জয় মোহন-ইস্টের, আই লিগের ক্লাবগুলির অধিকাংশ প্রস্তাব মানল ফেডারেশন

0
1004

নয়াদিল্লি: অবশেষে আই লিগ আর আইএসএল-এর জট কাটল। এই মরশুমে দুটি লিগ একসঙ্গে চলার ব্যাপারে সম্মতি দিয়ে দিল আই লিগের ক্লাবগুলি। বদলে আই লিগকে জনপ্রিয় করার জন্য ফেডারেশনের কাছে অনেকগুলো প্রস্তাব দেয় ক্লাবগুলি। যার বেশিরভাগই মেনে নিয়েছে ফেডারেশন।

১. আই লিগের পুরস্কার অর্থ বাড়াতে হবে।

২. ক্লাবগুলোর যাতায়াত আর থাকার জন্য খরচ বাড়াতে হবে।

৩. এইচডি মানের টিভি সম্প্রচার করতে হবে।

৪. আই লিগের প্রমোশন বাড়াতে হবে।

৫. ৮ জন বিদেশি ফুটবলার সই করাতে দিতে হবে, তার মধ্যে দু’জন এশিয়ান।

৬. ৫ জন বিদেশি খেলানো যাবে, তার মধ্যে ১ জন এশিয়ান।

৭. আই লিগের খেলা সপ্তাহের শেষে দিতে হবে।

এছাড়া সুপার কাপ নিয়েও আলোচনা হয়েছে এদিন। এদিন ফেডারেশনের বৈঠকে যাওয়ার আগে নিজেদের মধ্যে একপ্রস্থ বৈঠক সেরে নেয় আই লিগের ক্লাবগুলো।

শেষ পর্যন্ত যা খবর, তাতে ক্লাবগুলির বিদেশি সংক্রান্ত দাবি মেনে নিয়েছে ফেডারেশন। ক্লাবগুলির যাতায়াত, থাকার খরচ ৪৫ লক্ষ থেকে বাড়িয়ে ১ কোটি করার প্রস্তাব দিলেও তা ৭০ লক্ষ করা হচ্ছে। পুরস্কার অর্থ বাড়ানো হচ্ছে না। তবে আই লিগে নতুন দল এলে, তাঁরা ৩ কোটি টাকা দেবে। সেই টাকা ক্লাবগুলির মধ্যে ভাগ করে দেওয়া হবে। মেনে নেওয়া হয়েছে এইচডি সম্প্রচার এবং শুক্র, শনি ও রবিবার ঘুরিয়ে ফিরিয়ে আই লিগ ও আইএসএল-এর খেলা দেওয়ার প্রস্তাবও।

তবে মোহনবাগান, ইস্টবেঙ্গলের বেশি বিদেশির প্রস্তাবে তীব্র আপত্তি জানিয়ে আইজল, মিনার্ভার মতো ব্যক্তি মালিকানাধীন দলগুলি সভা ছেড়ে বেরিয়ে যায়। উপস্থিত না থাকলেও ওই প্রস্তাবে খুশি নয় লাজং-ও। আইজল, চেন্নাইদের পরে প্রস্তাবে রাজি করায় মোহন-ইস্টরা।

এদিনের সভায় সুপার লিগ নিয়েও আলোচনা হয়। ঠিক হয়েছে সুপার লিগ যদি হয়, তবে তা হবে ১৫ এপ্রিল থেকে।

আগামী ৫ জুলাই ফেডারেশনের লিগ কমিটির বৈঠক। সেদিন ক্লাবগুলোর প্রস্তাবের ওপর সিলমোহর পড়বে। তারপর ফেডারেশন ক্লাবগুলোকে সিদ্ধান্ত জানাবে।

এক ক্লিকে মনের মানুষ,খবর অনলাইন পাত্রপাত্রীর খোঁজ

মতামত দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here