Connect with us

ক্রিকেট

শেষ চারের দিকে এক কদম এগোলেও এখনও চাপমুক্ত নয় বাংলা

Published

on

cab

কটক: দিনের শেষলগ্নে পর পর দুটো উইকেট না পড়লে বাংলা চাপমুক্তই থাকত। কিন্তু ওই দুটো উইকেটই খেলা কিছুটা হলেও ঘুরিয়ে দিল। হালকা ভাবে হলেও ম্যাচে ফিরিয়ে আনল ওড়িশাকে।

এমনিতে সব মিলিয়ে ১৬১ রানের লিড নিয়ে খুব আরামদায়ক জায়গাতেই রয়েছে বাংলা। কিন্তু ক্রিকেট বড়োই অনিশ্চয়তার খেলা। বঙ্গ ক্রিকেটপ্রেমীরা চাইবেন চতুর্থ দিনের সকালে যেন তৃতীয় দিনের মতোই ম্রিয়মাণ থাকেন ওড়িশার বোলাররা।

শুক্রবার দ্বিতীয় দিন, একটা সময়ে ওড়িশা যে ভাবে ব্যাট করছিল, তাতে কোনো ভাবেই মনে হয়নি প্রথম ইনিংসে ৮২ রানের লিড পেয়ে যাবে বাংলা। এটা সম্ভব হল, শনিবার ঈশান পোড়েল, মুকেশ কুমাররা জ্বলে ওঠায়।

চার উইকেটে ১৫১ রানে ব্যাট শুরু করে আর মাত্র ৯৯ রানই যোগ করতে পেরেছিল শুভ্রাংশু সেনাপতির দল। এ দিন বাংলার হয়ে প্রভাব ফেলেন পেসাররা, বিশেষত মুকেশ কুমার। একাই তিনটে উইকেট তুলে নেন মুকেশ। অন্যদিকে আগের দিনের থেকে আরও দুটো উইকেট যোগ করেন ঈশান আর নীলকণ্ঠ দাস যোগ করেন একটি। অর্থাৎ তিন পেসারই তিনটে করে উইকেট নেন।

প্রথম ইনিংসের বড়ো লিড নিশ্চিত করে এমনিতেই সেমিফাইনালের পথে এক কদম এগিয়ে ছিল বাংলা। অর্থাৎ সরাসরি জয়ের কোনো দায় বাংলার ছিল না। সে কারণেই দুই ওপেনার কৌশিক ঘোষ আর অভিনায়ক অভিমন্যু ঈশ্বরণ সাবধানী ব্যাটিং শুরু করেন।

দু’জনে এগোচ্ছিলেনও ভালো। তিরিশ ওভার পর্যন্ত কোনো উইকেট ফেলতে পারেনি ওড়িশা। কিন্তু ৩১তম ওভারে মনোযোগ হারিয়ে নিজের উইকেটটি দিয়ে আসেন ঈশ্বরণ। এর দশ ওভার পর প্যাভিলিয়নের পথ দেখেন কৌশিকও।

দিনের বাকি সময়টা অভিষেক কুমার রমন আর মনোজ তিওয়ারি মিলে পার করিয়ে দেন। তবে চাপ এখনও কাটছে না কারণ এখনও দুটো দিন খেলা পড়ে রয়েছে।

আরও পড়ুন ইশান্ত শর্মা চোট না সারালে ভারতের কপাল আরও পুড়ত

নক আউট ম্যাচে প্রথম ইনিংসে বড়ো ইনিংস বড়ো লিড নিয়ে দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাটিং ভরাডুবির ঘটনা বাংলা এর আগে একবার ঘটিয়েছে। ২০০৮-০৯ মরশুমে রঞ্জি ট্রফির কোয়ার্টার ফাইনালে তামিলনাড়ুর বিরুদ্ধে। ফলে সেই ভুল যে এ বার না হয়, সেই প্রার্থনাতেই বঙ্গবাসী।

ক্রিকেট

রানের বন্যা শেষে চেন্নাই-জয় রাজস্থান রয়্যালসের

Published

on

IPL rajasthan Royals

রাজস্থান ২১৬-৭ (সঞ্জু ৭৪, স্মিথ ৬৯, স্যাম কারান ৩-৩৯)

চেন্নাই ২০০-৬ (ধোনি ৭২, ওয়াটসন ৩৩, তেওয়াটিয়া ৩-৩৭)

খবরঅনলাইন ডেস্ক: ১৩তম আইপিএলে প্রথম বার রানের বন্যা। আর সেই ম্যাচে চেন্নাই সুপারকিংসকে হারিয়ে কার্যত কিছুটা অঘটনই ঘটিয়ে ফেলল রাজস্থান রয়্যাল্‌স। এই জয়ের নেপথ্যে থাকলেন রাজস্থানের সঞ্জু স্যামসন। তবে চেন্নাই ইনিংসে ফাফ দু’প্লেসি যে ভাবে মরিয়া লড়াই করেছিলেন, সেটাও প্রশংসার যোগ্য।

২২ বছর আগে যে মাঠ সচিন তেন্ডুলকরের ‘মরুঝড়’-এর ইনিংস দেখেছিল, শারজার সেই ঐতিহাসিক মাঠেই এ দিন আছড়ে পড়ল সঞ্জু স্যামসনের ঝড়। ছেলেটার ভাগ্য সত্যি খারাপ বলতে হয়। প্রত্যেক বার আইপিএলে নজর কাড়েন তিনি। কিন্তু ভারতীয় দলে তাঁকে নিয়ে কারও বিশেষ উৎসাহ থাকে না। আবার ভারতীয় দলে সুযোগ পেলেও সেটা সদ্ব্যবহার করতেও পারেন না তিনি।

এ দিন অবশ্য শুরু থেকেই শারজা স্টেডিয়াম জুড়ে একটাই নাম। স্যামসন। ফাঁকা গ্যালারির বিভিন্ন প্রান্তে এ দিন বল পাঠিয়েছেন তিনি। ৭৪ রানের ইনিংস তিনি খেলেছেন মাত্র ৩২টা বলে। সব থেকে চমকপ্রদ ব্যাপার হল এই ইনিংসে ৯টা ছয় মেরেছেন তিনি। চার মেরেছেন মাত্র একটা।

ইনিংসটা দেখে এক এক সময়ে মনে হচ্ছিল, নির্বাচকদের উদ্দেশে তিনি কি কোনো বার্তা দিতে চাইছেন?

স্যামসন এসেছিলেন তিন নম্বরে ব্যাট করতে। ওপেনিং জুটিতেও বিশেষ বড়ো একটা চমক ছিল। নবাগত যশস্বী জয়সওয়ালের সঙ্গে এ দিন ওপেন করতে আসেন অধিনায়ক স্টিভ স্মিথ। প্রতিযোগিতামূলক ক্রিকেটে তিনি এর আগে কখনও ওপেন করেছেন কি না, জানা নেই।

ওপেনিংয়ের এই অভিষেক বেশ সুখকরই হল স্মিথের জন্য। স্যামসনের দাপটের সামনে তিনি কিছুটা ম্রিয়মান থাকলেও ৬৯ রানের ঝকঝকে একটা ইনিংস খেলে যান।

রাজস্থানের ইনিংসের শেষ ওভারে আরও একজনের ব্যাট জ্বলে ওঠে। তিনি জোফরা আর্চার। শেষ ওভারের প্রথম চারটে বলকেই আর্চার মাঠের বাইরে না পাঠালে দুশোর আগেই থেমে যেত রাজস্থানের ইনিংস।

রাজস্থান যে রানটা তুলেছিল, এখনও পর্যন্ত আইপিএলে ওই রান তাড়া করে কেউ জিততে পারেনি। তাই এ দিন শুরু থেকেই চেন্নাইয়ের ওপরে বাড়তি চাপ ছিল। তবুও সেই চাপ সহ্য করে মোটামুটি ভালোই শুরু করেছিলেন দলের দুই ওপেনার মুরলি বিজয় এবং শেন ওয়াটসন।

কিন্তু দু’ জনের জুটি ৫৬ রান তুলে ভেঙে যাওয়ার পর ধীরে ধীরে চেন্নাইয়ের পুরো টপ অর্ডারটাই ভেঙে যায়। মাত্র ১৩ বলের মধ্যে আরও চারটে উইকেট হারিয়ে রীতিমতো ধুঁকতে শুরু করে হলুদ জার্সিধারীরা। তবে অবাক করা ব্যাপার হল, চার উইকেট পড়ার পরেই মহেন্দ্র সিংহ ধোনিকে ব্যাট হাতে দেখা যায়নি।

আরও অবাক করল পঞ্চম উইকেটে কেদার যাদব আর ফাফ দু’প্লেসির মন্থরতা। রানের গতি বাড়ানোর যে উদ্যম দেখানো উচিত ছিল, সেটা তাদের মধ্যে কখনই দেখা যায়নি। ১৪তম ওভারে যাদব আউট হতে আরও গর্তে ঘুকে যায় চেন্নাই।

পাঁচ উইকেট পড়ার পর ধোনি ক্রিজে আসেন। ধোনি যে ইদানীং ইনিংসে গতি পেতে অনেকটাই সময়ে নিয়ে নেন, সেটা এ দিনও দেখা গেল। তাঁর মধ্যে ছক্কা হাঁকানোর কোনো বাড়তি উদ্যম এ দিন দেখা যায়নি। অপর প্রান্তে থাকা দু’প্লেসিকে স্ট্রাইক দিয়ে দিচ্ছিলেন তিনি, আর যাবতীয় চেষ্টা দু’প্লেসিই করে যাচ্ছিলেন।

তবে ইনিংসের শেষ ওভারে মিনি ধোনি ধামাকা দেখা যায় এ দিন। স্টেডিয়ামের বাইরে বলকে বেশ কয়েক বার পাঠিয়ে ধোনি বুঝিয়ে দিলেন এই আইপিএলে তিনি জ্বলে উঠবেনই।

যদিও চেন্নাইয়ের আস্কিং রেট ক্রমশ বেড়ে যাচ্ছিল। সেই রেটের সঙ্গে পাল্লা দিতে দিতেই পরাজয় স্বীকার করে দেয় ধোনিবাহিনী।

Continue Reading

ক্রিকেট

‘বিরাট’ স্বস্তি! চার বছর পর আইপিএলে নিজেদের প্রথম ম্যাচ জিতল বেঙ্গালুরু

অভিষেকে অর্ধশতরান করে বেঙ্গালুরুর নায়ক দেবদত্ত পাড়িক্কাল।

Published

on

বেঙ্গালুরু ১৬৩-৫ (পাড়িক্কাল ৫৩, ডেভিলিয়ার্স ৫১, বিজয় শঙ্কর ১-১৪)  

হায়দরাবাদ ১৫৩ (বেয়ারস্টো ৬১, পাণ্ডে ৩৪, চাহল ৩-১৮)

খবরঅনলাইন ডেস্ক: অবশেষে কি সাপমুক্তি হতে চলেছে রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরুর। ইঙ্গিত কিন্তু তেমনই। শেষ যে বার বেঙ্গালুরু ফাইনালে উঠেছিল, সে বারই টুর্নামেন্টের প্রথম ম্যাচ জিতেছিল তারা। অর্থাৎ ২০১৬-এর পর আবার ২০২০-তে এসে আইপিএলের প্রথম ম্যাচ জিতল বিরাট কোহলির দল।

বেঙ্গালুরুর ব্যাটিংয়ের একটি নায়ক ছিলেন একজন। রঞ্জি ট্রফি, বিজয় হাজার ট্রফি, মুস্তাক আলি টি২০ ট্রফি, ভারতের তিনটে গুরুত্বপূর্ণ ঘরোয়া টুর্নামেন্টের অভিষেকেই অর্ধশতরান করেছিলেন তিনি। এ বার আইপিএলের অভিষেকেও সেই চমক দিলেন কর্নাটকের দেবদত্ত পাড়িক্কাল (Devdutt Padikkal)। পাড়িক্কালের ইনিংসে পর চিরাচরিত ঝড় দেখা গেল এবি ডেভিলিয়ার্সের ব্যাটে।

এ বার মরশুমের শুরু থেকেই পাড়িক্কালকে নিয়ে অনেক কথা হচ্ছিল। নিলামে তাঁকে তুলে নিয়ে বেঙ্গালুরু দুরদনাত কাজ করেছে বলেও জানাচ্ছিলেন ক্রিকেট বিশ্লেষকরা। সেই পাড়িক্কাল কিন্তু দেখিয়ে দিলেন তাঁর ওপরে বাজি ধরে কোনো ভুল বেঙ্গালুরু করেনি।

সোমবার টসে জিতে প্রথমে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয় সানরাইজার্স হায়দরাবাদ। বেঙ্গালুরুর নতুন ওপেনিং কম্বিনেশন এ দিন ব্যাট করতে আসে। অ্যারন ফিঞ্চের সঙ্গী হন পাড়িক্কাল। ম্যাচের প্রথম দশ ওভার শুধু পাড়িক্কালই শাসক করে গেলেন।

অস্ট্রেলিয়ার মারকুটে ফিঞ্চ পাড়িক্কালের সামনে ম্রিয়মাণ হয়ে পড়েছিলেন। ১৩৩ স্ট্রাইক রেট রেখে ৪২ বলে ৫৬ রান করেন তিনি। তবে ইনিংসে ৮টা চার মারলেও একটাও ছয় মারেননি তিনি।

পাড়িক্কাল আর ফিঞ্চ আউট হয়ে যাওয়ার পর কার্যত একই সঙ্গে ক্রিজে আসেন অধিনায়ক বিরাট কোহলি আর এবি ডেভিলিয়ার্স। একাদশ ওভার থেকেই রানের গতি স্লথ হয়ে যায় বেঙ্গালুরুর। এর পরেই ঝড় তোলেন ডেভিলিয়ার্স।

মোক্ষম সময়ে তাঁর ব্যাট থেকে দুর্ধর্ষ ৫০ রানের ইনিংসটা না বেরোলে বেঙ্গালুরু হয়তো ১৬০ রানের গণ্ডি পেরোতো না। তবে পাড়িক্কাল যে ঢঙে ব্যাট করছিলেন, তাতে অন্তত ১৮০ পর্যন্ত যাওয়া উচিত ছিল বেঙ্গালুরুর।

চিরাচরিত ভাবে বোলিংটাই বেঙ্গালুরুর কাছে সব থেকে বেশি চিন্তার জায়গা। দলে গতিসম্পন্ন বোলার থাকলেও রানের গতি আটকানোর ক্ষমতা তাদের কমই। ডেল স্টেইন এখন আর তাঁর সেরা চমক দিতে পারেন না। আর উমেশ যাদব তো লোপ্পা বল দিতে বেশ পারদর্শীই হয়ে গিয়েছেন।

এই দুই বোলারকে পেয়ে প্রথম কয়েক ওভারেই ঝড়ের মতো শুরু করে হায়দরাবাদ। তবে বেঙ্গালুরুর ভাগ্য ভালো ছিল যে দুর্ভাগ্যের রান আউটের শিকার হয়ে কিছুটা তাড়াতাড়িই প্যাভিলিয়নে ফিরে যান ডেভিড ওয়ার্নার। যদিও ক্রিজের অপর প্রান্তে আগ্রাসী ঢঙ্গেই ব্যাট শুরু করেছিলেন জনি বেয়ারস্টো।

ষষ্ঠ ওভারের পর থেকে হায়দরাবাদের রানের গতিতে কিছুটা লাগাম পড়ে। এর নেপথ্যে মূলত তিন জন ছিলেন, পেসার নবদীপ সাইনি এবং দুই স্পিনার ওয়াশিংটন সুন্দর আর যজুবেন্দ্র চাহল। নবদীপ সাইনি ঘণ্টায় ১৪৬-১৪৭ কিলোমিটার বেগে যে ফল ফেলেছিলেন, তা সত্যিই প্রশংসার যোগ্য।

যখন হায়দরাবাদের পক্ষে পরিস্থিতি কিছুটা কষ্টকর হয়ে উঠছিল, তখনই দায়িত্ব নিয়ে সেই চাপ কমিয়ে দেন উমেশ। ১৪তম ওভারে ১৪রান দেন তিনি। লোপ্পা লোপ্পা বলে বেয়ারস্টোকে আরও সুবিধা করে দেন। পরিস্থিতি অনেকটাই সহজ হয়ে যায় হায়দরাবাদের জন্য। কিন্তু তখনও ছবিটা অনেকটাই বাকি ছিল।

১৬তম ওভারে বেয়ারস্টোকে ফিরিয়ে দেন চাহল। আর ঠিক সেই মুহূর্ত থেকেই ম্যাচে ফিরতে শুরু করে হায়দরাবাদ। পরের ১০ বলে আরও তিনটে উইকেট হারায় হায়দরাবাদ। শেষ তিন ওভারে তাদের প্রয়োজনীয় রান গিয়ে দাঁড়ায় ২৯, হাত মাত্র চারটে উইকেট। ১৮তম ওভারে এ বার নায়ক হিসেবে উদয় হন নবদীপ সাইনি। পর পর ফিরিয়ে দেন ভুবনেশ্বর কুমার আর রশিদ খানকে।

খুব স্বস্তিদায়ক জায়গা থেকে তাসের ঘরের মতো ভেঙে পড়ে হায়দরাবাদ ব্যাটিং। জয়ের টার্গেট থেকে ১০ রান আগেই থেমে যায় হায়দরাবাদ।

Continue Reading

ক্রিকেট

আইপিএলের অভিষেকেই চমক দিলেন দেবদত্ত পাড়িক্কাল, ঝড় তুললেন এবি

Published

on

devdutt padikkal

খবরঅনলাইন ডেস্ক: রঞ্জি ট্রফি, বিজয় হাজার ট্রফি, মুস্তাক আলি টি২০ ট্রফি, ভারতের তিনটে গুরুত্বপূর্ণ ঘরোয়া টুর্নামেন্টের অভিষেকেই অর্ধশতরান করেছিলেন তিনি। এ বার আইপিএলের অভিষেকেও সেই চমক দিলেন কর্নাটকের দেবদত্ত পাড়িক্কাল (Devdutt Padikkal)। পাড়িক্কালের ইনিংসে পর চিরাচরিত ঝড় দেখা গেল এবি ডেভিলিয়ার্সের ব্যাটে।

এ বার মরশুমের শুরু থেকেই পাড়িক্কালকে নিয়ে অনেক কথা হচ্ছিল। নিলামে তাঁকে তুলে নিয়ে বেঙ্গালুরু দুরদনাত কাজ করেছে বলেও জানাচ্ছিলেন ক্রিকেট বিশ্লেষকরা। সেই পাড়িক্কাল কিন্তু দেখিয়ে দিলেন তাঁর ওপরে বাজি ধরে কোনো ভুল বেঙ্গালুরু করেনি।

সোমবার টসে জিতে প্রথমে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয় সানরাইজার্স হায়দরাবাদ। বেঙ্গালুরুর নতুন ওপেনিং কম্বিনেশন এ দিন ব্যাট করতে আসে। অ্যারন ফিঞ্চের সঙ্গী হন পাড়িক্কাল। ম্যাচের প্রথম দশ ওভার শুধু পাড়িক্কালই শাসক করে গেলেন।

অস্ট্রেলিয়ার মারকুটে ফিঞ্চ পাড়িক্কালের সামনে ম্রিয়মাণ হয়ে পড়েছিলেন। ১৩৩ স্ট্রাইক রেট রেখে ৪২ বলে ৫৬ রান করেন তিনি। তবে ইনিংসে ৮টা চার মারলেও একটাও ছয় মারেননি তিনি।

পাড়িক্কাল আর ফিঞ্চ আউট হয়ে যাওয়ার পর কার্যত একই সঙ্গে ক্রিজে আসেন অধিনায়ক বিরাট কোহলি আর এবি ডেভিলিয়ার্স। একাদশ ওভার থেকেই রানের গতি স্লথ হয়ে যায় বেঙ্গালুরুর। এর পরেই ঝড় তোলেন ডেভিলিয়ার্স।

মোক্ষম সময়ে তাঁর ব্যাট থেকে দুর্ধর্ষ ৫০ রানের ইনিংসটা না বেরোলে বেঙ্গালুরু হয়তো ১৬০ রানের গণ্ডি পেরোতো না। তবে পাড়িক্কাল যে ঢঙে ব্যাট করছিলেন, তাতে অন্তত ১৮০ পর্যন্ত যাওয়া উচিত ছিল বেঙ্গালুরুর।

খবরঅনলাইনে আরও পড়তে পারেন

আম্পায়ারের ভুল সিদ্ধান্তের খেসারত! গর্জে উঠল পঞ্জাব শিবির

Continue Reading
Advertisement
প্রযুক্তি15 mins ago

সাবধান! এই জাতীয় অ্যাপগুলি ডাউনলোড করতে নিষেধ করছে কেন্দ্র

দেশ1 hour ago

বৃদ্ধি দৈনিক সংক্রমণে, আশা জোগাচ্ছে ১৪টি রাজ্য

দেশ2 hours ago

কোভিড আপডেট: নতুন করে আক্রান্ত ৮৩৩৪৭, সুস্থ ৮৯৭৪৬

রাজ্য3 hours ago

রাজ্যের ৯ জেলায় দৈনিক আক্রান্তের থেকে সুস্থ কোভিডরোগীর সংখ্যা বেশি

Narendra Modi
দেশ11 hours ago

২০১৫ থেকে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর বিদেশ সফরে খরচ হয়েছে প্রায় ৫১৮ কোটি টাকা

দেশ12 hours ago

অর্থনীতিতে নতুন হাতছানি বাংলাদেশ-ভারত পণ্যবাহী রেল চলাচল

IPL rajasthan Royals
ক্রিকেট12 hours ago

রানের বন্যা শেষে চেন্নাই-জয় রাজস্থান রয়্যালসের

Sherpa Ang Rita
অ্যাডভেঞ্চার14 hours ago

অক্সিজেন সিলিন্ডার ছাড়াই ১০ বার মাউন্ট এভারেস্ট বিজয়ী আং রিটা প্রয়াত

দেশ2 hours ago

কোভিড আপডেট: নতুন করে আক্রান্ত ৮৩৩৪৭, সুস্থ ৮৯৭৪৬

coronavirus west bengal
দেশ1 day ago

এই প্রথম ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ কোভিডরোগীর সংখ্যা এক লক্ষ ছাড়াল

দেশ3 days ago

সোমবার থেকে স্কুল খোলা বাধ্যতামূলক নয়, দেখে নিন কোন রাজ্য কী সিদ্ধান্ত নিল

দেশ3 days ago

ব্যথার কারণ খুঁজতে হল এক্স-রে, বন্দির মলদ্বারে হদিশ মিলল চারটি মোবাইলের

mamata banerjee
রাজ্য3 days ago

সোমবার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের উত্তরবঙ্গ সফর স্থগিত

বিনোদন2 days ago

অনুমতি না নিয়েই ডেটিং অ্যাপে ছবি, কলকাতা পুলিশের দ্বারস্থ নুসরত জাহান

coronavirus west bengal
রাজ্য2 days ago

রাজ্যের চার জেলার কোভিড পরিস্থিতি নিয়ে বিশেষ ভাবে উদ্বিগ্ন স্বাস্থ্য দফতর

corona
দেশ3 days ago

৫টি রাজ্যেই মোট সক্রিয় কোভিডরোগীর ৬০ শতাংশ!

কেনাকাটা

কেনাকাটা17 hours ago

মহিলাদের পোশাকের পুজোর ১০টি কালেকশন, দাম ৮০০ টাকার মধ্যে

খবরঅনলাইন ডেস্ক : পুজো তো এসে গেল। অন্যান্য বছরের মতো না হলেও পুজো তো পুজোই। তাই কিছু হলেও তো নতুন...

কেনাকাটা4 days ago

সংসারের খুঁটিনাটি সমস্যা থেকে মুক্তি দিতে এই জিনিসগুলির তুলনা নেই

খবরঅনলাইন ডেস্ক : নিজের ও ঘরের প্রয়োজনে এমন অনেক কিছুই থাকে যেগুলি না থাকলে প্রতি দিনের জীবনে বেশ কিছু সমস্যার...

কেনাকাটা7 days ago

ঘরের জায়গা বাঁচাতে চান? এই জিনিসগুলি খুবই কাজে লাগবে

খবরঅনলাইন ডেস্ক : ঘরের মধ্যে অল্প জায়গায় সব জিনিস অগোছালো হয়ে থাকে। এই নিয়ে বারে বারেই নিজেদের মধ্যে ঝগড়া লেগে...

কেনাকাটা2 weeks ago

রান্নাঘরের জনপ্রিয় কয়েকটি জরুরি সামগ্রী, আপনার কাছেও আছে তো?

খবরঅনলাইন ডেস্ক: রান্নাঘরের এমন কিছু সামগ্রী আছে যেগুলি থাকলে কাজ করাও যেমন সহজ হয়ে যায়, তেমন সময়ও অনেক কম খরচ...

কেনাকাটা2 weeks ago

ওজন কমাতে ও রোগ প্রতিরোধশক্তি বাড়াতে গ্রিন টি

খবরঅনলাইন ডেস্ক : ওজন কমাতে, ত্বকের জেল্লা বাড়াতে ও করোনা আবহে যেটি সব থেকে বেশি দরকার সেই রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা...

কেনাকাটা2 weeks ago

ইউটিউব চ্যানেল করবেন? এই ৮টি সামগ্রী খুবই কাজের

বহু মানুষকে স্বাবলম্বী করতে ইউটিউব খুব বড়ো একটি প্ল্যাটফর্ম।

কেনাকাটা4 weeks ago

ঘর সাজানোর ও ব্যবহারের জন্য সেরামিকের ১৯টি দারুণ আইটেম, দাম সাধ্যের মধ্যে

খবরঅনলাইন ডেস্ক: ঘর সাজাতে কার না ভালো লাগে। কিন্তু তার জন্য বাড়ির বাইরে বেরিয়ে এ দোকান সে দোকান ঘুরে উপযুক্ত...

কেনাকাটা1 month ago

শোওয়ার ঘরকে আরও আরামদায়ক করবে এই ৮টি সামগ্রী

খবর অনলাইন ডেস্ক : সারা দিনের কাজের পরে ঘুমের জায়গাটা পরিপাটি হলে সকল ক্লান্তি দূর হয়ে যায়। সুন্দর মনোরম পরিবেশে...

kitchen kitchen
কেনাকাটা1 month ago

রান্নাঘরের এই ৮টি জিনিস কাজ অনেক সহজ করে দেবে

খবরঅনলাইন ডেস্ক: আজকাল রান্নাঘরের প্রত্যেকটি কাজ সহজ করার জন্য অনেক উন্নত ব্যবস্থা এসে গিয়েছে। তা হলে ঘণ্টার পর ঘণ্টা কষ্ট...

care care
কেনাকাটা1 month ago

চুল ও ত্বকের বিশেষ যত্নের জন্য ১০০০ টাকার মধ্যে এই জিনিসগুলি ঘরে রাখা খুবই ভালো

খবরঅনলাইন ডেস্ক : পার্লার গিয়ে ত্বকের যত্ন নেওয়ার সময় অনেকেরই নেই। সেই ক্ষেত্রে বাড়িতে ঘরোয়া পদ্ধতি অনেকেই অবলম্বন করেন। বাড়িতে...

নজরে