30 C
Kolkata
Friday, June 18, 2021

প্রথম এবং দ্বিতীয় ডোজে ২টো আলাদা ভ্যাকসিন নিলে কী ঘটবে, জানাল গবেষণা

আরও পড়ুন

খবর অনলাইন ডেস্ক: করোনা প্রতিরোধে এখনও পর্যন্ত ব্যবহৃত বেশির ভাগ ভ্যাকসিনেরই দু’টি ডোজ নিতে হয়। কিন্তু কেই যদি ভুল করে প্রথম এবং দ্বিতীয় ডোজে ২টো আলাদা ভ্যাকসিন নিয়ে ফেলেন, তা হলে কী হবে?

সম্প্রতি একটি গবেষণায় দাবি করা হয়েছে, প্রথম এবং দ্বিতীয় ডোজে শীর্ষস্থানীয় দু’টি পৃথক ভ্যাকসিন নেওয়ার পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া হিসেবে ক্লান্তি এবং মাথাব্যথার মতো কিছু সমস্যা দেখা দিতে পারে। তবে এ ভাবে কোনো এক জন ব্যক্তির ক্ষেত্রে দু’টি আলাদা ভ্যাকসিনের মিশ্রণ ভাইরাস মোকাবিলায় কতটা কার্যকর, সে বিষয়ে সিদ্ধান্তে পৌঁছানো যায়নি।

Loading videos...
- Advertisement -

অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষকরা এই পরীক্ষা চালিয়েছেন। গবেষণাপত্রটি প্রকাশিত হয়েছে বিজ্ঞান বিষয়ক পত্রিকা দ্য ল্যানসেট-এ। গবেষকরা দাবি করেছেন, কোনো ব্যক্তি প্রথম ডোজে অ্যাস্ট্রাজেনেকার ভ্যাকসিন নেওয়ার পর চার সপ্তাহ পরে দ্বিতীয় ডোজে ফাইজারের কোভিড ভ্যাকসিন নিয়ে ক্ষণস্থায়ী কিছু পার্শ্বপ্রতিক্রিয়ার কথা জানিয়েছেন। এই পার্শ্বপ্রতিক্রিয়ার বেশির ভাগই মৃদু।

মিশ্র ভ্যাকসিনের ব্যবহার

বিশ্বের মধ্য এবং নিম্ন আয়ের বেশ কিছু দেশ দু’টি পৃথক ভ্যাকসিনের মিশ্র প্রয়োগ নিয়ে আগ্রহী। তাতে টিকাকরণ প্রক্রিয়া সাশ্রয়কর হতে পারে বলে অনুমান। স্বভাবতই গবেষক এবং জনস্বাস্থ্য আধিকারিকরা বিষয়টি নিয়ে পরীক্ষা চালাচ্ছেন। ইতিমধ্যেই বেশ কিছু দেশে দু’টি পৃথক ভ্যাকসিন প্রয়োগ করাও হয়েছে। সরকারের ভ্যাকসিন মজুতের পরিমাণের কথা মাথায় রেখেই এই উদ্যোগ নেওয়া হয়।

উদাহরণ হিসেবে বলা যেতে পারে, ফ্রান্সে বয়স্ক রোগীদের জন্য প্রথম ডোজ হিসেবে অ্যাস্ট্রাজেনেকার ভ্যাকসিন দেওয়া হয়েছিল। পরে এটা নিষিদ্ধ করার পর তাঁদের দ্বিতীয় ডোজে ফাইজার এবং বায়োনেটেক এসই-র সরবরাহ করা টিকা দেওয়া হচ্ছে।

অন্যদিকে মিশ্র ভ্যাকসিনের গবেষণায় অংশগ্রহণকারীদের বয়সের গড় ছিল ৫০ বছর অথবা তার বেশি। সে ক্ষেত্রে সতর্কতাবাণী শুনিয়ে রেখেছেন গবেষকরা। কারণ, অপেক্ষাকৃত কম বয়সিদের মধ্যে এই ঘটনা কতটা প্রভাব ফেলবে, সে বিষয়টি এখনও অজানা।

গবেষণার ফলাফল

গবেষণায় নেতৃত্ব দেওয়া অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের শিশুরোগ বিশেষজ্ঞ এবং ভ্যাকসিনোলজির অধ্যাপক ম্যাথিউ স্ন্যাপ জানিয়েছেন “নিছকই অনুসন্ধিৎসার জন্যই এই গবেষণা। তবে এমন কিছু নয়, যা আমরা প্রয়োজনীয় ভাবে প্রত্যাশা করছিলাম”।

গবেষণায় কোনো গুরুতর সুরক্ষা সংক্রান্ত ইস্যু ধরা পড়েনি। আবার যাঁদের মধ্যে কোনো ভারী পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া দেখা গিয়েছিল, সেগুলোও কয়েক দিনের মধ্যে মিলিয়ে গিয়েছিল। গবেষকদের দাবি, এক টিকার দু’টি ডোজ নেওয়া ব্যক্তিদের মাত্র ৩ শতাংশের মধ্যে এই পার্শপ্রতিক্রিয়াগুলি দেখা যায়। কিন্তু মিশ্র ডোজ নেওয়া ব্যক্তিদের প্রায় ১০ শতাংশ প্রচণ্ড ক্লান্তি বা মাথাব্যথার অভিযোগ করেছেন।

কিন্তু মিশ্র ভ্যাকসিনের ব্যবহারে রোগপ্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ে কি না অথবা তা আদৌ করোনা মোকাবিলা করতে সক্ষম কি না, সে ব্যাপারে এখনও কোনো তথ্য প্রকাশ করতে পারেননি গবেষকরা।

আরও পড়তে পারেন: কোভিড থেকে সুস্থ হয়ে ওঠার অন্তত ৬ মাস পর আক্রান্তদের টিকা দেওয়ার প্রস্তাব সরকারি প্যানেলের

- Advertisement -

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

- Advertisement -

আপডেট

মুকুল রায়কে সামনে রেখে শুভেন্দু অধিকারীকে চাপে ফেলে দিলেন কুণাল ঘোষ

মুকুল রায়কে নিয়ে এত দৌড়াদৌড়ির কী আছে, বাড়িতে গিয়ে বাবাকে বলতে পারেন শুভেন্দু, বললেন কুণাল!

পড়তে পারেন