vk

ওয়েবডেস্ক: ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিরুদ্ধে টি২০ সিরিজে বিশ্রামে থাকলেও, খবরের শিরোনামে কিন্তু রয়েই গিয়েছেন ভারত অধিনায়ক বিরাট কোহলি। যার কারণ সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়ায় এক সমর্থকের টুইট নিয়ে বিরাটের মন্তব্য। সেই সমর্থক বলেছিলেন, ভারতীয় ব্যাটসম্যানদের থেকেও ইংল্যান্ড, অস্ট্রেলিয়ার ক্রিকেটারদের খেলা দেখতে তাঁর বেশি ভালো লাগে। এমনকি কোহলিকেও তাঁর আহামরি কিছু লাগে না। সমর্থকের কথায় তাঁকে রীতিমতো ফতোয়া দিয়ে বিরাট বলেন, নিজেদের দেশের খেলোয়াড়দের ভালো না লাগলে দেশ ছেড়ে চলে যান। এই মন্তব্যের পরেই খবরের বাজারে হট-কেক হয়ে গিয়েছেন বিরাট। সমর্থকরা তাঁর এমন মন্তব্য মেনে নিতে পারেননি।

আরও পড়ুন: ‘ভারত ছেড়ে বিদেশে চলে যান’, সমালোচককে নিদান দিলেন বিরাট কোহলি

বিরাটের এই মন্তব্যে রীতিমতো ক্ষুব্ধ ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডও। বোর্ডের কোষাধ্যক্ষ অনিরুদ্ধ চৌধুরী সম্প্রতি টাইমস অফ ইন্ডিয়াকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে বলেন, “আমরা বিসিসিআই-তে  সমর্থকদের ক্রিকেট-মূল্যবোধ এবং তাদের পছন্দকে সম্মান করি। আমি সুনীল গাওস্করের ব্যাট করা দেখতে খুব ভালোবাসতাম। একই সঙ্গে ভালোবাসতাম গর্ডন গ্রিনিজ, ডেসমন্ড হেইনস, ভিভ রিচার্ডসকেও। আমি ভালোবাসতাম সচিন, সহবাগ, সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়, ভিভি এস লক্ষণ, রাহুল দ্রাবিড়কেও। একই সঙ্গে ব্রায়ান লারা, মার্ক ওয় এবং বাকি অনেক ক্রিকেটারকে। শেন ওয়ার্ন আমার দেখা সব চেয়ে দুর্দান্ত স্পিনার। তবে অনিল কুম্বলের বলে রোমাঞ্চ ছিল। একই সঙ্গে কপিল দেবকে দেখাও সৌভাগ্য হয়েছিল। সঙ্গে রিচার্ড হ্যাডলি, ইয়ান বোথাম, ইমরান খানকেও। আমার মনে হয় এগুলো থাকা দরকার ক্রিকেটের প্রতি ভালোবাসার জন্য। যেখানে কোনো ভৌগোলিক বা রাজনৈতিক সীমানা থাকা উচিত নয়।”

বিসিসিআইয়ের এক অধিকর্তা জানান, বিরাটের এটা বোঝা উচিত যদি সমর্থকরা অন্য দেশে চলে যায় তা হলে কোনো পুমা বা কেউ ওকে ১০০ কোটির জন্য সই করাবে না। বিসিসিআইয়ের রাজস্বও অনেকটা পড়ে যাবে। সঙ্গে ক্রিকেটারদের বেতনও। ও যদি ওর কন্ট্রাক্টটা দেখে তা হলে ও দেখতে পাবে ও নিজের কন্ট্রাক্টটা লঙ্ঘন করেছে। যেমন ভাবে বিসিসিআই-য়ের সঙ্গে নাইকির কন্ট্রাক্টও ও লঙ্ঘন করেছিল যখন ইংল্যান্ডে গিয়ে ও পুমাকে সমর্থন করেছিল।”  তবে নিজের এমন বিতর্কিত মন্তব্যের পর বিরাট আবার টুইট করেছেন। বলেছেন, “আমার মনে হয় ট্রোলিং হয়তো আমার জন্য নয় বন্ধুরা। তবু আমি ট্রোলড হওয়াতে খুশিই হব। আমি আমার মন্তব্যে উল্লেখ করেছিলাম ‘এই ভারতীয়রা’। আমি সব সময় ব্যক্তি স্বাধীনতার পক্ষে। সবাই এটাকে হালকা ভাবে দেখো আর উৎসবের মরশুম উপভোগ করো। সবাই শান্তিতে থাকো। সকলের জন্য ভালোবাসা রইল।”

 

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here