পুনে: অস্ট্রেলিয়ার দ্বিতীয় ইনিংসে অধিনায় স্টিভ স্মিথ করেছিলেন ১০৯ রান। ভারতের দ্বিতীয় ইনিংস শেষ হয়ে গেল ১০৭ রানে। সর্বোচ্চ পূজারা, ৩১। ২০০৪ সালের পর ভারতের মাটিতে প্রথম টেস্ট জিতল অজিরা। ভারতকে ৩৩৩ রানে হারিয়ে চার টেস্টের সিরিজে এগিয়ে গেল ১-০। দেশের মাটিতে টানা ১৯টি টেস্ট অপরাজিত থাকার পর হারল ভারত।

ভারতের বড়ো সাধের স্পিনিং উইকেট যে অস্ট্রেলিয়া ভারত-বধে কাজে লাগাচ্ছে, এই গল্পটা টেস্টের দ্বিতীয় দিনের শেষেই জানা হয়ে গিয়েছিল। তা ব’লে ভারতের দ্বিতীয় ইনিংস যে প্রথম ইনিংসের রিপিট টেলিকাস্ট হবে, তা বোধহয় অতি বড়ো অজি সমর্থকও ভাবেননি। ফের ৩৫ রান দিয়ে ৬ উইকেট নিলেন ও’কিফ। বাকি চার উইকেট নিলেন আরেক স্পিনার নাথান লিয়ন। দুই ইনিংস মিলিয়ে ও’কিফের বোলিং পারফরম্যান্স ১২/৭০। ভারতের মাটিতে কোনো ক্যাঙ্গারু বোলারের এটাই সেরা পারফরম্যান্স। 

ও’কিফের পারফরম্যান্স আর স্টিভ স্মিথের লড়াকু সেঞ্চুরি অস্ট্রেলিয়ার জয়ে প্রধান ভূমিকা নিলেও, অতিথি দল কিন্তু খেলার প্রতিটি বিভাগেই হারিয়েছে ভারতকে। অজি স্পিনাররা পিচের সুযোগ যেভাবে তুলেছেন, ভারতীয় স্পিনাররা তার ধারকাছ দিয়েও যেতে পারেননি। তাঁরা ব্যাটসম্যানদের মুশকিলে ফেলেছেন যথেষ্ট কিন্তু কাজের কাজটি করতে পারেননি।

অস্ট্রেলিয়ার দ্বিতীয় ইনিংস শেষ হয় ২৮৫ রানে। এই উইকেটে চতুর্থ ইনিংসে ৪৪১ রান করে জেতা হয়তো অসম্ভব ছিল। কিন্তু দুই ইনিংসেই দুই দলের ব্যাটিং-এ যে ফারাকটা চোখে পড়ল, তা অবাক করার মতো।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন