গিয়েছে ‘অ্যাভিফেভির’। দিমিত্রিভ জানান, ৩৩০ জন কোভিড ১৯ রোগীর উপর এই ওষুধ পরীক্ষা করে দেখা হয়েছে। এবং বেশির ভাগ ক্ষেত্রেই ভাইরাসের চিকিৎসা করে চার দিনের মধ্যে রোগীদের সুস্থ করে তুলেছে।

এক সপ্তাহের মধ্যেই পরীক্ষানিরীক্ষা শেষ হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু রাশিয়ার স্বাস্থ্য মন্ত্রক বিশেষ দ্রুত প্রক্রিয়ার মাধ্যমে ওষুধটি ব্যবহারের অনুমতি দিয়েছে।

দেশ

প্রথম বার দেশীয় প্রযুক্তিতে তৈরি নিউমোনিয়ার ভ্যাকসিনে মিলল ড্রাগ কন্ট্রোলের অনুমতি

সেরামের তৈরি নিউমোনিয়ার ভ্যাকসিনের প্রথম, দ্বিতীয় ও তৃতীয় পর্যায়ের ক্লিনিকাল ট্রায়ালে সাফল্য মিলেছে।

খবরঅনলাইন ডেস্ক: অক্সফোর্ডের করোনা-ভ্যাকসিন ভারতে তৈরি করার দায়িত্বে যে সংস্থা রয়েছে, সেই সেরাম ইনস্টিটিউট (Serum Institute) এ বার নিয়ে আসতে চলেছে নিউমোনিয়ার ভ্যাকসিনও।

সেরামের তৈরি নিউমোনিয়ার (Pneumonia) ভ্যাকসিন ড্রাগ কন্ট্রোলের জেনারেল অব ইন্ডিয়া অনুমোদন পেয়ে গেল। এই প্রথম, সম্পূর্ণ দেশীয় প্রযুক্তিতে তৈরি হল নিউমোনিয়ার ভ্যাকসিন।

কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রক সূত্রে খবর, সেরামের তৈরি নিউমোনিয়ার ভ্যাকসিনের প্রথম, দ্বিতীয় ও তৃতীয় পর্যায়ের ক্লিনিকাল ট্রায়ালে সাফল্য মিলেছে। ভ্যাকসিন ট্রায়ালের প্রতিটি পর্যায়ের তত্ত্বাবধান করেছে কেন্দ্রের অধীনস্থ ‘স্পেশাল এক্সপার্ট কমিটি’ (এসইসি)। ট্রায়ালের রিপোর্ট খতিয়ে দেখেই ভ্যাকসিনে সবুজ সঙ্কেত দিয়েছে ডিসিজিআই।

নিউমোনিয়ার ক্ষেত্রে কোভিডের (Covid 19) মতোই উপসর্গ দেখা যায়। জ্বর, প্রবল কাশি, বুকে সংক্রমণ এর প্রাথমিক উপসর্গ। সংক্রমণ গভীরে ছড়ালে তীব্র শ্বাসকষ্ট শুরু হয়। শীতের সময় শুষ্ক আবহাওয়ায় নিউমোনিয়া সৃষ্টিকারী ব্যাকটেরিয়া কিংবা ভাইরাস আরও বেশি সক্রিয় হয়ে ওঠে।

সামান্য ঠান্ডা লাগা থেকেও কারও কারও নিউমোনিয়ায় আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা বাড়ে।  যাঁদের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কম, মূলত, বয়স্ক ও শিশুরাই এই রোগে বেশি আক্রান্ত হয়।

আক্রান্ত রোগীর হাঁচি, কাশি, থুতু থেকে নিউমোনিয়ার জীবাণু ছড়াতে পারে। করোনার মতো একেও ড্রপলেট ইনফেকশন’ বলা হয়। সেরাম জানিয়েছে, এই ভ্যাকসিনের প্রয়োগে শরীরে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ছে।

সেরামের দাবি, শুধু নিউমোনিয়া নয়, যে কোনো সংক্রমণের মোকাবিলায় শরীরে শক্তিশালী প্রতিরোধ ব্যবস্থা তৈরি হবে।

এ দিকে করোনার ভ্যাকসিনের ক্ষেত্রেও যথেষ্ট অগ্রগতি দেখাচ্ছে অক্সফোর্ড। খুব সম্ভবত বৃহস্পতিবারই ‘সুখবর’ দিতে চলেছে তারা। ব্রিটেনের একটি সংবাদ সংস্থার দাবি, প্রতিষেধক তৈরির সহযোগী বায়োফার্মা কোম্পানি অ্যাস্ট্রাজেনেকাকে (Astra Zeneca) নিয়ে বৃহস্পতিবার সাংবাদিক বৈঠক করতে পারে অক্সফোর্ড।

Continue Reading

বিজ্ঞান

আজই কি আসছে ‘ভালো খবর’? জল্পনায় অক্সফোর্ডের করোনা-ভ্যাকসিন

অ্যাস্ট্রাজেনেকার সঙ্গে চুক্তি করেছে ভারতীয় সংস্থা সেরাম ইন্সটিটিউট। অর্থাৎ, এই টিকার উৎপাদন শুরু হলে ভারতের হাতে তা চলে আসতে বেশি সময় লাগবে না বলেই আশা করা যায়।

খবরঅনলাইন ডেস্ক: এ যেন এক বিশ্বযুদ্ধ শুরু হয়েছে। মানবজাতিকে রক্ষা করার বিশ্বযুদ্ধ। কে আগে ভ্যাকসিন বাজারে আনবে, তার একটা সুস্থ প্রতিযোগিতা। এই যুদ্ধে কে জিতবে?

কিছু দিন আগেই রাশিয়ার (Russia) সেচনেভ বিশ্ববিদ্যালয় দাবি করেছিল, তাদের তৈরি ভ্যাকসিনের হিউম্যান ট্রায়াল শেষ। আগস্টের মাঝামাঝিই এই ভ্যাকসিন বাজারে চলে আসতে পারে বলে দাবি তাদের। তা হলে কি করোনা ভ্যাকসিনের লড়াই জিতবে রাশিয়া?

বিশ্ব জুড়ে এ রকম একটা আলোচনার আবহে আজ জানা গেল, খুব সম্ভবত বৃহস্পতিবারই ‘সুখবর’ দিতে চলেছে অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয় (Oxford University)। ব্রিটেনের একটি সংবাদ সংস্থার দাবি, প্রতিষেধক তৈরির সহযোগী বায়োফার্মা কোম্পানি অ্যাস্ট্রাজেনেকাকে (Astra Zeneca) নিয়ে বৃহস্পতিবার সাংবাদিক বৈঠক করতে পারে অক্সফোর্ড।

তাদের এই গবেষণার নেতৃত্বে রয়েছেন ইবোলা প্রতিষেধক তৈরিতে দিশা দেখানো বিজ্ঞানী সারা গিলবার্ট। গবেষকদের একাংশ এখনও আশাবাদী যে সেপ্টেম্বরেই এই ভ্যাকসিন বাজারে চলে আসতে পারে।

ভ্যাকসিনের নাম ‘চ্যাডক্স-১’

জুনে ব্রাজিলে কয়েক হাজার স্বেচ্ছাসেবীর উপর ‘চ্যাডক্স-১’ (Chadox 1) প্রতিষেধকের তৃতীয় পর্যায়ের পরীক্ষামূলক প্রয়োগ শুরু করেছিল অক্সফোর্ড। ব্রিটেনের সংবাদমাধ্যমটির দাবি, তাতে অভাবনীয় সাড়া মিলেছে। সব ঠিকঠাক চললে হয়তো সেপ্টেম্বর কিংবা তারও আগে বাজারে চলে আসবে ভ্যাকসিন।

ওই সংবাদমাধ্যমের রাজনৈতিক বিভাগের সম্পাদক রবার্ট পেস্টন আজ বলেন, ‘‘যা শুনেছি, তাতে অক্সফোর্ডের গবেষকদের আশা মতোই এর প্রয়োগে যথাযথ অ্যান্টিবডি ও টি-সেল (ঘাতক কোষ) তৈরি হচ্ছে মানবশরীরে। সব ঠিকঠাক চললে সেপ্টেম্বরেই এই ভ্যাকসিনের উৎপাদন শুরু হয়ে যাবে।’’

সেরাম ইনস্টিটিউটের সঙ্গে চুক্তি

উল্লেখ্য, অ্যাস্ট্রাজেনেকার সঙ্গে চুক্তি করেছে ভারতীয় সংস্থা সেরাম ইনস্টিটিউট। অর্থাৎ, এই টিকার উৎপাদন শুরু হলে ভারতের হাতে তা চলে আসতে বেশি সময় লাগবে না বলেই আশা করা যায়।

তবে অক্সফোর্ড এখনও তাদের ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালের প্রথম পর্যায়ের রিপোর্ট পেশ করেনি! বাঁদরের উপর যে পরীক্ষামূলক প্রক্রিয়ার শুরু হয়েছিল, শীঘ্রই তার রিপোর্ট প্রকাশ করা হবে।

এ দিকে মার্কিন সংস্থা মডার্না জানিয়েছে, ২৭ জুলাই থেকে তাদের ভ্যাকসিনের তৃতীয় পর্যায়ের পরীক্ষানিরীক্ষা শুরু হবে।

Continue Reading

বিজ্ঞান

সূর্যাস্তের পর অন্তত ২০ মিনিট দেখুন উত্তর-পশ্চিম আকাশে ধূমকেতু ‘নিওওয়াইজ’, চলবে মাসভর

খবরঅনলাইন ডেস্ক: এক মহাজাগতিক ঘটনার সাক্ষী থাকুন। এখন থেকে অন্তত ২০ দিন এক ধূমকেতুর (comet) পৃথিবী পরিক্রমা দেখুন। ঠিক সূর্যাস্তের পরে উত্তর পশ্চিম আকাশে চোখ রাখলে আপনি এই ঘটনার সাক্ষী থাকতে পারেন। আকাশ যদি মেঘমুক্ত দূষণমুক্ত থাকে, তা হলে খালি চোখেই আপনি ধূমকেতুর পথ চলা দেখতে পাবেন। দেখবেন তার উজ্জ্বল পুচ্ছটি। আর বায়নোকুলার থাকলে তো কথাই নেই।

ধূমকেতুর নাম ‘সি/২০২০/এফ৩’ (C/2020/F3) বা ‘নিওওয়াইজ’ (Comet Neowise) । এই ধূমকেতুর অস্তিত্বের খবর পাওয়া গিয়েছে গত মার্চ মাসে। নাসার (NASA) নিওওয়াইজ মিশন (Neowise Mission) এটি আবিষ্কার করেছে। মহাকাশের এক টেলিস্কোপ গত ২৭ মার্চ নিওওয়াইজ-এর খবর দিয়েছে।

‘নিওওয়াইজ’-এর আসল নাম ‘সি/২০২০/এফ৩’ কেন? এর ব্যাখ্যা দিয়েছেন ভুবনেশ্বরের পাঠানি সামন্ত প্ল্যানেটেরিয়ামের ডেপুটি ডিরেক্টর ড. শুভেন্দু পট্টনায়েক। তিনি জানান, ‘সি’ নামে ‘কমেট’, ‘২০২০’ মানে বছর আর ‘এফ৩’ মানে এ বছরের তিন নম্বর ধূমকেতু। এর আগে ‘টার্টল’ আর ‘সোয়ান’ নামের দুই ধূমকেতুকে খালি চোখে যায়নি।     

ড. শুভেন্দু পট্টনায়েক বলেন, ১৪ জুলাই থেকে খালি চোখে এই ধূমকেতুটিকে দেখা যাচ্ছে। আগামী অন্তত ২০ দিন সূর্যাস্তের পর ২০ মিনিট ধরে উত্তর পশ্চিম আকাশে এই ধূমকেতুটিকে দেখা যাবে।

ড. পট্টনায়েক আরও জানান, ১৪ জুলাই ধূমকেতু ‘নিওওয়াইজ’ (Comet Neowise) উত্তর পশ্চিম আকাশে দিগন্তরেখা থেকে ২০ ডিগ্রি উপরে ছিল। যত দিন যাবে, ধূমকেতুটি ক্রমশ উপরে উঠে আসবে। এবং সূর্যাস্তের পর বেশিক্ষণ ধরে দেখা যাবে। ৩০ জুলাই ওই ধূমকেতু দিগন্তরেখার ৪০ ডিগ্রি উপরে থাকবে। সে দিন সূর্যাস্তের পর এক ঘণ্টা দেখা যাবে এই ধূমকেতুকে। এবং সপ্তর্ষিমণ্ডলের কাছে দৃশ্যমান থাকবে।

আগামী ২২ জুলাই এই ধূমকেতু পৃথিবীর সব চেয়ে কাছে আসবে। তখন পৃথিবী থেকে এর দূরত্ব থাকবে ১০৩ মিলিয়ন কিমি অর্থাৎ ১০ কোটি ৩০ লক্ষ কিমি।

জ্যোর্তিবিজ্ঞান বিষয়ক অনলাইন পত্রিকা ‘স্কাই অ্যান্ড টেলিস্কোপ’ বলেছে, ‘নিওওয়াইজ’কে দেখার সব চেয়ে ভালো সময় হল সূর্যাস্তের পর এক ঘণ্টা। পুরো অন্ধকার নামার আগে গোধূলির শেষটুকু রেশ যখন মিলিয়ে যায়, তখনই উত্তর-পশ্চিম আকাশে দেখা মিলবে ‘নিওওয়াইজ’-এর।       

Continue Reading
Advertisement
দেশ47 mins ago

কেরল সোনা পাচারকাণ্ড: সিনিয়র আইএএস অফিসারকে বরখাস্ত করলেন মুখ্যমন্ত্রী পিনারাই বিজয়ন

দেশ2 hours ago

জেলবন্দি কবি-সমাজকর্মী ভারাভারা রাও করোনা পজিটিভ

রাজ্য2 hours ago

রেকর্ড সংখ্যক নমুনা পরীক্ষার দিন রাজ্যে আক্রান্তের সংখ্যাতেও রেকর্ড, কমল মৃত্যুহার

বিদেশ3 hours ago

আবুধাবিতে শুরু চিনের করোনা ভ্যাকসিনের চূড়ান্ত পর্যায়ের পরীক্ষামূলক প্রয়োগ

দেশ4 hours ago

নির্দিষ্ট কয়েকটি দেশে ফের আন্তর্জাতিক উড়ান পরিষেবা চালু করছে কেন্দ্র

বিনোদন4 hours ago

অবশেষে নতুন এপিসোড নিয়ে সাব টিভির পর্দায় ফিরছে ‘তারক মেহকা উলটা চশমা’ও, জেনে নিন কবে থেকে

দেশ5 hours ago

অসমে বন্যা পরিস্থিতি ভয়াবহ, বিপন্ন কাজিরাঙার বন্যপ্রাণও

রাজ্য5 hours ago

আরও চার হাজার বেড বাড়ছে রাজ্যে, ঘোষণা মুখ্যমন্ত্রীর

কেনাকাটা

laptop laptop
কেনাকাটা1 day ago

ল্যাপটপ কিনবেন? দেখে নিন ২৫ হাজার টাকার মধ্যে এই ৫টি ল্যাপটপ

খবরঅনলাইন ডেস্ক : কোভিভ ১৯ অতিমারির প্রকোপে বিশ্ব জুড়ে চলছে লকডাউন ও ওয়ার্ক ফ্রম হোম। অনেকেই অফিস থেকে ল্যাপটপ পেয়েছেন।...

কেনাকাটা4 days ago

হ্যান্ডওয়াশ কিনবেন? নামী ব্র্যান্ডগুলিতে ৩৮% ছাড় দিচ্ছে অ্যামাজন

খবরঅনলাইন ডেস্ক : করোনাভাইরাস বা কোভিড ১৯ এর সঙ্গে লড়াই এখনও জারি আছে। তাই অবশ্যই চাই মাস্ক, স্যানিটাইজার ও হ্যান্ডওয়াশ।...

কেনাকাটা1 week ago

ঘরের একঘেয়েমি আর ভালো লাগছে না? ঘরে বসেই ঘরের দেওয়ালকে বানান অন্য রকম

খবরঅনলাইন ডেস্ক : একে লকডাউন তার ওপর ঘরে থাকার একঘেয়েমি। মনটাকে বিষাদে ভরিয়ে দিচ্ছে। ঘরের রদবদল করুন। জিনিসপত্র এ-দিক থেকে...

কেনাকাটা1 week ago

বাচ্চার জন্য মাস্ক খুঁজছেন? এগুলোর মধ্যে একটা আপনার পছন্দ হবেই

খবরঅনলাইন ডেস্ক : নিউ নর্মালে মাস্ক পরাটাই দস্তুর। তা সে ছোটো হোক বা বড়ো। বিরক্ত লাগলেও বড়োরা নিজেরাই নিজেদেরকে বোঝায়।...

নজরে