2020-QG

পৃথিবীর থেকে মাত্র ২,৯৫০ কিলোমিটার দূর দিয়ে চলে গেল একটি সিইউভি গাড়ির সাইজের গ্রহাণু (asteroid)। মঙ্গলবার এ খবর জানিয়েছে নাসা।

২০২০ কিউজি (2020-QG) নামের গ্রহাণুটির দৈর্ঘ্য ১০ থেকে ২০ ফুট বলে জানা গিয়েছে। ৮ মাইল প্রতি সেকেন্ড গতিতে গ্রাহণুটি পৃথিবীর কাছ দিয়ে গিয়েছে। যে কক্ষপথে টেলিকমিউনিকেশন স্যাটেলাইটগুলি চলে।

পৃথিবীতে আছড়ে পড়লে কী হতো?

গ্রহাণুটি পৃথিবীতে আছড়ে পড়লে পৃথিবীর তেমন কোনো ক্ষতির সম্ভাবনা ছিল না। নাসার জেট প্রোপুলশন ল্যাবোরেটারি (Jet Propulsion Laboratory) জানিয়েছে, পৃথিবীর বায়ুমণ্ডলের সঙ্গে সংঘর্ষে আকাশে ‘আগুনের গোলা’ তৈরি হতো এবং পৃথিবীর বায়ুমণ্ডলের সঙ্গে সংঘর্ষে তারা খসার (meteor) মতো ক্ষুদ্র খন্ডে ভেঙে পৃথিবীতে পড়ত।

পৃথিবীর কাছাকাছি আসার প্রায় ৬ ঘণ্টা পর এটি নজরে আসে ক্যালিফোর্নিয়া ইনস্টিটিউট অফ টেকনোলজির টেলিস্কোপ।

{ক্যালিফোর্নিয়ার সান দিয়েগো কাউন্টিতে পালোমার অবজারভেটরি। ছবি: স্কাই নিউজ]

আগেও কী এ রকম গ্রহাণু পৃথিবীর কাছে এসেছিল?

মার্কিন স্পেস এজেন্সি জানিয়েছে, প্রতিবছর এরকম আকারের একাধিক গ্রহাণু একই কক্ষপথ দিয়ে চলে যায়। কিন্তু, পৃথিবী দিকে সরাসরি তাদের মুখ না থাকলে তাদের সম্পর্কে জানা বেশ কঠিন।

নাসার লক্ষ্য

নাসার মূল লক্ষ্য হল ৪৬০ ফুট দৈর্ঘ্যের কোনো গ্রহাণু পৃথিবীর দিকে ধেয়ে আসছে কিনা সে দিকে নজর রাখা। কারণ, এই আকারের গ্রহাণু পৃথিবীর বড়সড় ক্ষতি করতে পারে।

সেদিকে নজর রেখে রাখতেই বিভিন্ন যন্ত্রপাতি বসানো হয়েছে।

বিজ্ঞানের আরও নানা খবর পড়তে এখানে ক্লিক করুন।

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন