ওয়েবডেস্ক:  মৃত্যু নিয়ে বিজ্ঞানে গবেষণার শেষ নেই। আধুনিক চিকিৎসা বিজ্ঞান মৃত্যুকে বেশ কিছুটা সময় ঠেকিয়ে রাখতে সক্ষম হয়েছে, এ কথা অনস্বীকার্য। তবে কিনা, ঘটনাটাকে তো বদলাতে পারেনি কোনও প্রযুক্তিই। জন্মের মতোই স্বাভাবিক এই সত্যিটাকে নিয়েই গবেষকরা চালাচ্ছেন তাঁদের পরীক্ষা নিরীক্ষা। সম্প্রতি একদল বিজ্ঞানীর গবেষণার ফলাফল বলছে, মৃত্যুর পরেও নাকি বেশ কিছু সময় আমাদের মন সচেতন থাকে। অর্থাৎ শরীরে প্রাণের কোনও সাড়া থাকে না, কিন্তু সচেতনতা থাকে।

ঠিক কোন সময় একজনকে মৃত ঘোষণা করা হয়? যেই মুহূর্তে হৃদযন্ত্র বন্ধ হয়ে যায়। প্রায় সাথে সাথেই মস্তিষ্কে রক্ত চলাচলও বন্ধ হয়ে যায়। স্বাভাবিক ভাবেই কাজ করা বন্ধ করে মস্তিস্ক। “এই সব লক্ষণগুলো পর্যবেক্ষণ করে আমরা মৃত্যুর সময় ঘোষণা করি। কিন্তু এটা পরীক্ষিত সত্য, মস্তিষ্কে আগে থেকে শক্তি সঞ্চিত থাকে। তার ফলে শরীরের মৃত্যু ঘটলেও মস্তিষ্ক আরও খানিকক্ষণ সচেতন থাকতে পারে”, বললেন নিউ ইয়র্ক বিশ্ববিদ্যালয়ের ‘ক্রিটিকাল কেয়ার অ্যান্ড রিসাসকিটেশন রিসার্চ’-এর ডিরেক্টর ডঃ স্যাম পারিনা।

ডঃ পারিনা এবং তাঁর দলের অন্য সদস্যরা মিলে বিপুল সংখ্যক মানুষের ওপর গবেষণা চালান। সেইসব মানুষ, যারা হৃদরোগে আক্রান্ত হয়েছেন, প্রায় মৃত্যুর মুখ থেকে ফিরে এসেছেন। গবেষণার ফলাফল বলছে, চিকিৎসক আপনার পরিবারের সদস্যের কাছে আপনার মৃত্যু সংবাদ দিচ্ছেন এবং আপনি সচেতন ভাবে তা শুনে উপলব্ধি করতে পারছেন, শুনতে আশ্চর্য হলেও এমন ঘটনা অসম্ভব নয়।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here