bengal

কলকাতা: মনোজ তিওয়ারি আর সুদীপ চট্টোপাধ্যায় যতক্ষণ ক্রিজে ছিলেন, ততক্ষণ আশা ছিল বাংলার। দু’ জনে প্যাভিলিয়নের পথ দেখার পরে কেরলের বোলারদের দাপটে উড়ে গেল বাংলা। ইডেন থেকে ছাঁকা ছ’পয়েন্ট ঘরে তুলল কেরল।

দ্বিতীয় দিনের শেষেই ম্যাচের ভবিষ্যৎ কার্যত নির্ধারিত হয়ে গিয়েছিল। অভাবনীয় এবং চমকপ্রদ কিছু না ঘটলে বাংলার হার কার্যত নিশ্চিত ছিল। হলও তাই। বাংলাকে ন’ উইকেটে হারিয়ে দিল সচিন বেবির কেরল।

তৃতীয় দিন বাংলার যাবতীয় আশা ভারসা ছিল সুদীপ এবং মনোজকে ঘিরেই। অভিষেক রমন আউট হয়ে যাওয়ার পরেই ক্রিজে আসেন মনোজ। শুরু থেকেই আক্রমণাত্মক ছিলেন তিনি। মাঝেমধ্যে একটু অতিরিক্ত আগ্রাসনও দেখাচ্ছিলেন। তবুও খেলছিলেন ভালোই। দুর্দান্ত স্ট্রাইক রেট রেখে নিজের অর্ধশতরান পূরণ করেন। অন্য দিকে ধীরে সুস্থে বড়ো রানের দিকে এগোচ্ছিলেন সুদীপ। কিন্তু মধ্যাহ্নভোজনের পরে মনোজ আউট হতেই উইকেটের লাইন লেগে গেল।

আরও পড়ুন তিন দশক পর পাহাড়ে ফিরছে দার্জিলিং গোল্ড কাপ, খেলতে পারে কলকাতার দলও

মনোজের কিছুক্ষণ পর প্যাভিলিয়নের পথ দেখলেন সুদীপ, ঋত্বিক, অনুষ্টুপরা। তার পর আর কীই বা বাকি ছিল! আইপিএলের পরিচিত নাম সন্দীপ ওয়ারিওর এবং ব্যাসিল থাম্পি মিলে কেরলকে ভাঙেন। পাঁচটি উইকেট নেন সন্দীপ। থাম্পি দখল করেন তিনটে উইকেট।

জয়ের জন্য প্রয়োজনীয় রান তুলতে একদমই বেগ পেতে হয়নি কেরলকে। একটা উইকেট হারালেও এগারো ওভারের মধ্যেই ৪৪ রান তুলে নেয় তারা। এই হার যে বাংলা শিবিরে বড়ো ধাক্কা দিয়ে গেল তা বলাই বাহুল্য।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here