ওয়েবডেস্ক: সব খবর জানাই ছিল। তবু অপেক্ষা ছিল এশিয়ান ফুটবল কনফেডারেশনের সরকারি বিবৃতির। মঙ্গলবার জারি হয়ে গেল সেই বিবৃতিও, যেখানে জানিয়ে দেওয়া হল ফেডারেশনের কাপের বদলে এই মরশুমে আইএসএল-এর চ্যাম্পিয়ন দলই খেলবে এএফসি কাপ। অর্থাৎ ফেড কাপ উঠে গেল। অন্যদিকে বরাবরের মতোই আই লিগ চ্যাম্পিয়ন দলটি খেলবে এএফসি চ্যাম্পিয়নস লিগ। বলে দেওয়া হয়েছে, এই মরশুমে ৬-৭ মাস ধরে সমান্তরাল ভাবেই চলবে দুটি লিগ।

বিবৃতিতে বলা হয়েছে, এটা নেহাতই অস্থায়ী স্বল্পমেয়াদি ‘সংযোগকারী সমাধান’।

কিন্তু এ সবই ফুটবলপ্রেমীদের জানা তথ্য। যে তথ্যটা কানাঘুষোয় শোনা যাচ্ছিল, সেটাও এদিন স্পষ্ট করে দিয়েছে এএফসি। এই ‘সংযোগকারী সমাধান’ কতদিন চলবে, তা তাঁরা স্পষ্ট করেনি। অর্থাৎ জোড়া লিগ থেকে গোটা দেশে একটিই লিগের পথে যাত্রায় কতদিন সময় লাগবে, তা নিয়ে ধোঁয়াশা রাখা হয়েছে বিবৃতিতে। সেখানে বলা হয়েছে, প্রতি বছরের শেষে নতুন করে পরিস্থিতি খতিয়ে দেখবে তাঁরা।

কী খতিয়ে দেখবে এএফসি?

চলতি বছরের ৭ জুন কুয়ালা লামপুরের বৈঠকে ভারতীয় ফুটবলের রোড ম্যাপ নিয়ে যে আলোচনা হয়েছে, সেই পথ ধরে ভারতীয় ফুটবল চলছে কি না, তা দেখা হবে। এর মধ্যে রয়েছে ক্লাবগুলি অনুমোদন সংক্রান্ত নীতি মেনে চলছে কি না, বিপণন, সম্প্রচার, ফুটবলার বাছাইয়ের ক্ষেত্রে যাবতীয় নীতি মানা হচ্ছে কি না ইত্যাদি।

সে যাই হোক, বাংলার ফুটবলপ্রেমীদের মনে একটাই প্রশ্ন। ২০১৭-১৮ মরশুমের পরেও যদি জোড় লিগ চলে, তাহলে মোহন-ইস্ট কোন লিগে খেলবে?

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here