চার্চিল-২(ওলফ, লিংডো)    মোহনবাগান-১(প্রবীর)

গোয়া: গত দু’ম্যাচে পালটে গেছে চার্চিল ব্রাদার্স। জানত সবুজমেরুন শিবির। তবু প্রথম থেকেই ম্যাড়মেড়ে খেলা বুঝিয়ে দিচ্ছিল দলটা ছন্দে নেই। তবু তার মধ্যেই ঝলক দেখাচ্ছিলেন সোনি।১৭ মিনিটে চার্চিলের গোলকিপার ঠিক সময়ে বেরিয়ে না এলে এগিয়ে যেত মোহনবাগান।২৩ মিনিটে সেই সোনির ক্রস থেকেই গোল করে দলকে এগিয়ে দিলেন প্রবীর দাস।তারপর সেই ম্যাড়মেড়ে খেলা। চার্চিল চেষ্টা করছিল। কিন্তু খেলার মান ছিল নিম্নমুখীই।

দ্বিতীয়ার্ধ শুরু হতেই পাল্টে গেল চার্চিল। আক্রমণ ভাগে ঝলমল করতে থাকলেন ওলফ, লিংডো-রা। তার সঙ্গে পাল্লা দিয়েই যেন ম্যাচ থেকে হারিয়ে গেল সবুজমেরুন।৬৪ মিনিটে বাগান ডিফেন্সের দুর্বলতায় গোল শোধ করে দিলেন ওলফ। কিন্তু এডুর্য়াদো, শুভাশিস সেই যে দাঁড়িয়ে পড়লেন, উঠে দাঁড়ানোর লক্ষণ দেখা গেল না। ৭৪ মিনিটে সেন্টারে মাথা ছুঁইয়ে চার্চিলকে এগিয়ে দিলেন লিংডো।

শেষ পর্যন্ত বিপত্তি। চলে গেল আলো ৮০ মিনিটের মাথায়। নিয়ম অনুযায়ী ৪৫ মিনিট আলো না থাকলে খেলা পরিত্যক্ত বলে ঘোষণা করতে পারতেন রেফারি। কিন্তু ৪১ মিনিটের মাথায় চলে এল আলো। ফলে শুরু হল খেলা। কিন্তু ফলের কোনো ইতরবিশেষ হয়নি। ডাফি একটা হাফ চান্স পেয়েছিলেন, কিন্তু কাজে লাগাতে পারেননি।  

 

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here