sports-2017
১. মীরাবাই চানু

রিও অলিম্পিকে হাতাশাজনক পারফরম্যান্সের পর দারুণ ভাবে ফিরে এলেন মীরাবাই চানু। মনিপুরের এই ভারোত্তলক মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের অ্যানাহেইমে অনুষ্ঠিত বিশ্ব ভারোত্তলন চ্যাম্পিয়নশিপে ৪৮ কেজি বিভাগে সোনা জিতলেন। চানু ছাড়া এই কৃতিত্ব কেবল একজন ভারতীয়রই আছে। ১৯৯৪ ও ১৯৯৫ সালে এই কৃতিত্ব অর্জন করেন অলিম্পিকে ব্রোঞ্জজয়ী ভারোত্তলক কর্ণম মালেশ্বরী।

২. পঙ্কজ আডবাণী

২০১৭-য় আইএসবিএফ বিশ্ব স্নুকার চ্যাম্পিয়নশিপ এবং আইএসবিএফ বিশ্ব বিলিয়ার্ডস চ্যাম্পিয়নশিপ- দুটোই জিতেছেন পঙ্কজ আডবাণী। এই নিয়ে তিনবার স্নুকারে বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন এবং নয়বার বিলিয়ার্ডসে বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন হলেন পঙ্কজ। এই নিয়ে মোট ১৮টি বিশ্ব চ্যাম্পিয়নশিপে সোনা জিতলেন আডবাণী।

৩. ভবানী দেবী

চার্টার্ড অ্যাকাউন্টেন্ট ভবানী দেবী প্রথম ভারতীয় যিনি ব্যক্তিগত সাবরে ইভেন্টে সোনা জিতলেন। আইসল্যান্ডে মহিলা স্যাটেলাইট ফেন্সিং চ্যাম্পিয়নশিপে এই কৃতিত্ব অর্জন করেন তিনি। এই নিয়ে তিনবার স্যাটেলাইট চ্যাম্পিয়নশিপে অংশ নিয়ে এই প্রথম সোনা জেতেন ভবানী দেবী। ৮টি দেশের ২৬জন প্রতিযোগীকে নিয়ে এই প্রতিযোগিতা হয়েছিল। এর আগে ইতালিতে একটি স্যাটেলাইট চ্যাম্পিয়নশিপে ব্রোঞ্জ জিতেছিলেন ভবানী দেবী। ২০১৭-য় এশিয়ান ফেন্সিং চ্যাম্পিয়নশিপে কোয়ার্টার ফাইনালে হেরে যান তিনি।

৪. জেহান দারুয়ালা

গত ফেব্রুয়ারিতে জেহান এমন একটি কৃতিত্ব অর্জন করেন, যা এর আগে কোনো ভারতীয় করতে পারেননি। নিউজিল্যান্ড গ্র্যান্ড প্রিক্সে চ্যাম্পিয়ন হন তিনি। তিনিই প্রথম ভারতীয় যিনি রেসিং-এ কোনো গ্রাঁ প্রি জিতলেন। এরপর গত জুলাইতে মুম্বইয়ের এই ড্রাইভার এফআইএ ফর্মুলা থ্রি ইউরোপিয়ান চ্যাম্পিয়নশিপ জেতেন।

৫. রামকুমার রমানাথন

এ বছরই তাঁর কেরিয়ারের সেরা ১৩৯ নম্বর র‍্যাঙ্কিং-এ পৌঁছন রামকুমার রমানাথন। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের আন্তালিয়া ওপেনে শীর্ষ বাছাই এবং বিশ্বের ৮ নম্বর ডোমিনিক থিয়েমকে স্ট্রেট সেটে হারিয়ে কোয়ার্টার ফাইনালে পৌঁছন রমানাথন। যদিও কোয়ার্টার ফাইনাল থেকেই বিদায় নেন তিনি। এরপর আগস্টে তিনি প্রথম মাস্টার্স টুর্নামেন্টে খেলার সুযোগ পান। যদিও সিনসিনাটি মাস্টার্সের দ্বিতীয় রাউন্ডেই বিদায় নেন তিনি।

৬. ভূমিকা শর্মা

জুন মাসে ইতালির ভেনিসে মিস ওয়ার্ল্ড বডিবিল্ডিং চ্যাম্পিয়নশিপে জয়ী হন উত্তরাখণ্ডের ভূমিকা শর্মা। ২১ বছর বয়সি ভূমিকা দেহরাদুনের একটি জিমে অনুশীলন করেন। এই প্রতিযোগিতায় বিভিন্ন ক্যাটেগরিতে মোট ৫০ জন প্রতিযোগী অংশ নিয়েছিলেন। তিনিট আলাদা ক্যাটেগরিতে সর্বোচ্চ পয়েন্ট পান তিনি।

৭. মেহুলি ঘোষ, অনীশ ভানওয়ালা, যশস্বিনী সিং
মেহুলি ঘোষ

৬১ তম জাতীয় শুটিং চ্যাম্পিয়নশিপে ৮টি সোনা পান মেহুলি ঘোষ। তার মধ্যে ৪টি দলগত সোনা। তারপর মে মাসে আন্তর্জাতিক জুনিয়র শুটিং চ্যাম্পিয়নশিপে একমাত্র ভারতীয় হিসেবে অংশ নেন তিনি।

হরিয়ানার অনীশ ভানওয়ালা ছেলেদের ২৫ মিটার স্ট্যান্ডার্ড পিস্তল ইভেন্টে বিশ্বরেকর্ড ভাঙলেন এ বছর। আইএসএসএফ জুনিয়র বিশ্ব চ্যাম্পিয়নশিপে ৫৭৯ পয়েন্ট পেয়ে একটি সোনা এবং একটি রুপো জেতেন অনীশ। এছাড়াও চেক রিপাবলিকে আন্তর্জাতিক চ্যাম্পিয়নশিপে একটি সোনা ও ব্রোঞ্জ জিতেছেন অনীশ।

আইএসএসএফ জুনিয়র বিশ্ব চ্যাম্পিয়নশিপে মহিলাদের ১০ মিটার এয়ার পিস্তল ইভেন্টে সোনা জেতেন যশস্বিনী সিং।

৮. বিশ্ব বামন গেমসে ৩৭টি পদক

ওন্তারিও-র গুয়েল্ফ বিশ্ববিদ্যালয়ে বসেছিল সপ্তম বিশ্ব বামন গেমসের আসর। গেমসে ১৫টি সোনা সহ ৩৭টি পদক জিতলেন ভারতের প্রতিযোগীরা। এই গেমসে ২৪টি দেশের ৪০০ জন প্রতিযোগী বিভিন্ন খেলায় অংশ নিয়েছিলেন। ভারতের বহু প্রতিযোগী একাধিক পদক জেতেন। জবি ম্যাথিউ ২টি সোনা, ৩টি রুপো ও ১ ব্রোঞ্জ জেতেন।শটপাট, ডিসকাস থ্রো ও ব্যাডমিন্টনে পদক জেতেন তিনি।

৯. সুন্দর সিং এবং কাঞ্চনমালা পাণ্ডে
কাঞ্চনমালা পাণ্ডে

বিশ্ব প্যারা অ্যাথলেটিক চ্যাম্পিয়নশিপে জ্যাভলিন থ্রোয়ে সোনা জিতলেন সুন্দর সিং গুর্জর। ৬০.৩৬ মিটার দূরত্বে জ্যাভলিন ছোঁড়েন তিনি। যা তাঁর কেরিয়ারের সেরা।

ডিসেম্বরে বিশ্ব প্যারা সুইমিং চ্যাম্পিয়নশিপে ২০০ মিটার মেডলি ইভেন্টে সোনা জিতলেন দৃষ্টিহীন কাঞ্চনমালা পাণ্ডে। চ্যাম্পিয়নশিপের আসর বসেছিল মেক্সিকোয়।

১০. ভরত খান্ডারে

গত নভেম্বরে এক বিরল কৃতিত্ব অর্জন করেছেন ভরত খান্ডারে। তিনিই ভারতের প্রথম মিক্সড মার্শাল আর্ট ফাইটার যিনি আলটিমেট ফাইটিং লিগে অংশ নিতে পারলেন। ২৫ নভেম্বর ইউএফসি-র লড়াইতে চিনা প্রতিদ্বন্দ্বীর মুখোমুখি হন তিনি। ইউএফসি এশিয়াতে এই প্রতিযোগিতাকে জনপ্রিয় করতে চাইছে। তাই একটি প্রমোশনাল প্রতিযোগিতাও শুরু করেছে তারা। ওই প্রতিযোগিতায় ফেদারওয়েট বিভাগে চ্যাম্পিয়ন হন খান্ডারে। অতীতে কুস্তি এবং কিক বক্সিং করতেন ভরত।

এছাড়া এ বছর আরও দুটি উল্লেখযোগ্য কৃতিত্ব অর্জন করেছেন দুই ভারতীয়।

এই প্রথম বিশ্ব জ্যাভলিন প্রতিযোগিতার ফাইনাল রাউন্ডে পৌঁছন দাভিন্দর সিং কাং।

কিংবদন্তি ব্যাডমিন্টন কোচ পুল্লেইলা গোপীচাঁদের মেয়ে গায়ত্রী গোপীচাঁদ এ বছর অনূর্ধ্ব ১৯ অল ইংল্যান্ড চ্যাম্পিয়ন হলেন। এই কৃতিত্ব তিনি অর্জন করলেন মাত্র ১৪ বছর বয়সে। এত কম বয়সে কেউএর আগে অনূর্ধ্ব ১৯ অল ইংল্যানড চ্যাম্পিয়ন হননি।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here