দুবাই: আন্তর্জাতিক ক্রিকেট সংস্থা আইসিসি-তে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের যে সেই প্রভাব আর নেই তা প্রমাণ হয়ে গেল বুধবার। ক্রিকেটের সর্বোচ্চ সংস্থায় তারা গোহারান হেরে গেল। আর আইসিসি-র নতুন গঠনতন্ত্র বাস্তবায়িত হওয়ার পথে আরও এক ধাপ এগিয়ে গেল। জুনে আইসিসি-র বার্ষিক সম্মেলনে এই নতুন গঠনতন্ত্র অনুমোদন করাতে হবে।

এ  দিন দুবাইয়ে আইসিসি-র বোর্ডের সভা শুরু হয়। প্রথম দিনেই আইসিসি-র নতুন গঠনতন্ত্র সংক্রান্ত দু’টি প্রস্তাব ভোটে দেওয়া হয়। একটি হল পরিচালন কাঠামো সংক্রান্ত এবং দ্বিতীয়টি নতুন আর্থিক মডেল সংক্রান্ত। পরিচালন কাঠামোয় পরিবর্তন সংক্রান্ত প্রস্তাবে ভোট পড়ে ৮-২। ভারতের ক্রিকেট কন্ট্রোল বোর্ড এর বিরোধিতা করে। তারা চেয়েছিল আইসিসিতে যে পরিচালন কাঠামো আছে, তা-ই বজায় থাক। এ ক্ষেত্রে তারা পাশে পায় একমাত্র শ্রীলঙ্কার বোর্ডকে।

আর যে বিষয়টি নিয়ে ভারতের সঙ্গে বাকি সদস্য দেশগুলির বিরোধ সব চেয়ে বেশি, আইসিসি-র নতুন আর্থিক মডেল সংক্রান্ত সেই প্রস্তাবে ভোট পড়ে ৯-১। এ ক্ষেত্রে ভারত কাউকেই পাশে পায়নি।

ভারতীয় বোর্ড আইসিসি-র বোর্ডের সভায় উপস্থিত ভারতীয় বোর্ডের এক কর্মকর্তা বলেন, “বিসিসিআই দু’টি প্রস্তাবের বিরুদ্ধেই ভোট দিয়েছে। কারণ যে সব পরিবর্তনের প্রস্তাব করা হয়েছে তা আমাদের কাছে একেবারেই গ্রহণযোগ্য নয়। এই মুহূর্তে আমরা বলতে পারি, আমাদের কাছে সব পথই খোলা। আমাদের বোর্ডের বিশেষ সাধারণ সভা ডেকে সদস্যদের গোটা পরিস্থিতি বোঝাতে হবে।”

আরও পড়ুন: অতিরিক্ত ৬৪২ কোটি টাকার ‘অফার’ প্রত্যাখ্যান, আইসিসি-বিসিসিআই বিরোধ মিটল না

নতুন আর্থিক মডেল অনুযায়ী আইসিসি-র রাজস্ব থেকে ভারতীয় বোর্ড পাবে ২৯ কোটি ৩০ লক্ষ ডলার, ভারত যা চেয়েছিল তার অর্ধেকের কিছু বেশি। ভারতীয় বোর্ড চেয়েছিল ‘বিগ থ্রি’ মডেল অনুযায়ী তারা যে ৫৭ কোটি ডলার পায়, সেই টাকা। এ ব্যাপারে সমঝোতায় আসার জন্য আইসিসি-র চেয়ারম্যান শশাঙ্ক মনোহর ভারতকে আরও ১০ কোটি ডলার দেওয়ার প্রস্তাব করেছিলেন বিসিসিআইয়ের জয়েন্ট সেক্রেটারি অমিতাভ চৌধুরীর কাছে। কিন্তু ভারত তা খারিজ করে দেয়।

ভারতের বোর্ড আইসিসি-র সদস্য দেশগুলির কাছে বিকল্প প্রস্তাব দেয়। তাতে বলা হয়, নতুন গঠনতন্ত্রে তাদের যে টাকা দেওয়ার কথা বলা হয়েছে তারা তা-ই পাবে, শুধু ভারতকে ৫৭ কোটি ডলার দেওয়া হোক। কিন্তু এই প্রস্তাবে কেউই রাজি হয়নি।

“ভারতের কাছে বিকল্প যে রাস্তা খোলা ছিল তা হল মধ্যপন্থা মেনে নেওয়া” – দুবাইয়ে উপস্থিত এক শীর্ষ কর্তা বলেন। বিসিসিআইকে বলা হয় মনোহরের ‘অফার’ বিবেচনা করতে। কিন্তু ভারতীয় বোর্ড তা করেনি।

 

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here