ইংল্যান্ডের পর ওয়েস্ট ইন্ডিজ বধ, মানধানার জাদুতে জারি মিতালীদের রাজ

0
1064

ওয়েস্ট ইন্ডিজ ১৮৩-৮ (ম্যাথিউজ ৪৩, ফ্লেচার ৩৬ অপরাজিত পুনম যাদব ২-১৯)

ভারত ১৮৬-৩ (মানধানা ১০৬ অপরাজিত, মিতালী ৪৬, কোনেল ১-২৩)

টাউনটন: গত ডিসেম্বরে আইসিসির বিশ্ব একাদশে স্থান পেয়েছেন বছর কুড়ির ভারতীয় ওপেনার স্মৃতি মানধানা। সেই নির্বাচনে যে আদৌ কোনো ভুল ছিল না, তা বারবার প্রমাণ করছেন স্মৃতি। গত ম্যাচেই ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে তাঁর ব্যাট থেকে বেরোনো দুরন্ত ৯০ রানের ইনিংসের সুবাদে ইংল্যান্ডকে উড়িয়ে দিয়েছিল ভারত। এ বার, তাঁর সৌজন্যেই ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিরুদ্ধেও জিতে গেল ভারত।

তবে বৃহস্পতিবার মানধানার আগে কাজের কাজটি সেরে দেন ভারতের বোলাররা, বিশেষ করে স্পিনাররা। টসে জিতে এ দিন ফিল্ডিং-এর সিদ্ধান্ত নেন মিতালী। প্রথম দিকে ওয়েস্ট ইন্ডিজের ব্যাটসউয়োম্যানরা ভালো শুরু করেছিলেন। কিন্তু স্পিনাররা আক্রমণে আসতেই হ্রাস পড়ে যায় ওয়েস্ট ইন্ডিজের রানের গতিতে।

দুর্দান্ত বোলিং করেন পুনম যাদব। দশ ওভারে ১৯ রান দিয়ে দুই উইকেট নেন তিনি। তবে পুনম ছাড়াও দু’টি করে উইকেট পান দীপ্তি শর্মা এবং হরমনপ্রীত কৌর। নবম উইকেটে ৩৭ রানের ভালো একটা পার্টনারশিপের সুবাদে ভদ্রস্থ রানে পৌঁছোয় তারা।

জবাবে ব্যাট করতে নেমে শুরুতেই দু’টো উইকেট খুইয়ে কিছুটা চাপে পড়েছিল ভারত। কিন্তু মিতালী রাজ নামতেই ঘুরে দাঁড়ায় ভারত। মানধানা আগের দিনের মতো আগ্রাসী ভাবে শুরু না করলেও, যথেষ্ট সাবলীল ভাবে খেলেন। অন্ যদিকে ভালো খেলছিলেন মিতালীও।

দু’জনের মধ্যে ১০৮ রানের পার্টনারশিপ হওয়ার পরেই জুটিটা ভেঙে যায়। চার রানের জন্য অর্ধশতরান ফস্কান তিনি। তবে আগের দিনের মতো ভুল করেননি স্মৃতি। তাঁর ব্যাট থেকে আসে দুর্দান্ত শতরান। এটি তাঁর কেরিয়ারের দ্বিতীয় শতরান।

বিশ্ব র‍্যাঙ্কিং-এ পাঁচ নম্বরে থাকা ভারত, তার ওপরে থাকা দুই দলকে হারিয়ে সেমি ফাইনালের দিকে অনেকটাই পা বাড়িয়ে নিল এখনই বলে দেওয়া যায়। ভারতের পরের ম্যাচ রবিবার, চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী পাকিস্তানের বিরুদ্ধে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here