Connect with us

বিজ্ঞান

আজ সব থেকে কাছে বৃহস্পতি-শনি, জেনে নিন কিছু তথ্য

সূর্যাস্তের পড় থেকেই দেখা যাবে দুই গ্রহকে।

Published

on

খবরঅনলাইন ডেস্ক: আজ, সোমবার এক অসাধারণ মহাজাগতিক ঘটনার সাক্ষী হতে চলেছি আমরা। এ দিন সব থেকে কাছাকাছি চলে আসবে সৌরজগতের সব থেকে বড়ো দু’টি গ্রহ— বৃহস্পতি এবং শনি।

সোমবার এমনিতেই ২১ ডিসেম্বর, দক্ষিণায়ণ। এই দিনই দিন সব চেয়ে ছোটো থাকে এবং রাত সব চেয়ে দীর্ঘ হয়। আর এই দিনই ঘটতে চলেছে এই অসাধারণ ঘটনা। নাসা বলেছে, ১৬২৩ সালের পর এই প্রথম এত কাছাকাছি আসতে চলেছে সৌরমণ্ডলের প্রথম এবং দ্বিতীয় বৃহত্তম গ্রহ দু’টি।

জেনে নিন কিছু তথ্য

১) কলকাতায় আজ, সোমবার সূর্যাস্ত হবে বিকেল ৪:৫৮-এ। সূর্যাস্তের পরে দক্ষিণ-পশ্চিম দিগন্তে দুই গ্রহকে খুব কাছাকাছি দেখা যাবে।

Loading videos...

২) তবে খুব কাছাকাছি থাকলেও দুই গ্রহের দূরত্ব ৭৩ কোটি কিলোমিটার।

৩) দু’টি গ্রহই থাকবে পরস্পরের থেকে ১/‌১০ ডিগ্রি দূরে।

৪) কলকাতায় সন্ধ্যা ৬টা থেকে ৬.৪৫ পর্যন্ত দু’টি গ্রহকে মোটামুটি স্পষ্ট দেখা যেতে পারে।

৫) টেলিস্কোপে বৃহস্পতির দু’একটি উপগ্রহও দেখা যেতে পারে।

৬) ২০৮০ সালের ১৫ মার্চ ফের এত কাছাকাছি চলে আসতে পারে দু’টি গ্রহ।

খবরঅনলাইনে আরও পড়তে পারেন

দেশে নতুন সংক্রমণ ফের ২৫ হাজারের নীচে, কমল সংক্রমণের হারও

বিজ্ঞান

এক দিন এখন ২৪ ঘণ্টার থেকেও কম, কারণটা জেনে নিন এখানে

চমকপ্রদ তথ্য উদ্ঘাটন করলেন বিজ্ঞানীরা। এখন আর এক দিনের দৈর্ঘ্য ২৪ ঘণ্টা নয়। কী ভাবে?

Published

on

খবর অনলাইন ডেস্ক: শেষ অর্ধশতকের তুলনায় পৃথিবী যত দ্রুত গতিতে ঘুরছে, ততই কমছে এক দিনের সময়সীমা। অর্থাৎ, শেষ পাঁচ দশক ধরে পৃথিবীর আবর্তনের গতি বৃদ্ধি পাওয়ার কারণেই গ্রহটির প্রতিটা দিনের মেয়াদ এখন ২৪ ঘণ্টার থেকেও কম!

ডেলি মেল -এর রিপোর্টে বলা বিজ্ঞানীদের মন্তব্য উদ্ধৃত করে বলা হয়েছে, এই চমকপ্রদ ঘটনাটির যথাযথ প্রমাণও পাওয়া গিয়েছে। বিজ্ঞানীরা জানিয়েছেন, পৃথিবীর আবর্তন স্বাভাবিকের চেয়ে দ্রুত গতির কারণেই বর্তমানে একটি দিনের দৈর্ঘ্য স্বাভাবিক ২৪ ঘণ্টার চেয়ে “অতিসামান্য” ছোটো হচ্ছে।

২০২০-র থেকে ছোটো হবে ২০২১?

২০২০ সালে সব থেকে ছোটো দিনের সংখ্যা ছিল ২৮টি। ১৯৬০ সালের পর থেকে যা সব থেকে বেশি। এমনকী ২০২১ সাল আরও ছোটো হতে পারে বলে পূর্বাভাস মিলেছে।

Loading videos...

সময় এবং তারিখ অনুযায়ী, সূর্যের প্রতি গড় হিসাবে পৃথিবী প্রতি ৮৬,৪০০ সেকেন্ডে একবারে ঘোরে, যা ২৪ ঘণ্টা বা একটি অর্থ সৌর দিনের সমান।

বিজ্ঞানীদের ধারণা, ২০২১ সালের গড় দিনটি ৮৬,৪০০ সেকেন্ডের চেয়ে ০.০৫ মিলি সেকেন্ড কম হবে। ১৯৬০ সাল থেকে দিনের দৈর্ঘ্যের অতি-সুনির্দিষ্ট রেকর্ড রেখে চলা পারমাণবিক ঘড়িগুলি পুরো বছর ধরে প্রায় ১৯ মিলিসেকেন্ডের ব্যবধান তৈরি করবে।

কী ভাবে সময় কমছে

লাইভ সায়েন্সের একটি প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, “রেকর্ডে সব চেয়ে দ্রুততম ২৮টা দিন (১৯৬০ সাল থেকে) দেখা গিয়েছিল ২০২০ সালে। কারণ, ওই দিনগুলিতে পৃথিবী নিজের অক্ষের চারপাশে ঘূর্ণনগুলি গড়ের থেকে প্রায় মিলিসেকেন্ড সময় দ্রুত সম্পন্ন করে।”

পারমাণবিক ঘড়ির হিসেব অনুযায়ী, গত ৫০ বছর ধরে পৃথিবী একটি ঘূর্ণন সম্পন্ন করতে ২৪ ঘণ্টার (৮৬,৪০০ সেকেন্ড) চেয়ে কিছুটা কম সময় নিয়েছে।

ডেলি মেলের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ১৯২০ সালের ২০ জুলাই পৃথিবীতে সব চেয়ে সংক্ষিপ্ত দিনটি রেকর্ড করা হয়েছিল (যেহেতু ওই দিনেই রেকর্ড শুরু হয়েছিল)। ওই দিনটি ছিল ২৪ ঘণ্টার চেয়ে ১.৪৬০২ মিলি সেকেন্ড কম।

পরিসংখ্যান অনুযায়ী, ২০২০ সালের আগে সব থেকে ছোটো দিন রেকর্ড হয়েছিল ২০০৫ সালে। তবে গত বছরের ১২টি মাসে সেই রেকর্ড ২৮ বার ভেঙে গিয়েছে। উল্লেখ্য, ইন্টারন্য়াশনাল আর্থ রোটেশন অ্যান্ড রেফারেন্স সিস্টেম সার্ভিস (আইইআরএস) আনুষ্ঠানিক ভাবে পৃথিবীর একটি দিনের দৈর্ঘ্য পরিমাপ করে।

আরও পড়তে পারেন: কোভিড-১৯ ভ্যাকসিনগুলি কি করোনাভাইরাসের নতুন স্ট্রেনে কাজ করবে?

Continue Reading

বিজ্ঞান

কোভিড-১৯ ভ্যাকসিনগুলি কি করোনাভাইরাসের নতুন স্ট্রেনে কাজ করবে?

কী বলছেন বিজ্ঞানীরা?

Published

on

খবর অনলাইন ডেস্ক: ক্রমশ ছড়াচ্ছে করোনার নতুন স্ট্রেন। ভারতে এখনও পর্যন্ত ছ’জনের শরীরে করোনার এই নতুন সংক্রামক রূপের সন্ধান মিললেও কেন্দ্রীয় সরকার জানিয়েছে, আতঙ্কের কিছু নেই। কিন্তু সাধারণ মানুষের মনে একটা প্রশ্ন উঁকি দিচ্ছে, কোভিড-১৯ ভ্যাকসিনগুলি করোনাভাইরাসের নতুন সংক্রামক রূপটিতে কাজ করবে তো?

বিশেষজ্ঞদের ধারণা

আমেরিকা, ব্রিটেনের মতো বেশ কয়েকটি দেশে করোনার টিকাকরণ ইতিমধ্যেই শুরু হয়ে গিয়েছে। এমন পরিস্থিতিতে বিশেষজ্ঞদের বিশ্বাস, নতুন স্ট্রেনটির বিরুদ্ধে ভ্যাকসিনগুলি কাজ করবে। তবে এ ব্যাপারে নিশ্চিত হওয়ার জন্য আরও পর্যবেক্ষণ এবং পরীক্ষানিরীক্ষার প্রয়োজনীয়তার কথা তুলে ধরছেন তাঁরা।

লন্ডনের এক গবেষক জেরেমি ফারার জানান, নতুন স্ট্রেনে আক্রান্ত হলেও সুস্থ হয়ে ওঠা সম্ভব। ভ্যাকসিনও এর বিরুদ্ধে কার্যকরী ভূমিকা পালন করবে।

Loading videos...

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের শীর্ষ সংক্রামক রোগ বিশেষজ্ঞ ডা. অ্যান্টনি ফাউসি বলেছেন, ব্রিটেন থেকে আসা তথ্যগুলি ইঙ্গিত দিচ্ছে ভ্যাকসিনগুলি নতুন ভাইরাসটিকেও প্রতিহত করতে পারে। তবে আমেরিকা যুক্তরাষ্ট্রও পরীক্ষার মাধ্যমে তা নিশ্চিত করবে।

কেন এই প্রত্যাশা

কোনো জনসংখ্যা থেকে ভাইরাসগুলি খুবই ক্ষুদ্র পরিসরে নিজেদের পরিবর্তন করতে পারে। পরিবর্তনগুলি সামান্য হলেও বিজ্ঞানীরা ভাইরাসের গতিবিধি বা বিস্তার শনাক্ত করতে পারেন।

কিন্তু যদি কোনো ভাইরাস উল্লেখযোগ্য ভাবে পরিবর্তিত হয়, তা হলে সেটা একটি উদ্বেগের কারণ হয়ে দাঁড়ায়। সে ক্ষেত্রে ভ্যাকসিনগুলি সে ভাবে সুরক্ষা দিতে পারে না।

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের কোভি -১৯ ভ্যাকসিন পরিচালনমণ্ডলীর প্রধান বিজ্ঞান উপদেষ্টা মনসেফ স্লাওই বলেছেন, “আমরা প্রত্যাশা করছি, এটা কোনো সমস্যার কারণ হয়ে দাঁড়াবে না”।

একটি গবেষণা জানিয়েছে, মোডের্না, ফাইজার, অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রোজেনেকার তৈরি তিনটি ভ্যাকসিন করোনার নতুন স্ট্রেনের বিরুদ্ধে লড়াই করতে সক্ষম। তবে ভাইরাস যদি বৃহত্তর চরিত্র বদল করে, তা হলে ভ্যাকসিন পরিবর্তনেরও প্রয়োজন হতে পারে। সে ক্ষেত্রের ভাইরাসের নতুন সংক্রামক রূপকে প্রতিহত করার ভ্যাকসিনের রদবদল ঘটাতে হবে। কিন্তু আপাতত তেমন কোনো ইঙ্গিত মেলেনি।

আরও পড়তে পারেন: আপনি যদি ইতিমধ্যেই কোভিডে আক্রান্ত হন, তা হলেও কি ভ্যাকসিন নিতে হবে?

Continue Reading

বিজ্ঞান

২০২০ সালের ২১ জুন পৃথিবী ধ্বংস হয়নি, পূর্বাভাস ভুল হওয়ার পরে নতুন তারিখ ঘোষণা করলেন বিশেষজ্ঞরা

মনে আছে, মায়া ক্যালেন্ডার বলেছিল, ২০১২-তেই পৃথিবীর বিনাশ নিশ্চিত?

Published

on

ওয়েবডেস্ক: ভবিষ্যদ্বাণীতে বলা হয়েছিল, ২০২০ সালের ২১ জুন পৃথিবী ধ্বংস হয়ে যাবে। কিন্তু সাড়ে পাঁচ মাস কেটে যাওয়ার পরেও পৃথিবী এবং পৃথিবীর বাসিন্দারা বহাল তবিয়তে রয়েছে। করোনায় মানুষ ক্ষতিগ্রস্ত হলেও বাকি সব অটুট। ফলে নতুন গবেষণায় পৃথিবীর অস্তিত্ব লোপের নতুন দিন ঘোষণা করলেন গবেষকরা।

২০২০ সাল এখন প্রায় শেষ লগ্নে। প্রত্যেকের মনেই এই বছরটি নিয়ে বিভিন্ন রকমের প্রত্যাশা ছিল। কিন্তু জানুয়ারি মাসেও কেউ জানতেন না, সারা পৃথিবী এ বছর করোনাভাইরাস অতিমারিরর মুখোমুখি হবে। এমন একটি অতিমারি, যা লক্ষ লক্ষ জীবনকে গ্রাস করেছে।

এই অতিমারির কবলে পড়েছে বিশ্বঅর্থনীতিও। কোটি কোটি টাকার ক্ষতি। ভ্যাকসিন নিয়ে বিভিন্ন রকমের খবর শোনা গেলেও এখনও পর্যন্ত এই রোগ থেকে পুরোপুরি নিষ্কৃতি পাওয়ার কথা চিন্তাভাবনার বাইরে। এখনও পর্যন্ত কোনো ওষুধও মেলেনি।

Loading videos...

এর আগে কী বলা হয়েছিল?

তবে শুধু করোনাভাইরাস নয়, মানুষকে ঝামেলায় ফেলেছে জ্যোতির্বিদ্যা সংক্রান্ত ঘটনাও। বারবার পৃথিবীর আশপাশ দিয়ে পার হয়ে গিয়েছে উল্কাপিণ্ড। মায়া ক্যালেন্ডার অনুযায়ী, ২০১২-তেই পৃথিবীর বিনাশ নিশ্চিত ছিল। কিন্তু বাস্তবে এই ভবিষ্যদ্বাণী ভুল প্রমাণিত হয়েছে। এর পরেও বিশেষজ্ঞরা পৃথিবী ধ্বংসের নতুন তারিখ ঘোষণা করে চলেছেন।

পৃথিবী শেষ হয়ে যাওয়ার ভবিষ্যদ্বাণী নতুন নয়। আসলে যখনই পৃথিবীর পাশ দিয়ে উল্কাপিণ্ড ছুটে যায়, তখনই এ ধরনের ভবিষ্যদ্বাণীগুলি সামনে চলে আসে। কিন্তু এখনও পর্যন্ত যত বার এ ধরনের ভবিষ্যদ্বাণী করা হয়েছে, প্রত্যেক বারই তা ভুল প্রমাণিত হয়েছে।

গত বছর যেমন বলা হয়েছিল, ২১ জুন, ২০২০ পৃথিবী ধ্বংস হয়ে যাবে। ওই তারিখ পার হয়েছে প্রায় সাড়ে পাঁচ মাস আগে। পৃথিবী কিন্তু নিজের মতোই রয়েছে। ফলে আবার বাজারে এল নতুন তারিখ!

এ বার কী বলা হচ্ছে?

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, ২০৫০ সালের মধ্যে পৃথিবীর অস্তিত্ব বিলীন হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। চলতি বছরে অনেক গবেষণা করার পরে নতুন এই সময় বেছে নেওয়া হয়েছে। এ ছাড়াও বেশ কয়েকটি বিষয়ও বিবেচনায় রাখা হয়েছিল। এটাকে এখনও পর্যন্ত সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ গবেষণা হিসাবে বর্ণনা করা হচ্ছে।

গবেষণাটি অস্ট্রেলিয়ান থিঙ্ক ট্যাঙ্ক ন্যাশনাল সেন্টার ফর ক্লাইমেট রিস্টোরেশনের তরফে করা হয়েছে। গবেষকরা দাবি করেছে, মানব সভ্যতা আর তিন দশকের বেশি টিকে থাকবে না। এর নেপথ্যে জলবায়ু পরিবর্তনকে কারণ হিসাবে উল্লেখ করা হয়েছে।

গবেষকদের দাবি, ২০৫০ সালে পৃথিবীর তাপমাত্রা ৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস পর্যন্ত বেড়ে যাবে। এতে মানব সভ্যতার বিলুপ্ত হওয়ার সম্ভাবনা থাকছে। ২০৫০ সালে এর জোরালো প্রভাব পড়তে চলেছে। কৃষি উৎপাদন প্রায় এক পঞ্চমাংশ হ্রাস পাবে। এ ছাড়া সমুদ্রের স্তর .৫ মিটার পর্যন্ত বাড়তে পারে। অ্যামাজনের ইকোসিস্টেমও ধ্বংস হয়ে যেতে পারে।

একাংশের মতে, বিখ্যাত বিজ্ঞানী স্টিফেন উইলিয়াম হকিং-ও পৃথিবীর আয়ুর পূর্বাভাস দিয়েছিলেন। তিনি বলেছিলেন, ৬০০ বছরের মধ্যে পৃথিবী আগুনের গোলকে পরিণত হবে। তিনি দাবি করেছিলেন, জনসংখ্যা এত বাড়বে যে পৃথিবী উত্তপ্ত হয়ে উঠবে। পৃথিবীতে অ্যাসিড বৃষ্টিও হতে পারে, যা বিশ্ব বিনাশের কারণ হয়ে দাঁড়াতে পারে।

আরও পড়তে পারেন: কোভিড-১৯ সতর্কতা! রোগীদের উপর প্রকট হচ্ছে বিরল ছত্রাকের সংক্রমণ

Continue Reading
Advertisement
Advertisement
পূর্ব মেদিনীপুর52 mins ago

আরও বিধায়ক তৃণমূল ছাড়বেন, তাঁদের আসনেও কি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় লড়বেন, প্রশ্ন শুভেন্দু অধিকারীর

রাজ্য57 mins ago

রাজ্যে দৈনিক সংক্রমণের হার নেমে এল ১.১৬ শতাংশে

দেশ2 hours ago

১০ দিনে করোনা টিকা নিলেন ২০ লক্ষের বেশি স্বাস্থ্যকর্মী! কোন রাজ্যে কত

দেশ3 hours ago

কৃষক বিক্ষোভে উত্তাল দিল্লি, পরিস্থিতি মোকাবিলায় অতিরিক্ত আধা সেনা

প্রযুক্তি5 hours ago

টিকটক-সহ ৫৯টি চিনা অ্যাপ চিরতরে বন্ধ করে দিল কেন্দ্র

marchpast of black cat commando
দেশ5 hours ago

দিল্লিতে সাধারণতন্ত্র দিবসে নজিরবিহীন প্যারেড, প্রদর্শনীতে এই প্রথম রাফাল, নজর কাড়ল পশ্চিমবঙ্গের ‘সবুজসাথী’

কলকাতা5 hours ago

উত্তর কলকাতার অলিতেগলিতে লুকিয়ে রয়েছে ইতিহাস, সাধারণতন্ত্র দিবসে হেঁটে দেখা

সাংবাদিক বৈঠকে প্রবীর ঘোষাল
রাজ্য6 hours ago

দলের সমস্ত পদ ছেড়ে বিস্ফোরক তৃণমূল বিধায়ক প্রবীর ঘোষাল

শরীরস্বাস্থ্য3 days ago

থাইরয়েড ধরা পড়েছে? এই খাবারগুলি সম্পর্কে সচেতন হন

রাজ্য2 days ago

তৃণমূলে যোগ দিলেন অভিনেত্রী কৌশানী মুখোপাধ্যায়, প্রিয়া সেনগুপ্ত

ফুটবল1 day ago

বিমান দুর্ঘটনায় মৃত্যু ব্রাজিলের ফুটবল ক্লাবের প্রেসিডেন্ট ও চার ফুটবলারের

রাজ্য2 days ago

উন্নয়ন দেখাতে ‘ছানিশ্রী’ প্রকল্প করবে সরকার, বিজেপিকে কটাক্ষ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের

প্রযুক্তি3 days ago

৪২ শতাংশ কিশোরী দিনে এক ঘণ্টারও কম সময় মোবাইল ফোন ব্যবহারের সুযোগ পায়: সমীক্ষা

election
রাজ্য2 days ago

রাজ্যে আসতে পারে এক লক্ষ আধা সেনা

ladakh standoff
দেশ2 days ago

সীমান্ত বিতর্কে নবম দফার বৈঠকে ভারত, চিন

কলকাতা1 day ago

নারকেলডাঙার ছাগলপট্টিতে আগুন, হতাহতের খবর নেই

কেনাকাটা

কেনাকাটা3 days ago

বাসন্তী রঙের পোশাক খুঁজছেন?

খবরঅনলাইন ডেস্ক: সামনেই আসছে সরস্বতী পুজো। সেই দিন হলুদ বা বাসন্তী রঙের পোশাক পরার একটা চল রয়েছে অনেকের মধ্যেই। ওই...

কেনাকাটা3 days ago

ঘরদোরের মেকওভার করতে চান? এগুলি খুবই উপযুক্ত

খবরঅনলাইন ডেস্ক: ঘরদোর সব একঘেয়ে লাগছে? মেকওভার করুন সাধ্যের মধ্যে। নাগালের মধ্যে থাকা কয়েকটি আইটেম রইল অ্যামাজন থেকে। প্রতিবেদন লেখার...

কেনাকাটা4 days ago

সিলিকন প্রোডাক্ট রোজের ব্যবহারের জন্য খুবই সুবিধেজনক

খবরঅনলাইন ডেস্ক: নিত্যপ্রয়োজনীয় বিভিন্ন সামগ্রী এখন সিলিকনের। এগুলির ব্যবহার যেমন সুবিধের তেমনই পরিষ্কার করাও সহজ। তেমনই কয়েকটি কাজের সামগ্রীর খোঁজ...

কেনাকাটা5 days ago

আরও কয়েকটি ব্র্যান্ডেড মেকআপ সামগ্রী ৯৯ টাকার মধ্যে

খবরঅনলাইন ডেস্ক: আজ রইল আরও কয়েকটি ব্র্যান্ডেড মেকআপ সামগ্রী ৯৯ টাকার মধ্যে অ্যামাজন থেকে। প্রতিবেদন লেখার সময় যে দাম ছিল...

কেনাকাটা5 days ago

রান্নাঘরের এই সামগ্রীগুলি কি আপনার সংগ্রহে আছে?

খবরঅনলাইন ডেস্ক: রান্নাঘরে বাসনপত্রের এমন অনেক সুবিধেজনক কালেকশন আছে যেগুলি থাকলে কাজ অনেক সহজ হয়ে যেতে পারে। এমনকি দেখতেও সুন্দর।...

কেনাকাটা6 days ago

৫০% পর্যন্ত ছাড় রয়েছে এই প্যান্ট্রি আইটেমগুলিতে

খবরঅনলাইন ডেস্ক: দৈনন্দিন জীবনের নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসগুলির মধ্যে বেশ কিছু এখন পাওয়া যাচ্ছে প্রায় ৫০% বা তার বেশি ছাড়ে। তার মধ্যে...

কেনাকাটা1 week ago

ঘরের জন্য কয়েকটি খুবই প্রয়োজনীয় সামগ্রী

খবরঅনলাইন ডেস্ক: নিত্যদিনের প্রয়োজনীয় ও সুবিধাজনক বেশ কয়েকটি সামগ্রীর খোঁজ রইল অ্যামাজন থেকে। প্রতিবেদনটি লেখার সময় যে দাম ছিল তা-ই...

কেনাকাটা2 weeks ago

৯৯ টাকার মধ্যে ব্র্যান্ডেড মেকআপের সামগ্রী

খবর অনলাইন ডেস্ক : ব্র্যান্ডেড সামগ্রী যদি নাগালের মধ্যে এসে যায় তা হলে তো কোনো কথাই নেই। তেমনই বেশ কিছু...

কেনাকাটা3 weeks ago

কয়েকটি ফোল্ডিং আইটেম খুবই কাজের

খবরঅনলাইন ডেস্ক: এমন অনেক কিছুই থাকে যেগুলি সঙ্গে থাকলে অনেক সুবিধে হত বলে মনে হয়, কিন্তু সব সময় তা পাওয়া...

কেনাকাটা3 weeks ago

রান্নাঘরের কাজ এগুলি সহজ করে দেবেই

খবরঅনলাইন ডেস্ক: রান্নাঘরের কাজ অনেক বেশি সহজ করে দিতে পারে যে সমস্ত জিনিস, তারই কয়েকটির খোঁজ রইল অ্যামাজন থেকে। প্রতিবেদন...

নজরে