stephen hawkins passes away

ওয়েবডেস্ক : মহাকাশ বিজ্ঞান এমনকি সাধারণ বিজ্ঞানের প্রতিও কি আগ্রহ হারাচ্ছে যুবসমাজ?  বিজ্ঞান মানে কি তাদের কাছে হয়ে দাঁড়িয়েছে শুধু ‘কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তার’ উন্নতি বা কমপিউটার সায়েন্স? তেমনই হচ্ছে বলে মনে করছেন অধ্যাপক স্টিফেন হকিং। এই লক্ষণ যে মোটেই ভালো নয়, সে কথা স্পষ্ট বলেছেন তিনি।

এক অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখতে গিয়ে তিনি যুবসমাজের কাছে আরও বেশি বেশি করে মহাকাশ বিজ্ঞান এমনকি সাধারণ বিজ্ঞানে আগ্রহী হওয়ার আহ্বান জানান। তিনি বলেন, ‘‘যুবসমাজ যাতে আরও বেশি বেশি করে মহাকাশ বিজ্ঞান পড়ায় আগ্রহ দেখায় তার জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে হবে। তাদের জন্য একটি নতুন মহাকাশ যুগের প্রয়োজন। তা না হলে আগামী দিনে পরিস্থিতি ‘ভয়ংকর’ হবে।’’

মানুষের অস্তিত্ব নিয়ে বরাবরই চিন্তিত তিনি। বিভিন্ন সময় তাঁর বক্তব্যে, সাক্ষাৎকারে সেই ‘আশঙ্কা’র কথা প্রকাশও করেছেন তিনি। এ বার কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা নিয়ে তাঁর আশঙ্কা প্রকাশ করলেন পদার্থবিজ্ঞানী স্টিফেন হকিং। পৃথিবী যে দিকে এগোচ্ছে তাতে খুব শীঘ্রই রোবট সম্পূর্ণ ভাবে মানুষের জায়গা নিয়ে নেবে বলে তাঁর মত।

তাঁর মতে, ‘‘মানুষ যদি কমপিউটার ভাইরাস তৈরি করতে পারে, তা হলে সে আগামী দিনে কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তার এমন বিকাশ ঘটাবে, যে মানুষের জায়গা নিয়ে নেবে রোবট। এক বছর আগেও তিনি এক সাক্ষাৎকারে এমনই ইঙ্গিত দিয়েছিলেন।”

এর আগে তিনি এক সাক্ষাৎকারে বলেন, পৃথিবী যে দিকে যাচ্ছে তা হয়তো আমাদের খুব শীঘ্রই অন্য কোনো গ্রহে নিজেদের বাসস্থান খুঁজে নিতে হবে।

আরও পড়ুন : অনলাইনে প্রকাশিত হওয়ার দিন কয়েকের মধ্যেই ২০ লক্ষ ভিউ ছাড়াল স্টিফেন হকিং-এর গবেষণাপত্র 

অধ্যাপক হকিং বলেন, ‘‘আমার বিশ্বাস, আমরা যে জায়গায় পৌঁছে গিয়েছি সেখান থেকে আমাদের ফেরার কোনো পথ নেই।’’ তিনি  আরও বলেন, ‘‘ জনসংখ্যা বাড়ছে। পৃথিবীটা ক্রমশ ছোটো হয়ে যাচ্ছে আমাদের বাসবাসের জন্য। আমরা পরস্পরকে শেষ করে দেওয়ার বিপদের মুখে রয়েছি।’’

বক্তব্যে তিনি মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের বিরুদ্ধেও মুখ খোলেন। তিনি বলেন, ট্র্যাভেল ভিসা নিষিদ্ধকরণ, বিশ্ব আবহাওয়া পরিবর্তন চুক্তি সই না করে তিনি ঠিক করেননি।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here