লন্ডন: মারিয়ানা খাতের ৬ মাইল নিচে বিজ্ঞানীরা পেলেন প্রাণের সন্ধান। সমুদ্রপৃষ্ঠের এতটা তলা থেকে সম্ভবত এই প্রথম প্রাণের সন্ধান পেলেন গবেষকরা। পৃথিবীর গভীরতম স্থান মারিয়ানা খাতের ৬ মাইল নীচ থেকে যে শিলার ভগ্নাংশ পাওয়া গিয়েছে, বিজ্ঞানীরা বলছেন, তা তৈরি হয়েছে জৈব পদার্থ থেকে। পৃথিবীপৃষ্ঠ থেকে অতটা তলায় রয়েছে যে শিলা, তার খবর বিজ্ঞানীরা পেলেন কী ভাবে? মারিয়ানা খাতের কাছাকাছি এক ‘মাড ভলক্যানো’র নিঃসরণের ফলে শিলার ভগ্নাংশ উঠে আসে অনেকটা ওপরে।

‘প্রসিডিং অব ন্যাশনাল অ্যাকাডেমি অব সায়েন্সেস’ ম্যাগাজিনে প্রকাশিত হয়েছে বিজ্ঞানীদের বিস্তারিত পর্যবেক্ষণ। নেদারল্যান্ডের উতরেখট বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষকরাই মূলত যুক্ত ছিলেন এই গবেষণার সঙ্গে। এখনও কোন বিশেষ প্রাণীর সন্ধান না পেলেও জৈব উপাদান পাওয়া গিয়েছে ওই শিলায়।  ৪৬টি শিলার স্যাম্পেলে পাওয়া গিয়েছে হাইড্রোকার্বন, অ্যামিনো অ্যাসিড এবং লিপিড। 

পর্যবেক্ষক দলের প্রধান অলিভার প্লাম্পার এই প্রসঙ্গে বলেছেন, “এর মধ্যে দিয়ে আমাদের গ্রহের একটা বৃহত্তর বায়োস্ফিয়ারের আভাস পাচ্ছি। যেটা খুব ছোটো হতে পারে, আবার বিশাল বড়োও হতে পারে। কিন্তু সেটা এমন কিছু, যার সম্পর্কে এখনও বিশেষ কিছুই জানা নেই আমাদের”।

জৈব উপাদানের উৎস সম্পর্কে বিজ্ঞানীরা এখনও নিশ্চিত নন। তবে এখনও পর্যন্ত বিজ্ঞানীদের অনুমান, সর্বোচ্চ ১২২ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রায় প্রাণের অস্তিত্ব থাকতে পারে। তা যদি সত্যি হয়, তবে মারিয়ানা খাতের তলার মাড ভলক্যানোর তাপমাত্রাও এর বেশি নয়।

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন