চন্দন বিশ্বাস

ওয়েবডেস্ক: হেঁটে ৪৬ দিনে ১,০০৭ কিলোমিটার। পুরো নর্মদা নদী গতিপথ, মোহনা থেকে উৎস। চার রাজ্য পেরিয়ে মঙ্গলবার অমরকণ্টকে ‘মাই কি বাগিয়া’তে নর্মদার উৎসে অভিযান শেষ করলেন চন্দন বিশ্বাস। এক বছর আগেই সাইকেলে চড়ে ট্রান্স হিমালয় হিমালয় অভিযান করে বিশ্বরেকর্ড করেছিলেন বারাসতের চন্দন।

চন্দন বিশ্বাস

ট্র্যাডিশনাল ট্রেকরুট ছিল না এটা।। প্রায় পুরোটাই এক্সপ্লোরেশনের জায়গা। গুজরাতের খাম্বাৎ উপসাগর থেকে শুরু হয়েছিল পথচলা। সাতপুরা এবং বিন্ধ্য পর্বতমালা পেরোতে হয়েছে এই অভিযানে। পেরোতে হয়েছে প্রায় দুর্ভেদ্য শূলপানেশ্বর এবং পুনাসার জঙ্গল। সবটা হেঁটে যাওয়া সম্ভব হয়নি। কিছু জায়গায় গাড়ীতে উঠতে হয়েছে। নাহলে কিলোমিটারের সংখ্যা বেড়ে হত প্রায় ১৩০০।

অভিযানে চন্দনকে সাহায্য করেছেন বহু মানুষ। অভিযান শুরুর আগে এবং যাত্রাপথে যেভাবে সবাই এগিয়ে এসেছেন তাতে চন্দন অভিভূত। তিনি বিশেষভাবে কৃতজ্ঞতা জানিয়েছেন তাঁর সংগঠন সোনারপুর আরোহীকে। এবং সেই সঙ্গে HDMTA, Arete MC, নীলকণ্ঠ অভিযাত্রী সংঘ, লিটল ল্যাম্ব ফিল্মস এবং অনুকল্প।

নর্মদার পর?  কী পরিকল্পনা রয়েছে চন্দনের ঝুলিতে? চন্দন জানালেন, ছেড়ে যাওয়া সঙ্গী সাইকেলকে ফের টেনে নেবেন কাছে। পাড়ি দেবেন রহস্যময় মহাদেশ আফ্রিকায়।

ছবি: চন্দন বিশ্বাসের সৌজন্যে

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন