কলকাতা: ঠিক দু’বছর আগের ছবিটাই যেন ফিরে এল আবার। তফাৎ বলতে শুধু ফিকরু, গার্সিয়াদের বদলে হিউম, দ্যুতিরা, আর সমর্থকদের মুখে ‘হাবাস’ ‘হাবাস’ ধ্বনির বদলে ‘মোলিনা’ ‘মোলিনা’ ধ্বনি। মলভর্তি সমর্থকদের মধ্যেই, সামনের বছর ফের এক বার ‘ফাটাফাটি ফুটবল’-এর প্রতিজ্ঞা নিল এটিকে।

এর কিছুক্ষণ আগে অবশ্য এক প্রস্ত জনবিস্ফোরণ দেখা গিয়েছে কলকাতা বিমানবন্দরে। একে একে বেরিয়ে আসছেন  টিম আতলেতিকোর স্তম্ভরা আর চিৎকারে ফেটে পড়ছে বিমানবন্দর চত্বর। প্রিয় দলের পতাকা উড়িয়ে সমর্থকদের মধ্যে উঠে আসছে বিভিন্ন স্লোগান। কেউ বলছে, “জিতল কে? এটিকে”, আবার কারও মুখে শোনা যাচ্ছে, “ফুটবলে সেরা কলকাতাই, কোনো কথা হবে না”। কেউ কেউ আবার স্লোগান হিসেবে ব্যবহার করছেন ধন্যি মেয়ে সিনেমার সেই বিখ্যাত গান, “সব খেলার সেরা বাঙালির তুমি ফুটবল’।

দেবজিৎ মজুমদার বেরোতেই যেন ফেটে পড়ল উৎসাহী জনতা। বিশ্বমানের একটি টুর্নামেন্টের ফাইনালে পেনাল্টি বাঁচাচ্ছেন এক বাঙালি। দলে বিদেশি গোলকিপার থাকলেও, মোলিনা সেই বাঙালির ওপরই ভরসা করে গিয়েছেন, এ তো বাংলার ফুটবলের নিঃসন্দেহে সব থেকে সেরা বিজ্ঞাপন।  আইএসএলের জয়সূচক গোলও এসেছে এক বাঙালির পা থেকে। তাই উল্লাস অপেক্ষা করেছিল বজবজের শেখ জুয়েল রাজার জন্য।

debo
                              বিমানবন্দরে দেবজিৎ-সহ বাকিরা

বিমানবন্দর থেকে টিম সোজা এল কোয়েস্ট মলে। উৎসাহী জনতার মাঝে ট্রফি তুললেন মোলিনা-সহ গোটা দল। সমর্থকদের ধন্যবাদ জ্ঞাপন করতেও ভুললেন না ফুটবলাররা। আর কথা দিলেন সামনের বছর ফের ট্রফি জেতার জন্য জান লড়িয়ে দেবে কলকাতা।

ছবি : রাজীব বসু

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here