পিএনজি: ৬৪ (স্যাম ১৫, অনুকূল ৫-১৪) ভারত: ৬৭-০ (পৃথ্বী অপরাজিত ৫৭) মাউন্ট মাউঙ্গানুই: প্রশান্ত মহাসাগরের একটি ছোট্টো দ্বীপরাষ্ট্র পাপুয়া নিউ গিনি। ক্রিকেট খেললেও সে ভাবে বিশ্ব ক্রিকেটে কোনো দিনই উল্লেখযোগ্য কোনো অবদান রাখতে পারেনি তারা। সেই দলকেই সাবড়ে ফেলে অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপের কোয়ার্টার ফাইনাল নিশ্চিত করে ফেলল রাহুল দ্রাবিড়ের ছেলেরা। মঙ্গলবার ভারতের জয়ের নেপথ্যে থাকলেন এক বাঙালি। তিনি বিহারের অনুকূল রায়। স্যাঁতস্যাঁতে আবহাওয়া, পেসারবান্ধব পিচ হওয়া সত্ত্বেও খেল দেখালেন এই বাঁ হাতি স্পিনার। তাঁর পাঁচ উইকেটে ভর করে মাত্র ৬৪ রানে শেষ হয়ে যায় পাপুয়া নিউ গিনি। এ দিন টসে জিতে ফিল্ডিং-এর সিদ্ধান্ত নেন ভারত অধিনায়ক পৃথ্বী শ। অস্ট্রেলিয়া ম্যাচে নজর কেড়েছিলেন ভারতের দুই পেসার মাভি এবং নাগারকোটি। এই ম্যাচেও ওই দু’জনের ওপরেই নজর ছিল। ওই দুই পেসার পাপুয়ার টপ অর্ডার ভেঙে দিলেও, কিছুক্ষণ পর আসরে নামেন অনুকূল। তাঁর ঘূর্ণিতেই শেষ হয়ে যায় পাপুয়া। মাত্র ৬৫ রানের টার্গেট তাড়া করতে নেমেই ঝড় তোলেন ওপেনার তথা অধিনায়ক পৃথ্বী। আট ওভারেই শেষ করে দেন ম্যাচ। বারোটা চারের সাহায্যে ৩৬ বলে ৫৭ রানে অপরাজিত থাকেন পৃথ্বী। এই ম্যাচে জয়ের পর ভারতের কোয়ার্টার ফাইনাল যাত্রা পাকা হয়ে গেল। পরের ম্যাচ শুক্রবার জিম্বাবোয়ের বিরুদ্ধে।]]>

dailyhunt

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন